কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আশাবাদী প্যাট কামিন্স

প্রকাশিত : ১৬ মার্চ ২০১৫
আশাবাদী প্যাট কামিন্স

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ রবিবার শেষ হলো গ্রুপপর্বের লড়াই। ইংল্যান্ড ছাড়া বাকি সব ফেবারিট দলই একাদশতম বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালের টিকেট নিশ্চিত করেছে। আট দলের লড়াই এখন সেমিফাইনালে ওঠার। গ্রুপপর্বের রোমাঞ্চকর লড়াইয়ের পর মাঝে দু’দিন বিরতি। এরপর আগামী বুধবার থেকেই শুরু হবে কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াই। আর সেই লড়াইয়ে নিজেকে মেলে ধরতে আশাবাদী অস্ট্রেলিয়ার পেসার প্যাট কামিন্স।

এবারের বিশ্বকাপের আয়োজক অস্ট্রেলিয়া। যে কারণে শুরু থেকেই ফেবারিটের তকমাটা গায়ে মাখানো ছিল তাদের। বিশ্বকাপের ছয় ম্যাচের একটিতে হেরে ‘এ’ গ্রুপের রানার্স আপ হিসেবে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে অসিরা। শুক্রবার অস্ট্রেলিয়ার এ্যাডিলেড ওভালে খেলতে নামবে তারা। প্রতিপক্ষ শক্তিশালী পাকিস্তান। যারা রবিবার গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে শেষ দল হিসেবে কোয়ার্টার ফাইনালের টিকেট কাটে। আর এই ম্যাচে নিজের সেরাটা ঢেলে দিতে চান অস্ট্রেলিয়ার তরুণ প্রতিভাবান পেসার প্যাট কামিন্স। এবারের বিশ্বকাপে মাত্র দুটি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। আর দুই ম্যাচ খেলেই প্রতিপক্ষের মূল্যবান ৫ উইকেট দখল করেন প্যাট কামিন্স। হোবার্টে শেষ ম্যাচে স্কটল্যান্ডের ৩ উইকেট দখল করেন। এর আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে লাভ করেন ২ উইকেট।

তবে পাকিস্তানের বিপক্ষে ভাল খেলার ব্যাপারে প্যাট কামিন্সের আশাবাদী হওয়ার আরেকটি কারণ রয়েছে। কেননা এ বছরে ইতোমধ্যেই এ্যাডিলেড ওভালে দুই ম্যাচ খেলে ফেলেছেন তিনি। বিশ্বকাপের আগে ভারতের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে এই এ্যাডিলেডে খেলেছিলেন তিনি। যে ম্যাচে ভারতের ৩ উইকেট লাভ করেছিলেন প্যাট কামিন্স। এছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে একটি টি-২০ ম্যাচও খেলেছিলেন এ্যাডিলেড ওভালে। তাই এই মাঠে কোয়ার্টার ফাইনাল খেলতে নামার আগে দারুণ রোমাঞ্চিত কামিন্স। এ বিষয়ে ২১ বছর বয়সী এই তরুণ প্রতিভাবান ক্রিকেটার বলেন, ‘এ্যাডিলেডে এ বছর দুটি ম্যাচ খেলেছি আমি। এটা দারুণ এক ব্যাপার। যে দুটি ম্যাচ খেলেছি তার দুটির উইকেটই ছিল ফাস্ট এবং বাউন্সি। যে কারণেই আমি মনে করি এই মাঠের কন্ডিশন আমাদেরই পক্ষে থাকবে।’

কোয়ার্টার ফাইনালের আগে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে প্রস্তুতিটাও দারুণভাবে সেরে নিল অস্ট্রেলিয়া। গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে ২০৮ বল বাকি থাকতেই ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে স্কটল্যান্ডকে হারায় তারা। শুক্রবার টসে জিতে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক স্কটল্যান্ডকে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠান এবং ২৫.৪ ওভারে মাত্র ১৩০ রানেই গুটিয়ে যায় স্কটল্যান্ড। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ৪২ রানের বিনিময়ে ৩ উইকেট দখল করেছিলেন প্যাট কামিন্স। জবাবে মাত্র ১৫.২ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়েই জয়ের লক্ষ্যে (১৩৩) পৌঁছে যায় মাইকেল ক্লার্কের দল। জয়ের পর উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন অসি অধিনায়ক ক্লার্ক। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘জয় সবসময়ই দলের পক্ষে ভাল। আসলে এর চেয়ে ভাল প্রস্তুতি আর কিছু হয় না। আমাদের বোলাররা খুব ভাল কাজ করেছে। প্রতিপক্ষকে অল্প রানেই আটকে রেখেছে তারা। এরপর ব্যাটসম্যানদের কাজ ছিল খুব দ্রুত রান তোলা। আর সেটাও তারা চমৎকারভাবে করেছে।’ স্বাগতিক দল তারা। ভক্ত-অনুরাগীদের প্রত্যাশাও অনেক বেশি। আসলে অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু। এমন প্রশ্নের জবাবে ক্লার্ক বলেন, ‘এখন নকআউটের খেলা। আমাদের নিজেদের সেরাটা খেলতে হবে। আমি মনে করি, যদি আমরা সেরাটা খেলতে পারি, তাহলে বিশ্বকাপ জিততে পারব। কোন সমস্যা হবে না।’

অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের সাবেক তারকা এ্যাডাম গিলক্রিস্ট ক্রিকেটকে বিদায় বলেছেন আরও আগেই। এবারের বিশ্বকাপে লঙ্কান তারকা কুমার সাঙ্গাকারার পারফর্মেন্সে মুগ্ধ তিনি। তবে তাঁর প্রশংসা করার সুরটা একটু ব্যতিক্রম। এ বিষয়ে এ্যাডাম গিলক্রিস্ট মজা করে বলেন, ‘আমিও পরপর চারটে সেঞ্চুরি করেছি! আর তা কোথায় জানেন? গলফে!’ তবে এই রসিকতা করেই থেমে যাননি গিলক্রিস্ট। এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘অভিনন্দন সাঙ্গা। একদিনের ক্রিকেটে উইকেটকিপার হিসেবে ৫০০-র বেশি আউট করার কৃতিত্ব অর্জন করেছ! সেই সঙ্গে আমার রেকর্ড ভেঙ্গে দিয়েছ। আর রানের পর রান তোমার ব্যাট থেকে তো আসছেই। আসলে সত্যিকারের কিংবদন্তি তুমি।’

প্রকাশিত : ১৬ মার্চ ২০১৫

১৬/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: