মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

গ্রুপ পর্ব শেষ কোয়ার্টারে পাকিস্তান, উইন্ডিজ

প্রকাশিত : ১৬ মার্চ ২০১৫

মিথুন আশরাফ ॥ শেষ হয়ে গেল বিশ্বকাপ ক্রিকেটের গ্রুপ পর্বের খেলা। গ্রুপ পর্বের শেষ দিনে রবিবার শেষ দুই দল হিসেবে পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ কোয়ার্টার ফাইনালে খেলা নিশ্চিত করে নিয়েছে। পাকিস্তানের কাছে ৭ উইকেটে হেরে আয়ারল্যান্ড বিদায় নিয়েছে। একইদিন সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে ৬ উইকেটে জিতে রানরেটে আইরিশদের পেছনে ফেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ কোয়ার্টার ফাইনালের টিকেট পেয়েছে।

পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ না আয়ারল্যান্ড, তিন দলের মধ্যে কোন্ দুই দল কোয়ার্টার ফাইনালে খেলবে, তা নিশ্চয়তার দিন ছিল রবিবার। আমিরাতের বিপক্ষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, পাকিস্তানের বিপক্ষে আয়ারল্যান্ডের খেলা ছিল। ম্যাচ দুটির আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের যেখানে ৪ পয়েন্ট ছিল, সেখানে পাকিস্তান ও আয়ারল্যান্ডের ছিল ৬ পয়েন্ট করে। তবে রানরেটে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অনেক এগিয়ে ছিল। আর তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজ জিতলেই রানরেটে এগিয়ে থাকার সঙ্গে ৬ পয়েন্ট নিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠবে তা আগেই বোঝা গেছে।

(২ পৃষ্ঠা ২ কঃ দেখুন) কোয়ার্টারে পাকিস্তান

(প্রথম পৃষ্ঠার পর)

পাকিস্তান ও আয়ারল্যান্ডের মধ্যে যে দল জিতবে, তারা ৮ পয়েন্ট পেয়ে নিশ্চিতভাবেই কোয়ার্টার ফাইনালে যাবে, হারা দলের ৬ পয়েন্ট থাকলেও রানরেটে পিছিয়ে পড়ে বিদায় নেবে; এমন সমীকরণ ছিল। শেষপর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজ জিতল, হারল আয়ারল্যান্ড। তাই পয়েন্ট সমান ৬ থাকলেও রানরেটে (ওয়েস্ট ইন্ডিজ Ñ০.০৫৩ ও আয়ারল্যান্ড Ñ০.৯৩৩ রানরেট) আইরিশদের পেছনে ফেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজই নক আউট পর্বে খেলার টিকেট পেয়েছে। ঠিক ২০১১ সালের বিশ্বকাপে সমান ৬ পয়েন্ট নিয়েও রানরেটে বাংলাদেশকে পেছনে ফেলে যেমন ওয়েস্ট ইন্ডিজ গ্রুপ পর্ব অতিক্রম করেছে, এবার শুধু বাংলাদেশের স্থানে আয়ারল্যান্ড দলটি ছিল।

পাকিস্তান-আয়ারল্যান্ড ম্যাচটি হয় এ্যাডিলেডে। টস জেতে আয়ারল্যান্ড। আগে ব্যাট করে ওয়াহাব রিয়াজের (৩/৫৪) বোলিং তোপে পড়ে ৫০ ওভারে ২৩৭ রান তুলতেই অলআউট হয়। উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড ১০৭ রান করেন। এ রান অতিক্রম করতে গিয়ে সরফরাজ আহমেদের অপরাজিত ১০১ রানে ৪৬.১ ওভারে ২৪১ রান করে জিতে যায় পাকিস্তান। হারায় ৩টি উইকেট।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ-সংযুক্ত আরব আমিরাত ম্যাচটি হয় অকল্যান্ডে। আগেই বোঝা গেছে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সামনে পাত্তাই পাবে না আমিরাত। তাই ঘটল। আগে ব্যাট করে ৪৭.৪ ওভারে ১৭৫ রান করে আমিরাত। নাসির আজিজ সর্বোচ্চ ৬০ রান করেন। জেসন হোল্ডার ৪টি ও জেরম টেইলর ৩ উইকেট নেন। জবাবে চার্লসের ৫৫ ও কার্টারের অপরাজিত ৫০ রানে ৩০.৩ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৭৬ রান করে জিতে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ক্রিস গেইলকে ম্যাচটিতে বিশ্রামে রাখা হয়।

আগেই দুই গ্রুপ থেকে ছয়টি দল কোয়ার্টার ফাইনালে খেলা নিশ্চিত করে নিয়েছিল। ‘এ’ গ্রুপের চারটি দল ছিল-নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশ। আর ‘বি’ গ্রুপ থেকে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা কোয়ার্টার ফাইনালে খেলা নিশ্চিত করেছিল। রবিবার পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজও নক আউট পর্বে খেলা নিশ্চিত করে নিল। সেই সঙ্গে কোয়ার্টার ফাইনালের প্রতিপক্ষগুলোও নির্ধারণ হয়ে গেল।

এখন কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচ হওয়ার অপেক্ষা। মাঝখানে দুই দিন বিরতি রয়েছে। বুধবার সিডনিতে দক্ষিণ আফ্রিকা-শ্রীলঙ্কার মধ্যকার প্রথম কোয়ার্টার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। পরের দিন মেলবোর্নে বাংলাদেশ-ভারত দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনাল খেলবে। ২০ মার্চ এ্যাডিলেডে অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান তৃতীয় কোয়ার্টার ফাইনাল ও ২১ মার্চ ওয়েলিংটনে নিউজিল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ চতুর্থ কোয়ার্টার ফাইনাল লড়াই করবে।

প্রকাশিত : ১৬ মার্চ ২০১৫

১৬/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: