মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ম্যাককুলামের চিন্তায় বাংলাদেশের পেস এ্যাটাক

প্রকাশিত : ১৩ মার্চ ২০১৫
ম্যাককুলামের চিন্তায় বাংলাদেশের পেস এ্যাটাক

জাহিদুল আলম জয় ॥ একবার নয়, দু’দু’বার বাংলাদেশের কাছে ‘হোয়াইটওয়াশ’ হয়েছে নিউজিল্যান্ড। সেই প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধেই ঘরের মাঠে আজ বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে কিউইরা। গ্রুপের পাঁচটি ম্যাচই জিতে বিশ্বকাপ জয়ে ফেবারিটদের কাতারে এখন ব্র্যান্ডন ম্যাককুলামের দল। বাংলাদেশও নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা সাফল্য দেখিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে। এমন অবস্থায় হ্যামিল্টনের ম্যাচটি দু’দলের জন্যই মর্যাদার। ম্যাচটি জিততে তাই মুখিয়ে আছে দু’দলই। নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক ম্যাককুলামও জয়ের অভিন্ন প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। তবে বাংলাদেশের পেস বোলিংকে সমীহ করছেন তিনি।

এ্যাডিলেডে ইংল্যান্ডকে ৪৮.৩ ওভারে ২৬০ রানে অলআউট করে ১৫ রানে জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। ম্যাচে ইংলিশদের আট উইকেটই তুলে নেন টাইগার পেসাররা। বাকি দু’টি রানআউট। এ কারণেই বাংলাদেশকে নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক ম্যাককুলাম। টাইগারদের পেস শক্তি দেখে নাকি ঘুম হারাম হওয়ার যোগাড় কিউই কাপ্তানের! বাংলাদেশের বোলিংয়ে সবসময়ই দেখা গেছে, মূল ভরসার জায়গা স্পিন। তবে চলমান বিশ্বকাপে অন্যান্য দলের মতো বাংলাদেশের পেসাররাও আলো ছড়াচ্ছেন। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, রুবেল হোসেন আর তাসকিন আহমেদ সমন্বয়ে গড়া পেস আক্রমণ প্রায় ম্যাচেই সফল হয়েছে। ইংলিশদের বিরুদ্ধে আট-আটটি উইকেট নিয়ে তাদের মাটিতে নামান টাইগার পেসাররাই। শুধু ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধেই নয়, অন্যান্য ম্যাচেও ভাল করেছেন বাংলাদেশের পেস বোলাররা। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচটি বৃষ্টির কারণে প- হয়। বাকি চার ম্যাচে বাংলাদেশের তিন পেসার ৬টি করে উইকেট নিয়েছেন।

বাংলাদেশের পেসারদের এই সাফল্য দৃষ্টি এড়ায়নি নিউজিল্যান্ড অধিনায়কের। বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে ম্যাককুলাম বলেন, ‘ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের কয়েকজন দ্রুতগতির বোলারকে দেখেছি। বল হাতে তারা দুর্দান্ত পারফর্ম করেছে। দুই বছর আগের তুলনায় তারা এখন অনেক বেশি পরিণত, অনেক বেশি ভয়ঙ্কর।’ ম্যাচটা সহজ হবে না বলেই মনে করছেন উইকেটরক্ষক এই ব্যাটসম্যান, ‘ম্যাচটি জেতা কঠিন হবে বলেই মনে হচ্ছে। তাদের (বাংলাদেশ) পেস বোলাররা আমাদের জন্য কাজটা সহজ হতে দেবে না।

পিচে যদি খানিকটা আর্দ্রতা থাকে তাহলে সেটারও সুবিধা পাবে পেসাররা।’ তবে এসব নিয়ে দল ভীত নয় বলেও জানিয়েছেন ম্যাককুলাম। তিনি আশাবাদী বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভাল করবে তাঁর দলের ব্যাটসম্যানরা। ৩৩ বছর বয়সী এই হার্ডহিটার ব্যাটসম্যান বলেন, ‘এবারের বিশ্বকাপেই আমরা বেশ কয়েকজন ভাল পেস বোলারের মুখোমুখি হয়েছি। তাই আমি আশা করছি, আমরা তাদের (বাংলাদেশের পেসার) সঙ্গে লড়াই করতে পারব।’ নিজের দলের প্রশংসা করে ম্যাককুলাম বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে নিজেদের যোগ্যতা প্রমাণ করেছি। দলীয় স্কোরবোর্ডও তাই বলে। টুর্নামেন্টের পরবর্তী ম্যাচগুলোতেও এ ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে আশা করছি।’

হ্যামিল্টনের সেডন পার্কে ম্যাচটির আগে ঘুরেফিরে আসছে ‘প্রতিশোধ’ শব্দটি। কেননা ২০১০ সালে নিজেদের দেশে ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশের কাছে ৪-০ ব্যবধানে হেরেছিল নিউজিল্যান্ড। শুধু তাই নয়, ২০১৩ সালে বাংলাদেশ সফরে এসেও স্বাগতিকদের কাছে ৩-০ ব্যবধানে হেরে ধবলধোলাই হয়েছিল কিউইরা। সঙ্গতকারণেই আজকের ম্যাচের আগে প্রতিশোধের বিষয়টি আসছে ঘুরেফিরে। অবশ্য সংবাদ সম্মেলনে ম্যাককুলাম সতর্কতার সঙ্গে প্রতিশোধ বিষয়টি এড়িয়ে যান। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘প্রতিশোধ সম্পর্কে আমি জানি না। কিন্তু আমরা সত্যিকার অর্থেই গুরুত্বপূর্ণ একটি টুর্নামেন্টের মাঝখানে আছি। সব ম্যাচই আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা প্রতিশোধ নিয়ে ভাবছি না। আমাদের লক্ষ্য স্বাভাবিক খেলা খেলে জয় পাওয়া।’

প্রকাশিত : ১৩ মার্চ ২০১৫

১৩/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: