কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বায়ান্ন বাজার তিপ্পান্ন গলি

প্রকাশিত : ১৩ মার্চ ২০১৫
বায়ান্ন বাজার তিপ্পান্ন গলি

মোরসালিন মিজান ॥ অদ্ভুত এক জাগরণের নাম ক্রিকেট। প্রিয় এই খেলা বাঙালীকে আবেগে ভাসায়। হাসায় কাঁদায় যখন তখন। আর যেখানেই বিভেদ অনৈক্য থাকুক না কেন, ক্রিকেটে নেই। এখানে গোটা দেশ এক হয়ে যায়। বিশ্বকাপ ক্রিকেট শুরু হওয়ার পর সেটি আরও বেশি প্রকাশিত হচ্ছে। বিশেষ করে ইংল্যান্ডের মতো পরাশক্তিকে উড়িয়ে দেয়ার ঘটনায় উদ্বেলিত টাইগার সমর্থকরা। সারা দেশের মতো ঢাকায়ও চলছে বিজয় উৎসব উদ্যাপন। সোমবার খেলা শেষ হওয়ার পর থেকে মুখরিত বায়ান্ন বাজার তিপ্পান্ন গলির শহর। পতাকার লাল-সবুজে সেজে ছেলে বুড়ো নারী পুরুষ সকলেই আনন্দে মেতেছে। জরুরী কাজের মাঝে গল্পে আড্ডায় এই এক প্রসঙ্গ। বাংলাদেশ কত ভাল খেলল, আরও কী কী করে দেখাবার আছেÑ সেসব কথা হচ্ছে।

মজার ব্যাপার হচ্ছে, প্রতিদিনই বাড়ছে প্রত্যাশা। নতুন নতুন স্বপ্ন ডানা মেলছে। প্রত্যাশার এই চাপ নিয়ে আজ শুক্রবার বাংলাদেশ দল খেলবে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার টিএসসির এক আড্ডায় কান পাততেই শোনা গেল চমকপ্রদ মন্তব্য। এক তরুণ বলছিলেন, নিউজিল্যান্ডকে তো বহু আগেই ধুয়ে দিয়েছি আমরা। এখন ওরা হয়ত আগের চেয়ে শক্ত টিম। তাতে কী, আমাদের সামনে দাঁড়াতে ভয় পাবে। হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল না? ভুলতে পারবে? অন্যজন অবশ্য নিউজিল্যান্ড নিয়ে ভেবে সময় নষ্ট করতে নারাজ। বললেন, আরে, কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে গেছি। এখন নিউজিল্যান্ড নিয়ে ভাবতে যাব কেন? ভারত কিংবা সাউথ আফ্রিকা হবে প্রতিপক্ষ। আমরা তাদের নিয়ে কথা বলতে পারি। তাঁর মতে, কোয়ার্টার ফাইনালে যারপরনাই উজ্জীবিত বাংলাদেশ। যে দলই আসুক প্রতিপক্ষ হয়ে, বুক কাঁপবে!

প্রত্যাশা বেড়েছে এমনকি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। তাঁর বিভিন্ন বক্তব্যে সেটি স্পষ্ট। সংসদে, মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে নিজ থেকেই ক্রিকেটের আলোচনা জুড়ে দিচ্ছেন খেলাপ্রেমী প্রধানমন্ত্রী। জাতীয় সংসদে দলের জন্য দেশবাসীর দোয়া চেয়েছেন তিনি। বলেছেন, আমাদের টাইগাররা ইংল্যান্ডকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে। এ জন্য আমি দেশবাসীর কাছে দোয়া চাই। যাতে আমাদের রয়েল বেঙ্গল টাইগাররা সেমি-ফাইনালে উঠতে পারে। হয়ত তারা একদিন ফাইনালে গিয়ে বিশ্বকাপের শিরোপা ঘরে আনবে। এর আগে মঙ্গলবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের সভায়ও ক্রিকেট নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী। সভায় উপস্থিত মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, সচিবসহ সবাইকে মিষ্টি খাওয়ান তিনি। মুষ্ঠিবদ্ধভাবে হাত উঁচিয়ে বলেন, বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা বাঘের বাচ্চা। এ সময় টেবিল চাপড়িয়ে বাংলাদেশের সকল ক্রিকেটারের প্রশংসা করেন তিনি।

প্রকাশিত : ১৩ মার্চ ২০১৫

১৩/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: