কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

ঝলক

প্রকাশিত : ১৩ মার্চ ২০১৫

নগ্ন হয়ে প্রচার

স্পেনের বাস্ক কাউন্টির বিলবাও শহরের ছোট্ট এলাকা পর্তুগালতে। আসন্ন পৌর নির্বাচন নিয়ে খুব একটা মাতামাতি না হলেও হঠাৎ করেই আলোচনায় উঠে আসে এলাকাটি। কারণ পৌর নির্বাচনে জয়ী হতে এবার নগ্ন হয়ে প্রচারে নেমেছেন মেয়র পদপ্রার্থী ইয়োলান্দা কৌসিরো মরিন। ইতোমধ্যে ভোটারদের দৃষ্টি আকর্ষণে শহরের সর্বত্র নিজের নগ্ন ছবিসহ ভোট প্রার্থনার পোস্টার ছড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। যা শহরজুড়ে সৃষ্টি করেছে আলোড়ন।জানা গেছে, স্পেনের দক্ষিণপন্থী রাজনৈতিক দল ক্লিন হ্যান্ডসের নেত্রী ইয়োলান্দা। এবারের মেয়র নির্বাচনের অন্যতম পদপ্রার্থী তিনি। পোস্টারে মরিনকে দেখা যায় সম্পূর্ণ নগ্ন অবস্থায় দাঁড়িয়ে থাকতে। তবে তিনি দু’হাত দিয়ে ঢেকে রেখেছেন গোপনাঙ্গ। আর তার ওপরেই তিনি ব্যবহার করেছেন নিজের নির্বাচনী সেøাগান, ‘রাজনীতিকরা আমাদের সম্পূর্ণ নগ্ন করে ছেড়েছেন।’

নিজের এ অভিনব প্রচারণা সম্পর্কে মরিন বলেন, ‘শহরবাসীর দৃষ্টি আকর্ষণের জন্যই নিজের নগ্ন ছবি দিয়ে পোস্টার ছাপিয়েছি। এটা যেমন মানুষের মনে দাগ কাটবে, তেমনি বামপন্থীদের বিকল্প হিসেবে দল প্রতিষ্ঠা পাবে।’

কর্নফ্লেক্সের বাক্সে অজগর

রান্নাঘরে মূর্তিমান ত্রাস! কর্নফ্লেক্সের প্যাকেটের ভেতরে পাওয়া গেল আস্ত অজগর। ঘটনাটি ঘটেছে অস্ট্রেলিয়ার সিডনি শহরে। দুপুরবেলা খাবার তৈরি করতে রান্নাঘরে ঢুকেছিলেন সিডনি শহরের বাসিন্দা বাইশ বছর বয়সী জ্যারেড স্মিথ। বহুজাতিক খাদ্য প্রস্তুতকারী সংস্থার প্যাকেট থেকে কর্নফ্লেক্স বের করতে গিয়ে চমকে উঠেন তিনি। ছোট্ট কার্ডবোর্ডের বাক্সের ভেতর গুটিসুটি মেরে শুয়ে রয়েছে পূর্ণবয়স্ক ডায়মন্ড পাইথন। জ্যারেডের সাড়া পেয়েই মুখ তোলে সে। ভয়ে দিশেহারা হয়ে সঙ্গে সঙ্গে রান্নাঘর ছেড়ে পালায় স্মিথ। ঘটনাটি খুলে বলেন বাবাকে।

এরপর খবর দেয়া হয় নিউ সাউথ ওয়েলস বন্যপ্রাণী দফতরে। কিছুক্ষণের মধ্যেই এসে পৌঁছায় উদ্ধারকারী দল। বাক্স ছিঁড়ে ফেলতেই নড়েচড়ে বেরিয়ে পড়ে অজগর। তাকে কিছু দূরের জঙ্গলে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। কিন্তু স্বল্প পরিসরের কার্ডবোর্ড বাক্সে কিভাবে দুই মিটার দীর্ঘ পাইথনটি আশ্রয় নিল, তা ভেবেই কূল-কিনারা পাচ্ছেন না বন্যপ্রাণী দফতরের কর্মকর্তারা।

ট্যাক্সি চালিয়ে নাগরিক সেবা

জর্জিয়ার গুর্জানি শহরের কাউন্সিলর যুরাব সপিয়েশিভিলি জনসেবার নিদর্শন হিসেবে বাসিন্দাদের বিনামূল্যে ট্যাক্সি সেবা দিতে শুরু করেছেন। প্রতি রবিবার চার ঘণ্টা করে ট্যাক্সি সেবা দেন তিনি। এ কাজে তিনি ব্যবহার করছেন তাঁর গাড়ি। এ বিষয়ে যুরাব বলেন, আমি মানুষকে বোঝাতে চাই যে, আমি তাদের একজন সেবক মাত্র, প্রভু নই।

তার এ উদ্যোগ জর্জিয়ানদের মধ্যে বেশ সাড়া ফেলেছে। অনেক ট্যাক্সিচালকও এতে উৎসাহিত হয়ে কয়েক ঘণ্টা করে বিনামূল্যে ট্যাক্সি সেবা দিতে শুরু করেছেন।

প্রকাশিত : ১৩ মার্চ ২০১৫

১৩/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: