কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বিশ্বকাপের সেরা দল দক্ষিণ আফ্রিকা

প্রকাশিত : ১২ মার্চ ২০১৫
  • প্রোটিয়া অধিনায়ক এবি ডি ভিলিয়ার্স

জিএম. মোস্তফা ॥ একাদশতম বিশ্বকাপের প্রথম পাঁচ ম্যাচের তিনটিতেই জয়ের স্বাদ পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। সেই সঙ্গে এক ম্যাচ হাতে রেখে কোয়ার্টার ফাইনালের টিকেটও নিশ্চিত করেছে তারা। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে আজ সংযুক্ত আরব আমিরাতের মুখোমুখি হবে প্রোটিয়াসরা। তার আগেই দক্ষিণ আফ্রিকাকে এখন পর্যন্ত টুর্নামেন্টের সেরা দল হিসেবে মন্তব্য করলেন দলটির অধিনায়ক এবি ডি ভিলিয়ার্স। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমার শতভাগ বিশ্বাস যে এবারের বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত আমরাই সেরা দল।’

আরব আমিরাতের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচটি আজ ওয়েলিংটনে অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু আগের ম্যাচে পাকিস্তানের দুর্দান্ত পারফর্মেন্সের কাছে লজ্জাজনকভাবে হার মানে দক্ষিণ আফ্রিকা। আর পাকিস্তানের কাছে ২৯ রানের পরাজয় দলের মধ্যে হতাশার জন্ম দেয়। বিশেষ করে টুর্নামেন্টের ফেবারিট হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকার এই পরাজয় অনেকেই মেনে নিতে পারেনি। পাকিস্তানের কাছে হারের আগে ভারতের কাছেও পরাজিত হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। যা ২৩ বছরের বিশ্বকাপ ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ভারতের কাছে পরাজয় মেনে নেয় প্রোটিয়ারা। কিন্তু সেই পরাজয়ের বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ডি ভিলিয়ার্স। তাঁর মতে, দক্ষিণ আফ্রিকা এখনও সঠিক পথেই রয়েছে। এ বিষয়ে এবি বলেন, ‘এখনও সবকিছুই ইতিবাচক হিসেবে আমি মেনে নিয়েছি। এখনও আমি দারুণ আত্মবিশ্বাসী। আমি শতভাগ বিশ্বাস করি যে, বিশ্বকাপে আমরাই সেরা দল। গ্রুপ পর্বে ঐ দুটি গুরুত্বপূর্ণ পরাজয় হয়ত আমাদের কিছুটা হতাশ করেছে। আমিও ব্যক্তিগতভাবে হতাশ হয়েছি। কিন্তু এখন এসবই অতীত ঘটনা।’

বিশ্বকাপে ‘বি’ গ্রুপের সবচেয়ে শক্তিশালী দল ভারত। একমাত্র দল হিসেবে পাঁচ ম্যাচের সবটিতেই জয়ের দেখা পেয়েছে তারা। অন্যদিকে সবচেয়ে খর্ব শক্তির দল হলো সংযুক্ত আরব আমিরাত। যারা এখন পর্যন্ত জয়ের মুখ দেখেনি। তাই এই ম্যাচের আগে আগে অনেকটাই আত্মবিশ্বাসী ডি ভিলিয়ার্স। সেই সঙ্গে এবার বিশ্বকাপ জয়েরও স্বপ্ন দেখছেন তিনি। এ বিষয়ে ডি ভিলিয়ার্স বলেন, ‘বিশ্বকাপ ঘরে তুলতে আর মাত্র কয়েকটি ম্যাচ বাকি রয়েছে। এবারের আসরে আগে ব্যাটিং করা ম্যাচগুলোতে দক্ষিণ আফ্রিকা নিজেদের শক্তিমত্তার পরিচয় দিয়েছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা ৪০০ রানের বেশি স্কোরবোর্ডে যোগ করেছি। কিন্তু ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে রান তাড়া করতে গিয়ে আমরা ব্যর্থ হই।’ এদিকে প্রোটিয়াদের সাবেক অধিনায়ক গ্র্যায়েম স্মিথও দক্ষিণ আফ্রিকার পারফর্মেন্সে সন্তুষ্ট। এই বিষয়টির দিকে গুরুত্ব দিয়ে স্মিথ বলেছেন, নক আউট পর্বে প্রতিপক্ষ যেই হোক না কেন নিজেদের আত্মবিশ্বাস ধরে রেখেই এগিয়ে যেতে হবে। রান তাড়া করতে গিয়ে ধৈর্য হারালে কোনক্রমেই চলবে না। চাপকে সামলে ওঠার মানসিকতা দেখাতে হবে। আমার বিশ্বাস বড় স্কোর তাড়া করার মতো যোগ্য ব্যাটসম্যান আমাদের দলে আছে। শুধু সঠিক সময়ে সঠিক কাজটা করতে হবে।’

‘বি’ গ্রুপে প্রথম পাঁচ ম্যাচের তিনটি করে জয় পাওয়া তিন দলেরই পয়েন্ট সমান ৬। তবে রান রেটে দুইয়ে আছে দক্ষিণ আফ্রিকা। যে কারণে ডি ভিলিয়ার্স বেশ ভালভাবেই জানেন যে গ্রুপের দ্বিতীয় স্থান ধরে রাখতে হলে আরব আমিরাতের বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই। আর দ্বিতীয় স্থান লাভ করলে নক আউট পর্বে সম্ভাব্য প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা। তবে দলে কিছু ইনজুরি সমস্যা নিয়ে দুশ্চিন্তা রয়েছে। হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে পেসার ভারনন ফিল্যান্ডার এবং পিঠের ব্যথার কারণে ব্যাটসম্যান ফাফ ডু প্লেসিস ফিটনেস সমস্যায় আছেন। শেষ মুহূর্তে তাদের ফিটনেস পরীক্ষা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তবে আরব আমিরাতের বিপক্ষে মূল দলের বাইরে থাকা ওয়েইন পারনেল কিংবা এ্যারন ফানগিসোর মতো খেলোয়াড়রা সুযোগ পাবেন কিনা এই প্রশ্নের উত্তরে ডি ভিলিয়ার্স জানান, ‘এটা খুবই কঠিন সিদ্ধান্ত। প্রতিটি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। আর এখানে সম্ভাব্য সেরা একদশই মনোনীত করা হবে। যদিও আমরা সবসময়ই বিশ্বাস করি বিশ্বকাপ স্কোয়াডের ১৫ সদস্যই গুরুত্বপূর্ণ।’

প্রকাশিত : ১২ মার্চ ২০১৫

১২/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: