আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষে নিহত এক আহত ২৪

প্রকাশিত : ১০ মার্চ ২০১৫

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ মাদারীপুরে তুচ্ছ ঘটনায় সংঘর্ষে আট জন আহত, রূপগঞ্জে দুই পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া আহত ৬, ভোলায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষে ১ জন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন। খবর নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

মাদারীপুর ॥ মাদারীপুরের কালকিনিতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ৮ জন আহত হয়েছে। রবিবার রাত ১০টার দিকে কালকিনি উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। কালকিনি থানার এসআই জসিমউদ্দিন জানান, লক্ষ্মীপুর গ্রামের হুমায়ুন মৃধার সঙ্গে একই এলাকার মকবুল মৃধার তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে তারা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

রূপগঞ্জ ॥ রূপগঞ্জে একটি আবাসন প্রকল্পের বালু ভরাটের কাজকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের ধাওয়া পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ৬ জন আহত হয়েছেন। সোমবার ভোরে উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার কলাতলী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্র জানায়, আবাসন প্রকল্পের বালু ভরাটের কাজ নিয়ে স্থানীয় আতাবুরের সঙ্গে এলাকার কাউন্সিলর আইয়ুব খানের বিরোধ চলছিল।

ভোলা ॥ আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে তজুমদ্দিন উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের দেওয়ানপুর গ্রামের চৌমুহনী এলাকায় সোমবার দুপুরে আওয়ামী লীগের নূরে আলম গ্রুপ একই দলের হাফেজ গ্রুপের মান্নানের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে। এ সময় আব্দুল মান্নানকে (৬০) পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ছাড়া অন্তত আরও ১০ জন আহত হয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানিয়েছে, তজুমদ্দিন উপজেলার চৌমুহনী এলাকার আওয়ামী লীগকর্মী নুরে আলম গ্রুপ ও আওয়ামী লীগকর্মী হাফেজ গ্রুপের মধ্যে পূর্বশত্রুতা, স্থানীয় চৌমোহনী লঞ্চঘাট ও মেঘনায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কিছু দিন ধরে উত্তেজনা চলে আসছে।

নাশকতা ॥ জামায়াত নেতাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

নিজস্ব সংবাদদাতা, জয়পুরহাট, ৯ মার্চ ॥ হরতাল-অবরোধের নামে অব্যাহত পেট্রোলবোমা মেরে বাস-ট্রাক পুড়িয়ে নাশকতা সৃষ্টির প্রতিবাদে ক্ষুব্ধ জনতা সোমবার দুপুরে জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর উপজেলা জামায়াতে ইসলামীর আমির ও আক্কেলপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রাশেদুল আলম সবুজকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। জানা যায়, সোমবার আনুমানিক দুপুর ১২টার দিকে বিক্ষুব্ধ জনতা জয়পুরহাট শহরের পাকার মাথা নামক স্থানে জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর উপজেলা জামায়াতে ইসলামীর আমির ও আক্কেলপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রাশেদুল আলম সবুজকে আটক করে এবং গণধোলাই শুরু করে। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে পুলিশের হাতে জামায়াত নেতাকে সোপর্দ করে ক্ষুব্ধ জনতা। আক্কেলপুর থানার পুলিশ জানায় আক্কেলপুর উপজেলা জামায়াতের আমির ও আক্কেলপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রাশেদুল আলম সবুজ আক্কেলপুরের বাস পোড়ানো মামলায় আসামি। তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

প্রকাশিত : ১০ মার্চ ২০১৫

১০/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: