মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

তিন জেলায় ২৩ দোকান ২৬ বসতঘর পুড়ে ছাই

প্রকাশিত : ১০ মার্চ ২০১৫

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ চট্টগ্রামে দুই অগ্নিকা-ে ২৩ আসবাবপত্রের দোকান ও তিন বসতঘর, নীলফামারীতে ২২ ঘর ও মুন্সীগঞ্জে প্রবাসীর বসতঘর পুড়ে গেছে। খবর স্টাফ রিপোর্টারদের।

চট্টগ্রাম ॥ নগরীতে দুটি অগ্নিকা-ে ২৩টি আসবাবপত্রের দোকান ও কারখানা এবং তিনটি বসতঘর ভস্মীভূত হয়েছে। আগুন আতঙ্কে মারা গেছেন এক ব্যক্তি আর আগুন নেভাতে গিয়ে দগ্ধ হয়েছেন এক যুবক। আগুনে প্রায় ৩০ লাখ টাকার আর্থিক ক্ষতি হয়। সোমবার ভোরে এ অগ্নিকা- ঘটে। চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিস নগরীর বায়েজিদ বোস্তামী থানার বালুছড়া এলাকায় সোমবার ভোর ৪টার দিকে ফার্নিচার মার্কেটে আগুন লাগে। এতে পুড়ে যায় ২৩টি সেমিপাকা আসবাবপত্রের দোকান ও কারখানা। বৈদ্যুতিক ত্রুটিজনিত কারণে একটি দোকানে আগুনের সূত্রপাত হয়ে তা দ্রুত সংক্রমিত হয় আশপাশের দোকানগুলোতে। এদিকে, আগুন আতঙ্কে ওই এলাকার কাছাকাছি দূরত্বের একটি বাসায় হার্টএ্যাটাকে অসুস্থ হয়ে পড়েন রবিউল আলম (৬০) নামের এক ব্যক্তি। দ্রুত তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একজন বেসরকারী কর্মচারী বলে বায়েজিদ থানা সূত্রে জানানো হয়। চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়া থানা বলিরহাট এলাকায় সোমবার ভোর ৪টার দিকে আরেকটি অগ্নিকা-ের ঘটনায় পুড়ে যায় তিনটি বসতঘর। এতেও প্রায় ৪ লাখ টাকার ক্ষতিসাধিত হয়।

নীলফামারী ॥ অগ্নিকা-ে কিশোরীগঞ্জ উপজেলার গাড়াগ্রাম ইউনিয়নের ছয়ঘড়িয়া গ্রামে ১৩টি পরিবারের ২২টি ঘর, আসবাবপত্র, মালামাল একটি শ্যালোমেশিন, দুটি বাইসাইকেল ও নগদ ৩৫ হাজার টাকা পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এ ছাড়া অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা গেছে চারটি গরু। রবিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

মুন্সীগঞ্জ ॥ সিরাজদিখানে প্রবাসীর বাড়িতে অগ্নিকা-ে একটি বসতঘর পুড়ে গেছে। এতে ৮ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রবিবার রাত ১টার দিকে সিরাজদিখানের বালুরচরের চান্দেরচর গ্রামের কুয়েত প্রবাসী শমসের আলীর বসতঘরে আগুন লাগে। স্থানীয় গ্রামের লোকজন এক ঘণ্টা চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ঝালকাঠিতে ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণে ১৩ ব্যক্তিকে সম্মাননা

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝালকাঠি, ৯ মার্চ ॥ ঝালকাঠি জেলায় ডিজিট্যাল বাংলাদেশের বিনির্মাণে অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ১৩ জনকে ক্রেস্ট ও সনদপত্র এবং ওয়াল প্যাড ট্যাব কম্পিউটার প্রদান করা হয়েছে। সোমবার সকাল সাড়ে ১১ টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলার বিভিন্ন বিভাগের শীর্ষ কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে এ পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে। জেলা প্রশাসক মোঃ শাখাওয়াত হোসেনের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে ৫ জন সরকারী কর্মকর্তা, ৩টি ইউনিয়ন পর্যায় ডিজিটাল সেবাকেন্দ্র, ৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম চালু করা, একজন ইউপি চেয়ারম্যান ও একজন ইউনোভিশনের জন্য এ ক্রেস্ট ও পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে।

প্রকাশিত : ১০ মার্চ ২০১৫

১০/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: