মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

মিরপুরের সাত থানায় বালুর বস্তার বিশেষ নিরাপত্তা বলয়

প্রকাশিত : ১০ মার্চ ২০১৫
  • সহিংসতায় পুলিশের ওপর হামলার ঘটনার প্রেক্ষিতে এ সতর্কতা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার অভাবে মিরপুর জোনের সাত থানার সামনে বিশেষ নিরাপত্তা চৌকি (সেন্ট্রি পোস্ট) বসিয়েছে পুলিশ। থানার চারদিকে বালুর বস্তা দিয়ে বাঙ্কার স্থাপন করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। এই চৌকির ভেতরে অস্ত্র তাক করে পুলিশ সদস্যরা সর্তক পাহারা দিচ্ছেন। নিরাপত্তার স্বার্থেই গত ৫ মার্চ থেকে থানার সামনে এ নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে।

সোমবার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া উইংয়ের উপকমিশনার মোঃ মাসুদুর রহমান সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার স্বার্থেই এ বলয় তৈরি করা হয়েছে। ডিএমপি চাইলে যে কোন সময় যে কোন বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারে। সম্প্রতি সাত থানায় এই নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে। থানাগুলো হচ্ছেÑ দারুস সালাম, কাফরুল, মিরপুর মডেল, পল্লবী, রূপনগর, শাহআলী ও ভাষানটেক।

মিরপুর বিভাগের উপকমিশনার নিসারুল আরিফ জানান, থানায় হামলা হতে পারেÑ এমন গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে এ নিরাপত্তা চৌকি প্রস্তুতির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এরই ভিত্তিতে সম্প্রতি সব থানায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোটের টানা হরতাল-অবরোধ সহিংসতায় পুলিশের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ কারণে পুলিশ সদস্যদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। ৫ মার্চ রাজারবাগ মাঠে তিনি সাংবাদিকদের জানান, অবরোধ শুরু হওয়ার পর থেকে হামলায় ৫৫ জন পুলিশ সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন। এ সময় একজন পুলিশ সদস্য নিহতও হয়েছেন।

পুলিশ সূত্র জানায়, গত ৫ জানুয়ারি থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সময়ে রাজধানীতে ২০২টি গাড়িতে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় পুলিশ ১ হাজার ৩০০ জনকে গ্রেফতার করেছে। যাদের মধ্যে ৯০০ জন বিএনপির সমর্থক। অন্যরা জামায়াত ও হিযবুত তাহরীর সদস্য। আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ৩২৫টি মামলা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সূত্র জানায়, বিএনপি-জামায়াত জোটের জঙ্গীরা বিভিন্ন কায়দায় পেট্রোলবোমা মেরে সাধারণ মানুষের ওপর হামলা চালিয়ে হত্যা করছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী জঙ্গী হামলাকারীদের চিহ্নিত করে আইনের মুখোমুখি করছে। জঙ্গীরা প্রতিশোধ নিতে পুলিশের ওপর হামলা চালাতে পারে। এ কারণে সব থানায় বিশেষ সর্তক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এ জন্য থানায় আসা লোকদের ওপর নজর রাখা হচ্ছে। সন্দেহজনক কাউকে পেলে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এমনকি থানার সামনে সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে তল্লাশি চৌকি বসানো হচ্ছে।

এ ব্যাপারে কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আব্দুল কাইয়ুম জানান, ওপর মহলের নির্দেশনায় আমরা এ বাড়তি নিরাপত্তা জোরদার করেছি। তবে আমাদের কেউ হুমকিধমকি দেয়নি। পল্লবী থানার ওসি জিয়াউজ্জামান জানান, বাড়তি নিরাপত্তার জন্য থানার সামনে বালুর বস্তা দিয়ে নিরাপত্তা চৌকি বসানো হয়েছে। ভাষানটেক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ জানান, জামায়াত-শিবির বিভিন্ন জায়গায় হামলা করছে। তারা থানাতেও হামলা করতে পারে। এজন্য বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তাই থানাগুলোর সামলে বাঙ্কার স্থাপন করা হয়েছে।

প্রকাশিত : ১০ মার্চ ২০১৫

১০/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: