কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

জয়পুরহাটে পেট্রোল বোমায় হত ১ ॥ ৬ শিবির ক্যাডারকে গণধোলাই

প্রকাশিত : ৯ মার্চ ২০১৫
জয়পুরহাটে পেট্রোল বোমায় হত ১ ॥  ৬ শিবির  ক্যাডারকে  গণধোলাই

স্টাফ রিপোর্টার ॥ চোরাগোপ্তা বোমাবাজি, যানবাহন ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের মধ্য দিয়ে বিএনপি জোটের হরতাল-অবরোধ কর্মসূচী অব্যাহত রয়েছে। রবিবার এ কর্মসূচী চলাকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে হরতালকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ৮ থেকে ১০টি বোমা নিক্ষেপ করে। এ ঘটনায় ২৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। রাত আটটার দিকে যাত্রাবাড়ীতে ঝটিকা মিছিল ও বাস ভাংচুর করেছে শিবিরকর্মীরা। এ সময় এক শিবিরকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়। জয়পুরহাটে এক যাত্রীবাহী বাসে পেট্রোলবোমা মারার পর বাসটি রাস্তার পাশে পড়ে গেলে মাথায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত যাত্রী উজ্জ্বল কুমার মারা যায়। এ সময় ৩ শিবিরকর্মীকে ধরে গণপিটুনি দেয় এলাকাবাসী। যশোরে সার্কিট হাউস গেটসহ ৪ স্থানে ৫টি বোমা বিস্ফোরণ করেছে হরতালকারীরা। নাশকতার অভিযোগে চট্টগ্রাম মহানগর জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমিরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ভোলায় বোমা বিস্ফোরণে তিন বোন আহত হয়েছে।

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে রবিবার রাত আটটার দিকে শিবিরের ঝটিকা মিছিল ও বাস ভাংচুরের সময় নারী ও শিশুসহ কয়েকজন আহত হয়েছে। এ সময় মিছিল থেকে ককটেল নিক্ষেপের সময় পুলিশ গুলি করলে আবদুল্লাহ আল মামুন (২০) নামে এক শিবিরকর্মী আহত হন।

যাত্রাবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আতিকুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, হরতালের সমর্থনে শিবিরের ২০-২৫ জনের একটি দল ঝটিকা মিছিল বের করে। মিছিল শেষে তারা পরপর কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ও যাত্রীবাহী বাস ভাংচুর চালায়। এ সময় পুলিশ বাধা দিলে তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ও হাতবোমা ছোড়ে। আত্মরক্ষায় পুলিশও তাদের লক্ষ্য করে রাবার বুলেট ছোড়ে। এতে মামুনের পায়ে একটি বুলেট বিদ্ধ হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেয়া হয়। শিবিরকর্মীদের ভাংচুরের সময় পাঁচ থেকে ছয় বাসযাত্রী আহত হন। এর মধ্যে দু’জন শিশু। এর আগে পল্টন মোড়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা নিক্ষেপ ও যানবাহন ভাংচুরে জড়িত থাকার অভিযোগে ২৫ জনকে আটক করে পুলিশ। সকাল ১০টায় পল্টন মোড়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে ৮ থেকে ১০টি ককটেল নিক্ষেপ করে হরতাল সমর্থকরা। সেই সঙ্গে তারা একটি যাত্রীবাহী বাসসহ তিনটি যানবাহন ভাংচুর করে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। এ ঘটনার পর দুপুর পর্যন্ত পল্টন ও তোপখানা এলাকায় অভিযান চালায় এবং সন্দেহভাজন ২৫ জনকে আটক করা হয়। আটকদের মধ্যে চারজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন এমদাদুল হক, মনিরুজ্জামান, তাজুল ইসলাম ও দীপক ঘোষ। বাকিদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

জয়পুরহাট ॥ জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার ক্ষেতলাল-মোলামগাড়ী সড়কের করিমপুর নামক স্থানে রবিবার বিকেলে জনকল্যাণ নামে একটি যাত্রবাহী বাসে ৬ শিবির ক্যাডার ২ মোটরসাইকেলযোগে এসে পেট্রোলবোমা ও ককটেল ছুড়লে বাসটি রাস্তার পাশে নেমে যায়। এ সময় বাসযাত্রী উজ্জ্বল কুমার মহন্ত (৩৭) মাথায় গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে জয়পুরহাট হাসপাতালে ভর্তি হলে সন্ধ্যায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। ঘটনার পর পরই এলাকার লোকজন শিবির ক্যাডারদের ধাওয়া করলে ৩ শিবির ক্যাডারকে ধরে এলাকাবাসী গণপিটুনি দিতে শুরু করে। এ সময় একটি মোটরসাইকেলযোগে পালিয়ে যাওয়া ৩ শিবিরকর্মী নিশ্চিন্তা নামক স্থানে গেলে এলাকাবাসী ধরে ফেলে। আটককৃত ৩ শিবির ক্যাডারের কাছে ৫টি পেট্রোলবোমা, একটি ককটেল পাওয়া যায়। বিক্ষুব্ধ জনতা মোটরসাইকেলটিতে আগুন ধরিয়ে দিয়ে ৩ শিবিরকর্মীকে গণপিটুনি শুরু করে। পরে পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। আহত শিবির ক্যাডাররা হচ্ছে জয়পুরহাট সদরের সগুনা গ্রামের রমজান আলীর পুত্র হাসান আলী (২৪), মাধবপাড়া গ্রামের আব্দুর রহমানের পুত্র নূর আলম (২৬), হিচমী দক্ষিণ পাড়া গ্রামের আশরাফ আলীর পুত্র আব্দুল্লা (২৬), আক্কেলপুর উপজেলার ভালুকান্দা গ্রামের রেজাউল করিমের পুত্র শাখাওয়াত হোসেন (২৭), নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলার রসুলপুর গ্রামের রেজাউল করিমের পুত্র আব্দুল খালেক (২৫), পতিœতলা উপজেলার চকছাদের গ্রামের হাবিবুর রহমানের পুত্র ছানাউর রহমান (২৮)। আহত এক শিবির ক্যাডারকে বগুড়ায় শজিমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়। অপর ৫ শিবির ক্যাডার সংজ্ঞাহীন অবস্থায় ক্ষেতলাল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পুলিশের তত্ত্বাবধানে ভর্তি রয়েছে।

ভোলা ॥ সদর উপজেলার পৌর চরজংলা এলাকায় রবিবার ভোরে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে ৩ বোন আহত হয়েছে। গুরুতর অবস্থায় তাদের ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন, জান্নাত (১২), সুফিয়া (৭) ও ফামেতা (৫)। তারা উভয়ই ওই এলাকার মোস্তফা কামালের মেয়ে।

যশোর ॥ শনিবার রাতে যশোর সার্কিট হাউস গেটসহ শহরের চার স্থানে ৫টি বোমা বিস্ফোরণ করেছে হরতালকারীরা। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে অল্প সময়ের ব্যবধানে সার্কিট হাউসের গেট লক্ষ্য করে দুটি বোমা ছুড়ে মারে দুর্বৃত্তরা। শহরের মুজিব সড়কে অবস্থিত সার্কিট হাউস এলাকায় এ সময় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পাশে অবস্থিত প্রেসক্লাবে অবস্থানরত সাংবাদিকরাও বোমা বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পান। জানতে চাইলে সার্কিট হাউসের কর্মচারী নাসির দুটি বোমা বিস্ফোরণের কথা নিশ্চিত করেন। তবে যশোরের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) আবদুল মালেক বলেন, বিষয়টি তিনি জানেন না।

চট্টগ্রাম ॥ জামায়াতে ইসলামীর চট্টগ্রাম মহানগরী শাখার ভারপ্রাপ্ত আমির প্রফেসর আহসান উল্লাহকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার গভীর রাতে হালিশহর এলাকার একটি বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে পুলিশের ওপর হামলা ও নাশকতার অভিযোগের মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল।

সিএমপির অতিরিক্ত উপকমিশনার (গোয়েন্দা) এসএম তানভীর আরাফাত সাংবাদিকদের জানান, গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হওয়ার পর থেকে গা ঢাকা দিয়েছিলেন নগর জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমির আহসান উল্লাহ। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে রাত আড়াইটার দিকে পুলিশ তাকে একটি বাসা থেকে গ্রেফতার করে। এছাড়া গ্রেফতার করা হয় ছাত্রশিবিরের স্কুলবিষয়ক সম্পাদক সফিকুল ইসলাম শোভনকে (২২)। তার বিরুদ্ধেও হালিশহর ও ডবলমুরিং থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

সিএমপির বাকলিয়া থানার ওসি মোঃ মহসিন জানান, ২০১২ সালের ৯ নবেম্বর চট্টগ্রাম নগরীর ষোলশহর ২ নম্বর গেট এলাকায় পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে দায়ের করা মামলার প্রধান আসামি ছিলেন জামায়াত নেতা আহসান উল্লাহ। গ্রেফতার এড়াতে জামায়াতের এ নেতা পালিয়ে ছিলেন। আদালতের নির্দেশে গত ১২ ফেব্রুয়ারি বাকলিয়া থানার রসুলবাগ এলাকার বাসায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ তার অস্থাবর সম্পত্তি জব্দ করে। গ্রেফতারের পর এই জামায়াত নেতার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

গাইবান্ধা ॥ নাশকতা ও সহিংসতা বিরোধী অভিযানে গাইবান্ধায় জামায়াত-শিবিরের ১৭ কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। যৌথ বাহিনী ও পুলিশ পৃথকভাবে শনিবার সন্ধ্যা থেকে রবিবার ভোর পর্যন্ত বিশেষ অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে।

বাসে পেট্রেলবোমা মেরে মানুষ হত্যা মামলাসহ বিভিন্ন নাশকতা মামলায় তাদের গ্রেফতার করা হয়। জেলা পুলিশ কন্টোল রুম সূত্রে জানা যায়, জেলার সদরসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

টাঙ্গাইল ॥ টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার ধলাপাড়া ইউনিয়নের ফুলমালীর চালা গ্রামের স্থানীয় হেলালের উদ্দিনের খড়ের গাদা থেকে রবিবার সকালে ৯ পেট্রোলবোমা ও ৩টি ককটেল উদ্ধার করেছে ঘাটাইল থানা পুলিশ।

ঘাটাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মাকসুদুল আলম ও এলাকাবাসী জানান, সকালে উপজেলার ধলাপাড়া ইউনিয়নের ফুলমালীল চালা গ্রামের করিমগঞ্জ এলাকার বাসিন্দা হেলাল উদ্দিনের বাড়ির খড়ের গাদা থেকে খড় আনতে যায় তার ভাই আবু সাইদ। এ সময় সে খড়ের গাদায় লুকানো অবস্থায় একটি কাগজের বাক্স দেখতে পায়। তিনি এলাকাবাসীকে ডেকে বাক্সটি খুললে তার ভেতরে থাকা ৯ পেট্রোলবোমা ও ৩টি ককটেল দেখতে পায়। পরে বিষয়টি ঘাটাইল থানা পুলিশকে অবহিত করলে সাগড়দিঘী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই সাইদুর রহমান ঘটনাস্থলে পৌঁছে ৯ পেট্রোলবোমা ও ৩টি ককটেল উদ্ধার করে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছিল।

জামালপুর ॥ মাদারগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি মুখলেছুর রহমানকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ। রবিবার সকালে জামালপুর পৌর শহরের পাঁচরাস্তা মোড় এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। জামালপুর ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে ডিবি পুলিশের একটি দল ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে। এদিকে মাদারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আব্দুল আওয়াল জানান, আটক ছাত্রদল নেতা মুখলেছুর রহমানের বিরুদ্ধে মাদারগঞ্জ থানায় সন্ত্রাস দমন আইনে একটি মামলা রয়েছে। সে ওই মামলার পলাতম আসামি।

প্রকাশিত : ৯ মার্চ ২০১৫

০৯/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: