কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সোনারগাঁওয়ে দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী হাসনাতকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা

প্রকাশিত : ৮ মার্চ ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ ॥ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী ও প্রতিপক্ষের লোকজন হামলা চালিয়ে প্রকাশ্যে আবুল হাসনাত (৪০) নামের এক দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসীকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যা করেছে। শনিবার বিকেলে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের রতনপুর মোহাম্মদপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সোনারগাঁও থানা পুলিশ আবুল হাসনাতকে উদ্ধারের চেষ্টা করলে বিক্ষুব্ধরা বাধা দেয়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১২ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে। ওই এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। আবুল হাসনাতের লাশ দেখতে বিভিন্ন এলাকার উৎসুক জনতা সোনারগাঁও থানায় এসে ভিড় জমায়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, গত দুই দিন আগে পিরোজপুর ইউনিয়নের জৈনপুর এলাকার আলী আজগরের ছেলে শাহপরানের সঙ্গে স্থানীয় সন্ত্রাসী আবুল হাসনাতের বাগবিত-া হয়। এ ঘটনার জের ধরে সন্ত্রাসী হাসনাত শনিবার ১১টার দিকে শাহপরানকে তুলে নিয়ে তার বাড়ির পাশে নোয়াব মিয়ার বাড়িতে আটকে রাখে। এই ঘটনার খবর ওই গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে বিকেলে গ্রামবাসী বিক্ষুব্ধ হয়ে লাঠি-সোটা হাতে হাসনাতের বাড়িতে হামলা চালায় ও বসতঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় সন্ত্রাসী হাসনাত ঘর থেকে বেরিয়ে ধারালো রামদা দিয়ে বেশ কয়েকজনকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। বিক্ষুব্ধ লোকজন হাসনাতকে ধাওয়া করে। মারিখালী নদের তীরে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে তারা।

খবর পেয়ে সোনারগাঁও থানা পুুলিশ হাসনাতকে উদ্ধারের চেষ্টা চালায়। বিক্ষুব্ধ লোকজন বাধা দেয়। পুলিশ ১২ রাউন্ড ফাকা গুলি ছুড়ে আহত হাসনাতকে উদ্ধার করে সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এ সময় সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। পরে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী আবুল হাসনাতের বিরুদ্ধে হত্যা, ছিনতাই, অপহরণ ও চাঁদাবাজিসহ সোনারগাঁও থানায় ৮-১০টি মামলা রয়েছে।

নিহত আবুল হাসনাতের স্ত্রী রাবেয়া আফরোজ জানান, প্রতিপক্ষ লোকজন তাঁর স্বামীকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে হত্যা করেছে। তাদের বাড়িতে আগুন দিয়েছে। তাদের পরিবারের ৪ জনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়েছে তারা।

সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ কামরুল ইসলাম জানান, হাসনাতের একের পর এক সন্ত্রাসী কর্মকা-ে গ্রামবাসী অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছিল। আর এসব কারণেই বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসীর হাতে হাসনাত খুন হয়েছে।

প্রকাশিত : ৮ মার্চ ২০১৫

০৮/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: