রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

নোয়াখালী ভূমি অফিস ও বাঘা টেলিফোন এক্সচেঞ্জে আগুন

প্রকাশিত : ৮ মার্চ ২০১৫

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ রাজশাহীতে এবার বিএনপি ও জামায়াত-শিবিরচক্রের নাশকতার আগুনে পুড়ল টেলিফোন এক্সচেঞ্জ। শনিবার ভোরে বাঘা উপজেলা টেলিফোন অফিসে পেট্রোল ঢেলে আগুন দেয় হরতাল-অবরোধ সমর্থকরা। অগ্নিসংযোগের কারণে বাঘায় সব টেলিফোন লাইন বিকল হয়ে গেছে। নোয়াখালীতে শুক্রবার গভীর রাতে সদর উপজেলা ভূমি অফিসে অবরোধকারীদের নাশকতায় নথি ও আসবাব পুড়েছে বলে কর্মকর্তারা জানান। বরিশালে সিমেন্টবোঝাই ট্রাকে দুর্বৃত্তদের পেট্রোলবোমা হামলায় ট্রাকচালক মিজান চৌকিদার দগ্ধ হয়েছে। তাকে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কুমিল্লা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ২৫ পেট্রোলবোমা। এদিকে নাশকতার আশঙ্কায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কমপক্ষে বিএনপি ও জামায়াত-শিবিরের কমপক্ষে ৬৫ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে চাঁদপুর থেকে ৪৪ জন, চট্টগ্রাম থেকে ১০ জন, ঠাকুরগাঁও থেকে ছয়জন, গাইবান্ধা থেকে চারজন এবং নীলফামারী থেকে একজনকে গ্রেফতার করা হয়। শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে শনিবার পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

বাঘা টেলিফোন এক্সচেঞ্জের নৈশপ্রহরী সেন্টু জানান, ভোর সাড়ে চারটার দিকে ভবনের দ্বিতীয়তলা থেকে পোড়া গন্ধ পেয়ে নিচে নামেন তিনি। নিচতলার সার্ভার কক্ষে আগুন দেখে চিৎকার দেন। তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

বাঘা থানার ওসি আমিনুর রহমান বলেন, টেলিফোন এক্সচেঞ্জের নিচতলার দক্ষিণ পাশের একটি জানালার কাচ ভাঙা রয়েছে। ওই জানালার পাশে পেট্রোল বহনের একটি বোতল পাওয়া গেছে। এতে ধারণা করা হচ্ছে, জানালার কাচ ভেঙে পেট্রোল ঢেলে আগুন দেয়া হয়েছে। নাশকতাকারীদের চিহ্নিত করতে তদন্ত শুরু হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলা করা হবে বলে জানান তিনি।

রাজশাহী বিভাগীয় টেলিফোন কর্মকর্তা আবদুল মান্নান বলেন, আগুনে এক্সচেঞ্জের ৪৮টি ব্যাটারি, বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রাংশ ও জানালা-দরজাসহ প্রয়োজনীয় আসবাব পুড়ে গেছে। এতে সকল সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

বিএনপি জোটের হরতাল-অবরোধের মধ্যে এর আগে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি এইভাবে চারঘাট টেলিফোন এক্সচেঞ্জে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। এর পর গত ২৪ ফেব্রুয়ারি চারঘাট ভূমি অফিস এবং ২৬ ফেব্রুয়ারি বাঘা ভূমি ও শিক্ষা অফিসে একইভাবে আগুন দেয়া হয়।

নোয়াখালী ॥ সদর উপজেলা ভূমি অফিসে অবরোধকারীদের নাশকতায় নথি ও আসবাব পুড়ে গেছে। শুক্রবার রাতে সেখানে পেট্রোলবোমা নিক্ষেপ করলে আগুন ধরে অফিসের কিছু নথি ও আসবাব পুড়ে যায় বলে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ জানান। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে তিনি জানান, রাত সাড়ে তিনটার দিকে মাইজদী বাজার এলাকায় সদর ভূমি অফিসের পেছনের জানালা দিয়ে পেট্রোলবোমা মারা হয়। স্থানীয়দের সহায়তায় অফিসের তিনজন প্রহরী আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার আগেই দুটি চেয়ার, দরজা-জানালার পর্দা ও কয়েকটি নথির কিছু অংশ পুড়ে গেছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ প্রহরী জয়নালকে (৩৮) আটক করেছে। তার বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ অফিসে আগুন দেয়াসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

প্রকাশিত : ৮ মার্চ ২০১৫

০৮/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: