মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রংপুরে নাশকতায় লিপ্ত জামায়াত-শিবির

প্রকাশিত : ৮ মার্চ ২০১৫
  • আন্দোলনে মাঠে নেই বিএনপি

মানিক সরকার মানিক, রংপুর ॥ লাগাতার অবরোধ আর হরতালে রংপুরে মাঠে নেই বিএনপি। গ্রেফতার আতঙ্কে তাদের অনেকেই এখন ঘর ছাড়া। চোরাগোপ্তা হামলা বোমা, ভাংচুর এ সবকিছুই করছে জামায়াত শিবির নেতাকর্মীরা। টানা অবরোধের ৬১ দিনে শনিবার পর্যন্ত রংপুর মহানগরীসহ বিভিন্ন জেলা উপজেলায় বিএনপি জামায়াত জোটের ৫৭৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় গড়ে প্রতিদিন প্রায় ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এদের মধ্যে দু’জন সাংবাদিকও রয়েছেন।

গত ৫ জানুয়ারি থেকে ৭ মার্চ পর্যন্ত ৬১ দিনে জেলার ৮ উপজেলা থেকে বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্ম পেট্রোলবোমা অগ্নিসংযোগসহ নানা অভিযোগে তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়েছে বলে পুলিশ সূত্র জানায়। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য রয়েছেন মহানগর বিএনপির সহসভাপতি সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, মহানগর জামায়াতের নায়েবি আমীর নুর হোসেন, সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন, মহানগর বিএনপির। সহ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ময়েন উদ্দিন, মিঠাপুকুর উপজেলা জামায়াতের প্রচার সম্পাদক হাফিজুর রহমান, জেলা তাঁতি দলের সভাপতি রশিদুস সুলতান বাবলু, যুবদলের জেলা সহ-সভাপতি আসাদুজ্জামান আসাদ, শিবিরের সাহিত্য সম্পাদক কামরুজ্জামান প্রমুখ।

বর্তমানে এ জোটের বহু নেতাকর্মীর নামে পেট্রোলবোমা হামলাসহ নানা নাশকতার অভিযোগে অন্তত কয়েক শ’ জনের নামে পুলিশের মামলা থাকায় তারা কেউই প্রকাশ্যে আন্দোলনে অংশ নেয়াতো দূরের কথা, রাতে নিজ বাসায় অবস্থান পর্যন্ত করছেন না। মামলাগুলোর মধ্যে রয়েছে মিঠাপুকুরে পেট্রোলবোমা হামলা, পায়রা চত্বর ও সুপার মার্কেটের সামনে গাড়ি ভাংচুর অগ্নি সংযোগ, বেতারের সামনে ট্রাকে এবং গুপ্তপাড়ায় দাঁড়িয়ে থাকা বাসে আগুন ইত্যাদি।

জানা গেছে, মিঠাপুকুরের পেট্রোলবোমা হামলার ঘটনায় দৈনিক সংগ্রামের মিঠাপুকুর উপজেলা প্রতিনিধি হাফিজুর রহমান এবং এর আগে পীরগাছায় পুলিশ হত্যা মামলায় দৈনিক নয়া দিগন্তের স্থানীয় প্রতিনিধি গোলাম আযম রয়েছেন।

নাশকতায় ক্ষুব্ধ খোদ বিএনপির নেতাকর্মীরা ॥ আ’লীগে যোগদান

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ নির্দিষ্ট কোন লক্ষ্য ছাড়াই বিএনপি জোটের অযৌক্তিক টানা হরতাল-অবরোধ ও নাশকতা কর্মকা-ে ক্ষুব্ধ হয়ে পড়েছেন খোদ বিএনপির নেতাকর্মীরাই। এরইমধ্যে বিএনপিকে নাশকতাকারী দল হিসেবে আখ্যা দিয়ে সে দল ছেড়ে জেলার গোদাগাড়ীর শতাধিক কর্মী সমর্থক আওয়ামী লীগে যোগদান করেছেন।

শুক্রবার বিকেলে জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার ফরাদপুর সবুজ সংঘ পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে এই যোগদান সভার আয়োজন করা হয়। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিনুল ইসলামের সভাপতিত্বে যোগদান সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য ও সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী ওমর ফারুক চৌধুরী। ওই সভায় ইউনিয়ন বিএনপির নেতা সাজেদুর রহমান সুজনের নেতৃত্বে শতাধিক-কর্মী সমর্থক আওয়ামী লীগের যোগদান করেছেন। সাংসদ ওমর ফারুক চৌধুরী তাদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। সুজনের বড় ভাই আসলাম উদ্দিন ওই ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি।

প্রকাশিত : ৮ মার্চ ২০১৫

০৮/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: