রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভারতের জয় অব্যাহত

প্রকাশিত : ৭ মার্চ ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বকাপে জয়রথ অব্যাহত রয়েছে ভারতের। শুক্রবার ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৪ উইকেটে হারিয়ে টানা চতুর্থ জয় তুলে নিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। ফলে দুই ম্যাচ হাতে রেখেই পুল ‘বি’ থেকে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করল মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। পার্থে বোলারদের দাপটের ম্যাচে ৪৪.২ ওভারে ১৮২ রানে অলআউট হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ভারতীয় বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের মুখে কেউই সুবিধা করতে পারেননি। নয় নম্বরে নেমে সর্বোচ্চ ৫৭ রান করেন অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। এছাড়া ড্যারেন সামির ২৬, ক্রিস গেইল ও জোনাথন কার্টারের ২১ উল্লেখ্য। ভারতের হয়ে মোহাম্মদ সামি ৩টি, উমেশ যাদব ও রবিন্দ্র জাদেজা নেন ২টি করে উইকেট।

জবাবে দলীয় ২০ রানে দ্বিতীয় ও ৭৮ রানে চতুর্থ উইকেট হারানো ভারতও স্বস্তিতে ছিল না। কোহলি ৩৩ ও ছয় নম্বরে নামা অধিনায়ক ধোনি সর্বোচ্চ অপরাজিত ৪৫, অতিরিক্ত থেকে আসা তৃতীয় সর্বোচ্চ ২৬ রানের সৌজন্যে ৩৯.১ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ভারত। ৪ উইকেটের কষ্টের জয়ে শেষ আট নিশ্চিত করে ধোনির দল! উইন্ডিজের হয়ে জেরমো টেইলর ও আন্দ্রে রাসেল নেন ২টি করে উইকেট। বিশ্বকাপে আজ রয়েছে দুটি ম্যাচ। অকল্যান্ডে ফেবারিট দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হচ্ছে কোণঠাসা অবস্থা থেকে ক্রমশ কোয়ার্টারের আশা বাঁচিয়ে রাখা পাকিস্তান। হোবার্টে ছোট ম্যাচের বড় লড়াইয়ে জিম্বাবুইয়ের প্রতিপক্ষ আয়ারল্যান্ড।

লড়াইটা হবে পাকিস্তানের বোলিং বনাম দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটিংয়ের মধ্যে। দুটি জয়েই পাকিস্তানের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন দীর্ঘদেহী পেসার মোহাম্মদ ইরফান ও ওয়াহাব রিয়াজ, সোহেল খানও চমৎকার। বিপরীতে প্রোটিয়াদের ব্যাটিং কতটা ভয়ঙ্কর? এবি ডি ভিলিয়ার্স, হাসিম আমলা, রাইলি রুশো, ডেভিড মিলার, জেপি ডুমিনি নামগুলোই তা বোঝানের জন্য যথেষ্ট! পাক অধিনায়ক মিসবাহ-উল হক অবশ্য মরিয়া। ‘সতীর্থদের প্রত্যেকে জানে এই ম্যাচে জয়ের গুরুত্ব কতটা। আগেই বলেছি, প্রথম দুটি ম্যাচে হেরে যাওয়ার পর আমাদের জন্য প্রতিটি ম্যাচই এখন নক-আউট। জয় ভিন্ন গতি নেই। শেষ জিম্বাবুইয়ে ও আরব আমিরাতের বিপক্ষে উন্নতির ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে হবে। দল হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকা খুবই শক্তিশালী আমাদের আরও ভাল খেলতে হবে।’

ব্যাটিংয়ে উন্নতির বিষয়টিকেই প্রাধান্য দেন তিনি। ‘ব্যাটিংয়ে উন্নতির অনেক জায়গা রয়েছে। বিশেষ করে টপ-অর্ডারে একাধিক ব্যাটসম্যানকে দায়িত্ব নিয়ে বড় ইনিংস খেলতে হবে। আমিরাতের বিপক্ষে ৯৫ রান করে দারুণ কিছুর ইঙ্গিত দিয়েছে ওপেনার আহমেদ শেহজাদ, এরপর হারিস সোহেলও ৭০ রান করে। এটা ইতিবাচক। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার মতো ওয়ার্ল্ডক্লাস বোলিংয়ের বিপক্ষে সেঞ্চুরি বা তার চেয়ে বড় ইনিংস খেলতে হবে। এমনিতে বল হাতে ইরফান, সোহেল ও রিয়াজকে নিয়ে আমাদের পেস আক্রমণ দারুণ। জয় ছাড়া আর কিছুই ভাবছি না।’

প্রকাশিত : ৭ মার্চ ২০১৫

০৭/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: