আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পেট্রোলবোমায় দগ্ধ আরও দুইজনের প্রাণ গেল

প্রকাশিত : ৬ মার্চ ২০১৫

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ হরতাল অবরোধ আহ্বানকারীদের নিক্ষিপ্ত পেট্রোলবোমায় বুধবার রাতে দগ্ধ ট্রাকচালক সেলিম অবশেষে বৃহস্পতিবার বিকেলে রামেক হাসপাতালে মারা গেছেন। চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে পেট্রোলবোমায় দগ্ধ দিনমজুরও বৃহস্পতিবার রাতে প্রাণ হারালেন। বৃহস্পতিবার পৃথক ঘটনায় কিশোরগঞ্জে যাত্রীবাহী বাসে পেট্রোলবোমা হামলায় ১০ জন অগ্নিদগ্ধসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে গুরুতর দগ্ধ সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ টুকেরগড় গ্রামের আব্দুল বারিকের স্ত্রী জাহেদা খাতুন (৪০) ও নেত্রকোনার মদনের কদমজিরি

গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে আব্দুল মালেককে (৩৬) আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাতেই ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে আনা হয়েছে। এছাড়া মানিকগঞ্জ, নওগাঁ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, লালমনিরহাট ও যশোরে ট্রাকে পেট্রোলবোমা হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। মানিকগঞ্জ ও চাঁপাইয়ে ট্রাকের চালক ও হেলপারসহ ছয়জন দগ্ধ হয়। টাঙ্গাইলে বরযাত্রীবাহী একটি বাস পেট্রোল ঢেলে পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির অফিস, ব্যাংক, মার্কেট ও একটি গাড়িতে পেট্রোলবোমা হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এছাড়া সরকারী ভবনের সামনে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক ছড়ায় হরতাল-অবরোধ সমর্থকরা। নাশকতা ও সহিংসতাবিরোধী অভিযানে বিএনপি-জামায়াতের কমপক্ষে ৫৬ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বুধবার রাত ও বৃহস্পতিবার এসব নাশকতা ও গ্রেফতারের ঘটনা ঘটে। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে জামায়াত-শিবিরের ছোড়া পেট্রোলবোমায় দগ্ধ হয়ে দিনভর মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে অবশেষে হেরে গেলেন ট্রাকচালক সেলিম (৪০)। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে রামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে সেলিম মারা যান। চাচা ইসমাইল হোসেন তাঁর মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার গভীর রাতে অবরোধকারীদের পেট্রোলবোমায় দগ্ধ হয়েছিলেন ট্রাকচালক সেলিম। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জ শিবগঞ্জের জালমাছমারি এলাকার আলাউদ্দিনের ছেলে। একই ঘটনায় দগ্ধ আরও দুইজন এখনও মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন।

রামেক হাসপাতাল বার্ন ইউনিটের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ট্রাকচালক সেলিমের শরীরের ৫০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল। অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় ট্রাকচালক সেলিমকে আইসিইউতে রাখা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার বিকেলে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেলিম মারা যান।

অন্যদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার চৌডালার কাছে কাভার্ডভ্যানে ককটেল নিক্ষেপ করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টায় এ ঘটনা ঘটে। এতে কাভার্ড ভ্যানে আগুন ধরে গেলেও কেউ হতাহত হয়নি।

চট্টগ্রাম হাসপাতালে দিনমজুরের মৃত্যু ॥ চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে পেট্রোল বোমার আগুনে দগ্ধ দিনমজুর রনজিৎ নাথ বৃহস্পতিবার রাতে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছে।

রাজশাহীতে রেস্তরাঁয় আগুন, দগ্ধ ৩॥ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেডিয়াম সংলগ্ন একটি রেস্তরাঁয় অগ্নিকা-ে রেস্তরাঁর তিন কর্মচারী দগ্ধ হয়েছেন। দগ্ধরা হলেন জায়েদা, ময়না ও অহিদ। তাদের রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে আগুন লাগে পরে ফায়ার সার্ভিসের দুইটি ইউনিট আধা ঘণ্টার চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে আনে বলে জানান রেস্তরাঁ মালিক আনোয়ার হোসেন। তিনি জানান, রেস্তরাঁয় রান্না চলাকালে কেরোসিনের চুলা বিস্ফোরিত হলে এ ঘটনা ঘটে। এতে রান্না ঘরটি সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে গেছে।

নিউমার্কেট ও ঢাবি ক্যাম্পাসে ককটেল হামলা ॥ রাজধানীর নিউমার্কেট ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় হরতাল-অবরোধকারীদের ককটেল হামলায় এক ছাত্রলীগ নেতাসহ তিনজন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে নিউমার্কেটের বলাকা সিনেমা হলের সম্মুখ ও ঢাবির এফ রহমান হলের সম্মুখের সড়কে এ হামলা চালানো হয়।

বলাকা সিনেমা হলের সম্মুখে ওই হামলায় আহত দু’জন হলেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহসম্পাদক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের এমবিএ উত্তীর্ণ শিক্ষার্থী পলয় ঘোষ (২৫) এবং ফুটপাথের প্রসাধনী বিক্রেতা সিরাজুল ইসলাম (৩০)। আর এফ রহমান হলের সম্মুখের সড়কে আহত ব্যক্তি হলেন একটি বেসরকারী ব্যাংকের চকবাজার শাখার কর্মকর্তা হযরত আলী (৩০)। আহত এ তিনজনকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশের টহল গাড়িতে ককটেল নিক্ষেপ ॥ অন্যদিকে এদিন রাত সোয়া ৮টার দিকে শাহবাগ মোড়ে পুলিশের একটি টহল গাড়ি লক্ষ্য করে ককটেল নিক্ষেপ করেছে হরতাল ও অবরোধ সমর্থকরা। তবে এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি। ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) মোহাম্মদ ইবরাহীম খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ককটেল বিস্ফোরণে ট্রাফিক সার্জেন্ট আহত॥ রাজধানীর সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড়ে হরতাল ও অবরোধকারীদের ককটেল বিস্ফোরণে পুলিশের এক সার্জেন্ট আহত হয়েছেন। তার নাম মাসুদ। তিনি ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ট্রাফিক বিভাগে কর্মরত। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে কর্তব্য পালন করছিলেন সার্জেন্ট মাসুদ। এতে সার্জেন্ট মাসুদের চোখের পাশে স্পিøন্টার বিদ্ধ হয়। তবে কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

১২ পেট্রোলবোমা উদ্ধার ॥ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে যাত্রাবাড়ী থানার মীর হাজিরবাগ এলাকা থেকে ১২টি পেট্রোলবোমা উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১০। এই সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মীর হাজিরবাগের ৪৮১/৮ নম্বর বাড়ির পাশের রাস্তার কোণ থেকে এই পেট্রোলবোমাগুলো উদ্ধার করে র‌্যাব-১০ এর এই দলটি। র‌্যাব-১০ এর স্কোয়াড কমান্ডার এএসপি মোঃ সোনাহর আলী জানান, পেট্রোলবোমাগুলো পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি। তিনি জানান, দুর্বৃত্তদের রেখে যাওয়া এই বোমাগুলো নাশকতা চালানোর উদ্দেশ্যে রাখা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

প্রকাশিত : ৬ মার্চ ২০১৫

০৬/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: