কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

হরতাল অবরোধ মানছে না বরেন্দ্র অঞ্চলের মানুষ

প্রকাশিত : ৬ মার্চ ২০১৫
  • যানবাহনে প্রচণ্ড ভিড়

স্টাফ রিপোর্টার, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ॥ চাঁপাইনবাবগঞ্জসহ বরেন্দ্র অঞ্চলের মানুষ আমলে নিচ্ছে না অবরোধ-হরতালকে। তাই সড়ক পথে যানবাহনে দেখা যাচ্ছে প্রচ- ভিড়। এ বাঁধভাঙ্গা জোয়ার লক্ষ্য করা যাচ্ছে। বৃহত্তর রাজশাহীর পুরো বরেন্দ্র অঞ্চলের একাধিক পাকা সড়ক চলে গেছে রাজশাহী, নওগাঁ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে। রাস্তার সংযোগ রয়েছে প্রতিটি পাকা সড়কের সঙ্গে। তাই দেখা যাচ্ছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-নাচোল-রহনপুর, ভোলাহাট, কাঁকন, ম-মালা, নিয়ামতপুর, বাড্ডা, পোড়শা, বাদলগাছি, নওগাঁ দিয়ে শান্তাহার ও বগুড়া পথে উপচে পড়া ভীড় যাত্রীদের। মার্চের প্রথম সপ্তাহে ডাকা তথাকথিত অবরোধ আর হরতালকে এ অঞ্চলের মানুষ কোন ধরনের আমলে না নিয়ে বেরিয়ে পড়েছে রাস্তায়। গাড়িতে বসে গন্তব্যে না পৌঁছা পর্যন্ত নানা ধরনের কটূক্তি ২০ দলের প্রতি ছুড়ে দিয়ে বক্তব্য রাখছেন অনেক যাত্রী। যাত্রীরা এতটাই মারমুখী যে কেউ নাশকতা করতে এলেই প্রতিরোধ করবে। সঙ্গে সঙ্গে যানবাহনের ড্রাইভার ও হেলপারদের সাহস যোগাচ্ছে নানাভাবে। ইতোমধ্যে নাচোল এলাকায় যানবাহনের একাধিক ড্রাইভার হেলপার নাশকতাকারীদের পাকড়াও করায় পুরস্কৃত হয়েছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী ৫০ কিলোমিটার পথের গেটলক ও মহানন্দা পরিবহন প্রায় দেড় মাসের বন্ধ রাখার পর আবার এ রুটে গেটলক ও মহানন্দা চলাচল করায় যাত্রীরা হুমড়ি খেয়ে পড়েছে। পাশাপাশি জেলার প্রধান পরিবহন পথ চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী রুটে বড় ছোট ও দ্রুতগামী যানবাহন রাস্তায় নেমে আসার ফলে মারাত্মক যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। বিশেষ করে সোনামসজিদ স্থলবন্দর থেকে ছেড়ে আসা ট্রাকের বহর (একই সঙ্গে সাড়ে তিন শত) শাহনেয়ামতুল্লা (রা.) কলেজ মোড় ছেড়ে রাজশাহী গামী সড়কে যাত্রা শুরু করলে বেড়ে যাই যানজট। ৩০ থেকে ৪৫ মিনিট যানজটে দাঁড়িয়ে থাকার পর আবার যাত্রা শুরু করে। যৌথবাহিনীর কঠোর অবস্থানের কারণে ইতোমধ্যেই পুরো এলাকা ছেড়ে নাশকতাকারীরা আত্মগোপন করেছে। ফলে আতঙ্কের এ জনপদে ভয়কে জয় করে বর্তমানে সর্বত্র স্বাভাবিক জীবনযাত্রা শুরু হয়েছে। এমনকি সাম্প্রতিক কালের চাঁপাইনবাবগঞ্জ সড়ক পরিবহন শ্রমিকদের সম্পন্ন হওয়া ভোটে পুরো প্যানেলের সংখ্যা গরিষ্ঠ নির্বাচিতরা জামায়াতপন্থী হওয়ার পরেও রাস্তায় ট্রাক, বাস, মিনিবাস চালানোর ব্যাপারে কোন ধরনের প্রতিরোধ করতে সাহস পাচ্ছে না। কারণ সাধারণ শ্রমিকদের অবস্থান হরতাল-অবরোধবিরোধী। তাই তারা প্রচ- সাহস সঞ্চয়ের মাধ্যমে পরিবহনের স্টেয়ারিং ধরে গাড়ির চাকা সচল রেখেছেন। একইভাবে দূরপাল্লার বাসও চলাচল করছে। সরেজমিনে দেখা গেছে প্রতিটি স্ট্যান্ডে বিপুলসংখ্যক মানুষের আনাগোনা।

পাশাপাশি দেশের অন্যতম আতঙ্কের জনপদ চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ স্থলবন্দর ৩৫ কিলোমিটার পথের দুই ধারের (শিবগঞ্জ উপজেলা ও কানসাট) জনপদে এখন আতঙ্ক বিরাজ করছে। যদিও যৌথবাহিনীর কড়া অভিযান ও ২০টি বাড়ি তল্লাশিতে সন্ত্রাসীরা এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে তার পরেও এ অবস্থা বিরাজ করছে। তবে সত্বর এ পথে মিনিবাস চলাচল শুরু হবে বলে যানবাহন মালিক সমিতির সভাপতি লুৎফর রহমান জানিয়েছেন।

প্রকাশিত : ৬ মার্চ ২০১৫

০৬/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: