কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্রের কট্টর সামালোচক জাকির নায়েকের সৌদি সম্মাননা

প্রকাশিত : ৫ মার্চ ২০১৫

যুক্তরাষ্ট্রের কট্টর সমালোচক ডা. জাকির নায়েক প্রকাশ্যে ঘোষণা করেছেন যে, ‘ইহুদীরা’ আমেরিকাকে নিয়ন্ত্রণ করে, স্বধর্মত্যাগীদের হত্যা করা যেতে পারে, যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের ‘বৃহত্তম সন্ত্রাসবাদী’ এবং ১১ সেপ্টেম্বরের হামলা প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশের ‘ভেতরের লোকদের কারসাজি’। গত সপ্তাহে ভারতের এই প্রখ্যাত টেলি ধর্মপ্রচারক ডা. জাকির নায়েক সৌদি আরবের একটি বিলাসবহুল হোটেলে এক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে হাজির হন। সেখানে তাঁকে নতুন বাদশাহ সালমান দেশের অন্যতম সর্বোচ্চ সম্মানে ভূষিত করেন। ‘ইসলামের প্রতি সেবা’র জন্য এই পুরস্কার আমেরিকার মিত্র দেশ হিসেবে সৌদি আরবের পরস্পরবিরোধী অবস্থানকেই তুলে ধরে। যে দেশ পাশ্চাত্যের প্রতি বিদ্বেষপোষণকারী ইসলামপন্থীদের অব্যাহতভাবে সমর্থন দিয়ে যায়। ইরাক ও সিরিয়ায় আইএস চরমপন্থী গোষ্ঠীর সৌদি রাষ্ট্রের প্রচারিত মৌলবাদী ইসলামের কোন কোন দিক সম্পর্কে যারা অভিন্ন মত পোষণ করে- তাদের উত্থানের পাশাপাশি মুসলিম বিশ্বের চিন্তাধারাকে রূপায়িত করতে সৌদি আরবের ভূমিকাও বেশি করে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সৌদি কর্মকর্তারা ইসলামিক স্টেটের সঙ্গে কোনরকম তুলনাকে প্রত্যাখ্যান করে বলেছেন, আইএস তাদের লক্ষ্যবস্তুর মধ্যে আছে এবং তারা গোষ্ঠীর ওপর বোমা হামলাকারী য্ক্তুরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন জোটে যোগদান করেছে। তবে যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি রাজ পরিবারের দীর্ঘস্থায়ী সম্পর্ক সত্ত্বেও ধর্মীয় প্রচারণা নিয়ে দুই দেশের মতপার্থক্য ডা. নায়েকের প্রকাশ্য সংবর্ধনার মধ্যে পরিষ্কার হয়ে যায়। সোমবার সৌদি আরবে ফোনে যোগাযোগ করা হলে ডা. নায়েক বলেন, পুরস্কারপ্রাপ্ত ‘মুসলিম বিশ্বের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের’ সারিতে যোগ দিতে পেরে তিনি গর্বিত। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের কঠোর সমালোচকের ভূমিকা অব্যাহত রেখেছেন। ডা. নায়েক প্রশ্ন করেন, ‘আমি হত্যাকারী মুসলিমদের সম্পূর্ণ বিরুদ্ধে, কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র কি করেছে? খবর ইন্টারন্যাশনাল নিউইয়র্ক টাইমসের।

প্রকাশিত : ৫ মার্চ ২০১৫

০৫/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: