কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বিশ্বকাপে রানের রেকর্ড অস্ট্রেলিয়ার

প্রকাশিত : ৫ মার্চ ২০১৫

মিথুন আশরাফ ॥ এক ম্যাচে কত রেকর্ড হতে পারে তা যেন দেখিয়ে দিল অস্ট্রেলিয়া। একের পর এক রেকর্ড গড়ে নিল। বুধবার আফগানিস্তানকে যেমন ২৭৫ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে দিল। বিশ্বকাপে সবচেয়ে বড় জয় পেয়ে গেল অস্ট্রেলিয়া। শুধু কি তাই, দুর্বল আফগানিস্তানকে পেয়ে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানরাও ফর্মে ফেরার উপলক্ষই যেন পেয়ে গেলেন।

ডেভিড ওয়ার্নার একাই করলেন ১৭৮ রান। স্টিভেন স্মিথকে (৯৫) সঙ্গে নিয়ে ওয়ার্নার দ্বিতীয় উইকেটে গড়লেন আবার রেকর্ড ২৬০ রানের জুটি। ম্যাক্সওয়েলও সুযোগ পেয়ে ৮৮ রানের ইনিংস খেললেন। তিন ব্যাটসম্যানের তা-বে অস্ট্রেলিয়া আবার বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ৪১৭ রান করে ফেলল। ৬ উইকেট হারিয়ে ৫০ ওভারে এ রান করল অস্ট্রেলিয়া। পার্থে টসে জিতেও অস্ট্রেলিয়াকে আগে ব্যাট করার সুযোগটি দিয়েই যেন ভুল করে ফেলল আফগানিস্তান। খেসারতও দিতে হলো। বড় ব্যবধানেই হারও হলো। মিচেল জনসনের (৪/২২) গতির সামনে পড়ে শেষপর্যন্ত ৩৭.৩ ওভারে ১৪২ রানেই গুটিয়ে গেল আফগানিস্তান। সর্বোচ্চ ৩৩ রান করতে পারলেন নওরোজ মঙ্গল।

বিশ্বকাপে এর আগে সর্বোচ্চ জয়টি ছিল ভারতের। বারমুডার বিপক্ষে ২০০৭ সালে ২৫৭ রানের জয় পেয়েছিল। একই ব্যবধানে চলতি বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেও জয় পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। এবার ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকাকেও ছাড়িয়ে গিয়ে অস্ট্রেলিয়া বড় জয়টি তুলে নিল।

বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়েছে অস্ট্রেলিয়া। আফগানিস্তানের বিপক্ষে যে ৪১৭ রান করেছে সেটি বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। এর আগে ২০০৭ সালে বারমুডার বিপক্ষে ভারতের করা ৫ উইকেটে ৪১৩ রানের রেকর্ডটিই ছিল মঙ্গলবার পর্যন্ত বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ দলীয় রানের রেকর্ড।

বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত চারবার ৪০০ রানের বেশি করা হয়েছে। প্রথমটি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে গেল। দ্বিতীয়টি ভারতের। পরের দুই অবস্থানে আছে দক্ষিণ আফ্রিকা। এই বিশ্বকাপেই এ তা-ব ঘটিয়েছে প্রোটিয়ারা। ৩ মার্চ ক্যানবেরায় আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে চার উইকেটে ৪১১ রান ও ২৭ ফেব্রুয়ারি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে পাঁচ উইকেটে ৪০৮ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা।

বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ইতিহাসে মোট চারবার চার শ’ রান অতিক্রম করার ঘটনা ঘটল। এর মধ্যে তিনবারই চলমান বিশ্বকাপে। এখনও বিশ্বকাপের অনেক ম্যাচ বাকি। আরও নতুন রেকর্ড কি অপেক্ষা করছে না? সময়ই বলে দেবে তা।

বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ব্যক্তিগত ইনিংসটি এখন ডেভিড ওয়ার্নারের দখলে চলে গেছে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে অনবদ্য ১৭৮ রানের ইনিংস খেলেন। ম্যাথু হেইডেন (১৫৮), গিলক্রিস্ট (১৪৯), এ্যান্ড্রু সায়মন্ডস (১৪৩*) ও রিকি পন্টিংকে (১৪০*) পেছনে ফেলে দেন। ১৩৩ বলে ১৯ চার ও ৫ ছক্কায় এ ইনিংস খেলেন ওয়ার্নার।

আবার ১৪ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর দ্বিতীয় উইকেটে স্টিভেন স্মিথকে নিয়ে ২৬০ রানের রেকর্ড জুটি গড়েন ওয়ার্নার। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট ইতিহাসে যে কোন উইকেটে এটিই সর্বোচ্চ রানের জুটি। এর আগে ২০০৯ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে রিকি পন্টিং-শেন ওয়াটসন মিলে ২৫২ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েছিলেন।

এমন জয়ে এখন পয়েন্ট তালিকায় তৃতীয় স্থানে উঠে গেছে অস্ট্রেলিয়া। বড় দলগুলো যে ধীরে ধীরে কোয়ার্টার ফাইনালের পথে শেষপর্যন্ত এগিয়ে যাচ্ছে, তা বোঝাই যাচ্ছে। স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়াও তাই। এমন জয়ের পর কি আর খুশি না থেকে উপায় আছে? অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক তাই ভীষণ খুশি। ম্যাচ শেষে বলেছেন, ‘অনেক ভাল জয় মিলেছে। ডেভিড ওয়ার্নার অসাধারণ, স্টিভেন স্মিথ সুন্দর ব্যাটিং করেছে, আর গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ফ্যান্টাস্টিক। আমি ব্যাট করতে না পেরে ম্যাক্সওয়েলকে নামিয়ে দিয়েছি। চিন্তা করেছি ভাল সুযোগ আছে বড় স্কোর করার। কাজে লেগেছে।’ ম্যাচসেরা ওয়ার্নার তো নিজের ব্যাটিংকে সামনে তুলে ধরতেই রাজি নন। বলেছেন, ‘সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জয় পাওয়া। যা পেয়েছি।’ বিশ্বকাপেই শুধু নয়, নিজেদের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় জয়ও পেয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়া।

প্রকাশিত : ৫ মার্চ ২০১৫

০৫/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: