মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

শেষ আটের হাতছানি

প্রকাশিত : ৪ মার্চ ২০১৫
  • টাইগারদের স্বপ্ন পূরণের দুই ম্যাচ
  • জাহিদুল আলম জয়

‘সৌভাগ্যের পরশ’ পেয়ে স্বর্ণসাফল্য হাতছানি দিয়ে ডাকছে বাংলাদেশকে! পরিস্থিতি এখন এমন, অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে চলমান বিশ্বকাপে নিজেদের বাকি তিন ম্যাচের মধ্যে শুধু ইংল্যান্ডকে হারালেও কোয়ার্টার ফাইনালে নোঙ্গর ফেলতে পারে মাশরাফি বিন মর্তুজার দল।

সাবেক চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হওয়া ম্যাচে এক পয়েন্ট পাওয়ায় লাভবান হয়েছে বাংলাদেশ। আবেগ বাদ দিলে বলতে হবে ‘সৌভাগ্যের ছোঁয়া’ পেয়েছে টাইগাররা। অসিদের বিরুদ্ধে পয়েন্ট পাওয়ার কারণেই মাশরাফি, মুশফিক, সাকিবদের শেষ আটে খেলার স্বপ্ন জোরালো হয়েছে। শ্রীলঙ্কার কাছে ৯২ রানের বড় ব্যবধানে হারের পর সম্ভাবনা নিয়ে ধোঁয়াশা সৃষ্টি হলেও, লঙ্কানদের কাছে ইংল্যান্ড ৯ উইকেটে আত্মসমর্পণ করায় আবারও বাংলাদেশের উজ্জ্বল সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

হিসাব-নিকাশ আর সমীকরণে দৃষ্টি দিলে বাংলাদেশ সহজেই কোয়ার্টার ফাইনালে যেতে পারে। বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের হাতেই এখন সাফল্যের চাবিকাঠি। এক্ষেত্রে বাকি তিনটি ম্যাচেই যা করার করতে হবে মাশরাফি বাহিনীকে। পুল ‘এ’র বর্তমান অবস্থান জানান দিচ্ছে, শেষ তিন ম্যাচের দু’টিতে জয় পেলে কোন জটিলতা ছাড়াই নকআউট পর্বে উঠে যাবে বাংলাদেশ। লঙ্কানদের কাছে এবারের বিশ্বকাপে প্রথম হারের স্বাদ পেয়েছে লাল-সবুজের দেশ। কিন্তু এই হারেও বাংলাদেশের নকআউট পর্বে খেলার সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায়নি। বরং এখনও দারুণ সম্ভাবনা আছে লক্ষ্য পূরণের।

নিজেদের পুল থেকে সাত দলের মধ্যে চার দল শেষ আটের টিকেট পাবে। বাংলাদেশ ইতোমধ্যে তিনটি ম্যাচ খেলেছে। আরও বাকি আছে তিন ম্যাচ। আগামী ৫ মার্চ স্কটল্যান্ড, ৯ মার্চ ইংল্যান্ড ও ১৩ মার্চ নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলবেন মাশরাফি, তামিম, সাকিবরা। এই তিন ম্যাচের মধ্যে যদি দু’টিতে জয় পায় তাহলে কোন সমীকরণ ছাড়াই পরের পর্বে পাড়ি জমাবে বাংলাদেশ। বর্তমানে পুল ‘এ’ তে চার ম্যাচের সবকটিই জিতে ৮ পয়েন্ট নিয়ে সবার শীর্ষে থেকে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে নিউজিল্যান্ড। চার ম্যাচে তিন জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয় স্থানে থেকে শেষ আটে এক পা দিয়ে রেখেছে। তিন ম্যাচে ৩ পয়েন্ট করে নিয়ে রানরেটে বাংলাদেশে তৃতীয় ও অস্ট্রেলিয়া চতুর্থ স্থানে। এর পরের অবস্থান আফগানিস্তান, ইংল্যান্ড ও স্কটল্যান্ডের। এই পুলের সাত দলের মধ্যে স্কটল্যান্ড ও আফগানিস্তানের বাদ পড়া প্রায় নিশ্চিত।

বাকি পাঁচ দলের মধ্যে একটি দলকে বিদায় নিতে হবে। এই পাঁচ দলের মধ্যে নিউজিল্যান্ড ইতোমধ্যে নিশ্চিত করেছে নকআউট পর্ব। শ্রীলঙ্কারও প্রায় নিশ্চিত। বাকি তিনটি ম্যাচের মধ্যে দু’টি সহজ প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড ও আফগানিস্তান থাকায় অস্ট্রেলিয়ারও কোয়ার্টার প্রায় নিশ্চিত বলা যায়। পাঁচ দলের মধ্যে বাদ থাকল বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড। এই দু’দলের মধ্যে যে কোন এক দলকে রিক্ত হস্তে বিদায় নিতে হবে। শ্রীলঙ্কার কাছে হারের পর খাদের কিনারায় পড়ে গেছে ইংলিশরা। যে কারণে চার ম্যাচে ইংল্যান্ডের পয়েন্ট মাত্র ২। নকআউট পর্বে যেতে হলে ইংল্যান্ডকে পরের দু’টি ম্যাচে জয় ছাড়াও চেয়ে থাকতে হবে বাংলাদেশের ম্যাচগুলোর দিকে। বাংলাদেশ পরের ম্যাচে প্রত্যাশিতভাবে স্কটল্যান্ডকে হারাতে পারলে পয়েন্ট হবে ৫। এক্ষেত্রে ৯ মার্চ ইংল্যান্ডকে হারাতে পারলেই কোয়ার্টার ফাইনালের টিকেট পাবে বাংলাদেশ।

তিন ম্যাচের মধ্যে মাত্র একটিতে জিতেও শেষ আটে যেতে পারে বাংলাদেশ। কিভাবে? আসুন দেখা যাক। ইংল্যান্ডের বাকি আছে আর মাত্র দুই ম্যাচ। পয়েন্ট ভা-ারে ২। আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচে ইংলিশরা জিতলে তাদের পয়েন্ট হবে ৪। কিন্তু বাংলাদেশের কাছে হারলে তাদের আগের পয়েন্টই থাকবে। আর বাংলাদেশের পয়েন্ট হবে ৫। এক্ষেত্রে স্কটল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ম্যাচের হিসাব বাদ দেয়া হয়েছে। স্কটিশ ও কিউইদের কাছে হারলেও ইংল্যান্ডকে হারাতে পারলে কোয়ার্টারে পৌঁছে যাবে বাংলাদেশ। পুলের আরেক দল আফগানিস্তান তাদের বাকি সব ম্যাচেই হারবে (!) এমন বিবেচনা করা হয়েছে। আর স্কটিশদের বাদ পড়া তো একপ্রকার নিশ্চিত।

অর্থাৎ সহজ সমীকরণ এখন বাংলাদেশের সামনে। চার ম্যাচের মধ্যে বড় তিন দলের কাছেই হার মানা ইংল্যান্ডকে কাবু করতে পারলেই লক্ষ্যপূরণ হবে মাশরাফিবাহিনীর। স্কটিশদের বিরুদ্ধে ম্যাচটির চেয়েও তাই টাইগারদের ভাবনায় ইংলিশরা। শ্রীলঙ্কার কাছে ইংল্যান্ডের হারই এমন হিসেব দাঁড় করিয়েছে। অ্যাডিলেডে ৯ মার্চ বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড ম্যাচ হবে। গ্রুপের অবস্থান জানান দিচ্ছে, এ ম্যাচে বাংলাদেশ জিতলে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে যাবে। আর ইংল্যান্ড জিতলেও অপেক্ষা করতে হবে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের শেষ ম্যাচের ফলাফলের জন্য। বাংলাদেশকে যদি ইংল্যান্ড হারিয়ে দেয় আর ১৩ মার্চ কিউইদের কাছে মাশরাফি, সাকিবরা হার মানেন তাহলেই কেবল ইংলিশরা সেরা আটে নাম লেখাবে। স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে জয়ের পর ইংল্যান্ডের কাছে হারলেও বাংলাদেশের সম্ভাবনা থাকবে। সেক্ষেত্রে শক্তিশালী নিউজিল্যান্ডকে হারাতে হবে নিজেদের শেষ গ্রুপ ম্যাচে।

চলমান বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের অবনতিই চোখে পড়ছে। অনেকেই আবার ধারণা করছেন, আবার না আফগানিস্তানের কাছেই হেরে যায় ইংল্যান্ড! তাহলে তো কথাই নেই। তখন শুধু স্কটল্যান্ডকে হারালেই বাংলাদেশের স্বপ্ন সফল হয়ে যাবে। ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড ম্যাচ নিয়ে ভাবতেই হবে না। অবশ্য শেষ আটের টিকেট পেতে কোন সংশয়ই থাকবে না যদি বাকি তিন ম্যাচের মধ্যে দু’টিতে জয় পায় বাংলাদেশ। এখন দেখার বিষয়, মাশরাফিবাহিনী দেশবাসীর প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেন কিনা।

প্রকাশিত : ৪ মার্চ ২০১৫

০৪/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: