আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

অসিদের ভয় পাচ্ছে না আফগানরা!

প্রকাশিত : ৪ মার্চ ২০১৫
  • স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার প্রতিপক্ষ আজ আফগানিস্তান

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গ্রুপে মোট ৬ ম্যাচের অর্ধেক শেষে- ১ জয়, ১ হার ও ১ পরিত্যক্ত মিলিয়ে চতুর্থ স্থানে থাকা স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার পয়েন্ট ৩। বাংলাদেশেরও তাই, তবে রান রেটে এগিয়ে পুল ‘এ’-এর তৃতীয় স্থানে টাইগাররা। ১ জয় ও ২ হারে ২ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে আফগানিস্তান। সর্বাধিক ৪ ও ৩ জয়ে ইতোমধ্যে শেষ আট নিশ্চিত করেছে নিউজিল্যন্ড আর শ্রীলঙ্কা। বৃষ্টির জন্য বাংলাদেশের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হয় অসিদের। প্রকৃতির ওপর হাত নেই। কিন্তু সহ-আয়োজক নিউজিল্যান্ডের কাছে ১ উইকেটের হারে কার্যত ‘টেনশনে’ মাইকেল ক্লার্কের দল। এই টেনশনটাই কাজে লাগাতে চাইছে আফগানরা, স্কটল্যান্ডকে হারিয়ে উজ্জীবিত তারা!

কোথায় অস্ট্রেলিয়া আর কোথায় আফগানিস্তান। মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ অথচ পিটার এ্যান্ডারসনের বক্তব্যে ঝাঁজ। ‘অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর ফিফটি-ফিফটি সম্ভবনা রয়েছে আমাদের। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পুরো ওভার ব্যাট করতে পারেনি তারা। আমাদের লক্ষ্য পরিষ্কার, পঞ্চাশ ওভার ব্যাটিং করা। বল হাতে শাপুর জাদরান-হামিদ হাসানদের সামর্থ্য প্রমাণিত। সুতরাং আপনি জানেন না, কী ম্যাচ অপেক্ষা করছে!’ বলেন আফগান সহকারী কোচ। আফগানিস্তানের পর বাংলাদেশ ও স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে খেলবে সর্বাধিক চারবারের চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। সুতরাং কাগজ-কলমের হিসাবে কোয়ার্টারে যেতে তাদের সমস্যা হওয়ার কথা নয়। কিন্তু বাংলাদেশের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি ও নিউজিল্যান্ডের কাছে হার, ফের এমন আরও একটি ঘটনা ঘটলে ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখে পড়বে স্বাগতিকরা।

অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্কের কণ্ঠে তাই সতর্কবার্তা। আফগানদের সমীহ করে তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপে ছোট ম্যাচ, বড় ম্যাচ বলে কিছু নেই। আমরা তাদের এক একজন খেলোয়াড় নিয়ে গবেষণা করেছি, বের করেছি ঠিক কোন্ জায়গা দিয়ে আক্রমণ করতে হবে। তবে তারা ভাল দল। বিশ্বকাপেই আমি আফগানাদের খেলা দেখেছি।’ বাংলাদেশের কাছে ১০৫ রান ও শ্রীলঙ্কার কাছে ৪ উইকেটের প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হারের ধাক্কা আফগানিস্তান কাটিয়ে ওঠে শেষ ম্যাচে। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ১ উইকেটের নাটকীয় জয় পায় তারা। ওই ম্যাচে সামিউল্লাহ শেনওয়ারি, জাভেদ আহমেদ চমৎকার ব্যাটিং করেন। দলটিতে একাধিক বিশ্বমানের পারফর্মার আছেন বলে মনে করেন ক্লার্ক।

অসি সেনাপতি আরও যোগ করেন, ‘আফগানিস্তানে আসলেই কয়েকজন বিশ্বমানের ক্রিকেটার আছেন, যাঁরা দলের প্রয়োজনে ঠিকই দাঁড়িয়ে যাচ্ছেন এবং ভাল পারফর্ম করছেন।’ কিউইদের কাছে আগের ম্যাচের হার তেমন কোন প্রভাব ফেলবে না উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘সেটা এখন অতীত। অকল্যান্ডের উইকেট সেদিন ভুতুড়ে আচরণ করেছিল। আশা করছি এবার তেমন কিছু হবে না। পার্থের উইকেট হবে স্পোর্টিং। আমরা এখানে কয়েকটা সেশন ভাল অনুশীলন করেছি।’ চোট থেকে পুরোপুরি সেরে উঠতে আগের ম্যাচগুলোতে ছিলেন না। নিয়মিত অধিনায়ক খেলেন নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। ওই ম্যাচেই হার দেখতে হয় তাকে। শারীরিকভাবে এখন পুরোপুরি ফিট বলেও জানিয়েছেন তিনি।

যতই স্কটিশদের হারিয়ে উজ্জীবিত হোন আজ কঠিন পরীক্ষার মুখেই পড়তে হবে মোহাম্মদ নবিদের। পার্থের দ্রুতগতির বাউন্সি উইকেটে মিচেল জনসন-মিচেল স্টার্কদের সামলাতে হবে তাদের। অকল্যান্ডে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাত্র দেড় শ’ রানের পুঁজি নিয়েও যারা ম্যাচটি প্রায় জিতিয়ে দিচ্ছিলেন। অবিশ্বাস্য বোলিং করে ২৮ রানে ৬ উইকেট তুলে নিয়েছিলেন স্টার্ক! বিশ্বকাপে দুই ম্যাচে তার শিকার সংখ্যা ৮। ব্যাট হাতে গতি প্রকৃতি বদলে দিতে আছেন স্টিভেন স্মিথ, এ্যারন ফিঞ্চ, ডেভিড ওয়ার্নার, গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের মতো একাধিক ভয়ঙ্কর পারফর্মার। সঙ্গে ক্লার্কের বুদ্ধিদীপ্ত নৈপুণ্য।

ওয়াকার দ্রুতগতির পিচ বলেই আলোচনায় থাকছেন আফগান পেসার শাপুর জাদরান ও হামিদ হাসান। দীর্ঘদেহী শাপুর বিশ্বকাপে ইতোমধ্যে শিকার করেছেন ৭ উইকেট। দু’দল এ পর্যন্ত একবারই ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়, ২০১২ সালে শারজায় ৬৬ রানের জয় পায় ফেবারিট অস্ট্রেলিয়া। ঘরের মাটিতে বিশ্বকাপে কঠিন পরিস্থিতির মুখে আজ হয়ত আফগানদের গুঁড়িয়ে দিতে চাইবেন ক্লার্করা।

প্রকাশিত : ৪ মার্চ ২০১৫

০৪/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: