আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

একনেকে ৬৩৯ ভূমি অফিস নির্মাণসহ ৭ প্রকল্প অনুমোদন

প্রকাশিত : ৪ মার্চ ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের ৬১ জেলার ১৩৯ উপজেলা এবং ৫০০ ইউনিয়নসহ মোট ৬৩৯ নতুন ভূমি অফিস নির্মাণসহ ৭ প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। এ সব প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয় হবে ৩ হাজার ৫১১ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারী তহবিলের ১ হাজার ৫৩ কোটি ৩ লাখ , বৈদেশিক সহায়তা থেকে ২ হাজার ৪১ কোটি ২৭ হাজার এবং সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে ৪১৭ কোটি ৩৯ লাখ টাকা ব্যয় করা হবে। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপার্সন শেখ হাসিনা। সভা শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন, পরিকল্পনা মন্ত্রী আহম মুস্তফা কামাল। এ সময় অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান, পরিকল্পনা সচিব শফিকুল আজম, সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সিনিয়র সদস্য ড. শামসুল আলম, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য আরাস্তু খান ও হুমায়ুন খালিদ উপস্থিত ছিলেন।

পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, পৃথিবীতে আমাদের ঋণের পরিমাণ সবচেয়ে কম। যা মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) মাত্র ৩২ শতাংশ। অন্যদিকে ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে কোন দুর্নাম না থাকায় উন্নয়ন সহযোগীদের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক ভাল। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে (বিকেএসপি) সারাদেশে সম্প্রসারণ করা হবে। এর নিয়ন্ত্রণ থাকবে মূল বিকেএসপির হাতে। পাশাপাশি বিকেএসপিকে আধুনিকায়ন করা হচ্ছে। অনুমোদিত প্রকল্পগুলো হচ্ছে, কনস্ট্রাকশন অব ১৪ স্টোরেড বিল্ডিং উইথ থ্রি বেজমেন্ট অব হেড অফিস অব বোর্ড অব ইনভেসমেন্ট এ্যাট শেরেবাংলানগর ঢাকা (প্রথম সংশোধনী), এটি বাস্তবায়নে মোট ব্যয় হবে ১২৩ কোটি কোটি ৪ লাখ টাকা। চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি জাতীয় মহাসড়কের অক্সিজেন মোড় হাটহাজারি অংশে ডিভাইডার প্রশস্তকরণ (প্রথম সংশোধনী), এটি বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ২২৫ কোটি ৯৮ লাখ টাকা। পাসপোর্ট পারসোনারাইজেশন কমপ্লেক্স স্থাপন, বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ২৮ লাখ ৮৯ লাখ টাকা। সায়েদাবাদ পানি শোধনাগার ফে-২ এর বিদ্যুত সরবরাহ স্থিতিশীল রাখতে ৩৩/১১ কেভি ইলেকট্রিক সাবস্টেশন স্থাপন, বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ৩৫ কোটি ৩৪ লাখ টাকা। তৃণমূল পর্যায়ে ক্রীড়া প্রতিভা অন্বেষণ করে নিবিড় প্রশিক্ষণ প্রদান এবং বিকেএসপির ক্রীড়া সুবিধাদি আধুনিকায়ন প্রকল্প, ব্যয় হবে ৪১ কোটি ৮৪ লাখ টাকা এবং ঘোড়াশাল ৩য় ইউনিট রি-পাওয়ারিং প্রকল্প এটি বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ২ হাজার ৫১৯ কোটি ৩৫ লাখ টাকা।

ব্রিফিংকালে পরিকল্পনা মন্ত্রী আরও বলেন, দেশে বিদ্যমান উপজেলা ও ইউনিয়ন ভূমি অফিসগুলো অতি পুরাতন ও জরাজীর্ণ। ফলে জমির রেকর্ড ব্যবস্থাপনা যথাযথভাবে সংরক্ষণ করা সম্ভব হচ্ছে না। ইতোমধ্যেই পাঁচটি পর্যায়ে দেশের মোট ৩৪৫টি উপজেলা এবং এক হাজার ১৪টি ইউনিয়ন ভূমি অফিস নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় ষষ্ঠবারের মতো এ সংক্রান্ত প্রকল্পটি একনেকে অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

প্রকল্পের বিস্তারিত হচ্ছে, অনুমোদিত ভূমি অফিস নির্মাণ প্রকল্পে ষষ্ঠ পর্যায়ের এ অংশ বাস্তবায়নে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৩৭ কোটি ২৫ লাখ টাকা। এটি বাস্তবায়িত হলে ভূমি প্রশাসন ব্যবস্থারও উন্নয়ন ঘটবে বলে মনে করা হচ্ছে। ইতোমধ্যেই ১৯৮৫ সালের জুলাই থেকে ২০১২ সালের জুন পর্যন্ত ৫টি পর্যায়ে উপজেলা ও ইউনিয়ন মিলে মোট এক হাজার ৩৫৯টি ভূমি অফিস নির্মাণ করা হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় ষষ্ঠ পর্যায়ে দেশের ৬১টি জেলার উপজেলা ও ইউনিয়ন মিলে মোট ৬৩৯টি ভূমি অফিস নির্মাণের জন্য ৫৯৬ কোটি ১২ লাখ টাকা ব্যয়ে একটি প্রকল্প প্রস্তাব করা হয়েছিল পরিকল্পনা কমিশনে।

প্রকল্পটির ওপর ২০১৪ সালের ১৬ জুন প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্যয় যুক্তিযুক্তকরণ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রস্তাবিত ব্যয় কমিয়ে ৫৩৭ কোটি ২৫ লাখ টাকা ব্যয় ধরে উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাব (ডিপিপি) পুনর্গঠন করে আবারও পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়। পরিকল্পনা কমিশন থেকে প্রকল্পটির প্রক্রিয়াকরণ শেষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদনের সুপারিশ করা হয়।এ প্রেক্ষিতে একনেকে এ অনুমোদন দেয়া হলো।

প্রকাশিত : ৪ মার্চ ২০১৫

০৪/০৩/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: