মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

পেট্রোলবোমা থেকে রক্ষার বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি

প্রকাশিত : ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • ইব্রাহিম নোমান

বর্তমান রাজনৈতিক সহিংসতায় প্রতিদিনই পেট্রোল বোমার আগুনে ঝলসে প্রাণ হারাচ্ছে অথবা পঙ্গু হচ্ছে সাধারণ মানুষ। দগ্ধ হয়ে মারা যাচ্ছে শিশুসহ নানা বয়সের মানুষ। পুড়ছে বাসসহ বিভিন্ন যানবাহন। আতঙ্কে গাড়ি চালানো থেকে বিরত থাকছেন অনেকেই। পেট্রোল বোমার আগুন থেকে জীবন ও পরিবহন সুরক্ষিত রাখার কোন সহজ উপায় এবং কম মূল্যের লাগসই প্রযুক্তি বর্তমানে নেই। সাধারণের জীবন রক্ষার্থে মানবতার স্বার্থে একটি সহজ কার্যকরী প্রযুক্তি উদ্ভাবন করা হয়েছে। পেট্রোল বোমা থেকে রক্ষা পেতে নতুন এক পদ্ধতি উদ্ভাবন করেছেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ফারুক বিন হোসেন ইয়ামিন। তরুণ এই বিজ্ঞানীর দাবি, এর ব্যবহারে পেট্রোল বোমার আগুন থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব। গাজীপুরে কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট চত্বরে ফারুক তার উদ্ভাবিত প্রযুক্তির বিভিন্ন দিক ও প্রয়োগ তুলে ধরেন। পরে তিনি বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের মাঠে জানালার একটি ফ্রেমে বিশেষ পর্দা টানিয়ে পেট্রোল বোমা ছুড়ে পরীক্ষা করেন। এ সম্পর্কে ফারুক বলেন, এ প্রযুক্তি দুটি ব্যবহার করে পেট্রোল বোমার আঘাত ও আগুন সফলভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। এতে আগুন যানবাহনের ভিতর ছড়াতে পারবে না। ফলে জীবন ও সম্পদ রক্ষা করা সম্ভব হবে। বড় একটি বাসের জন্য খরচ হবে ৪০০-৫০০ টাকা মাত্র।

ফারুক এর আগে এক টাকায় ফরমালিন পরীক্ষা এবং শাক-সবজি, ফলমূল টাটকা রাখার মাটির ফ্রিজ উদ্ভাবন, সমুদ্র বা নদীতে অনাকাক্সিক্ষত তেল শোষণ, ডুবে যাওয়া জাহাজ, নৌকা বা অন্য কোন বস্তুর অবস্থান নির্ণয়, মাটির আর্দ্রতা নির্ণয় প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেন।

পদ্ধতি

স্কচটেপ দিয়ে জানালার কাঁচ লেমিনেশন

যানবাহনের জানালার কাঁচ তিন ইঞ্চি চওড়া স্বচ্ছ স্কচটেপ দিয়ে লেমিনেশন করে নিতে হবে, যা পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করলে জানালার কাঁচ ভেঙ্গে টুকরো টুকরো হয়ে ভিতরে ছিটকে পড়া এবং পেট্রোল ও আগুন ছড়িয়ে পড়া প্রতিরোধ করবে।

জানালার ভেতরের দিকে বিশেষ পর্দা ব্যবহার

বিশেষ পর্দা তৈরিকরণ : হার্ডওয়ারের দোকানে কাঠ বার্নিশ করার জন্য যে পাতলা জালি কাপড় পাওয়া যায়, তার উপর চক পাউডার, সঙ্গে আঠা ও গাম (স্বচ্ছ) ও পানি মিশিয়ে তৈরি করা কাই দিয়ে প্রলেপ দিতে হবে। পরে রোদে শুকিয়ে উক্ত কাইয়ের প্রলেপযুক্ত কাপড় পর্দা হিসেবে ব্যবহার করতে হবে।

(মিশ্রণটি হলো- ১ কেজি চক পাউডার + ১ লিটার পানি + ২৫০ গ্রাম আঠা বা গাম)

বিশেষ পর্দাটি অতি উচ্চ শোষণ ক্ষমতাসম্পন্ন হওয়ার কারণে নিক্ষিপ্ত তেল দ্রুত শুষে নেবে। ফলে তেল কম ছড়িয়ে পড়বে এবং পর্দাটি ভিতর দিকে আগুন ও তেল ছিটকে যেতে বাধা দেবে। চক পাউডার (কার্বনেট) আগুনের তাপে কিছুক্ষণ জ্বলে সাময়িক কার্বন-মনো-অক্সাইড ও কার্বন-ডাই অক্সাইড উৎপন্ন করে। ফলে আগুনের দাহ্য ক্ষমতা কমিয়ে আগুন দ্রুত নিভিয়ে ফেলতে সাহায্য করে। এ বিশেষ পর্দাটি নিজে জ্বলে না এবং অন্যকে জ্বলতে বাঁধার সৃষ্টি করে।

এ দুটি পদ্ধতি এক সঙ্গে মালিক গণপরিবহনে ব্যবহার করলে, যাত্রীদের জীবন এবং যানবাহন পেট্রোল বোমার আগুন থেকে রক্ষ করা যেতে পারে।

প্রকাশিত : ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২৭/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: