কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

দক্ষিণ আফ্রিকা-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ‘হাইভোল্টেজ ম্যাচ’ আজ

প্রকাশিত : ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • ক্যারিবীয়দের এগিয়ে যাওয়া, প্রোটিয়াদের টিকে থাকার লড়াই

মোঃ মামুন রশীদ ॥ বিশ্বকাপের অন্যতম হট ফেবারিট হিসেবে এবার জয় দিয়েই শুরু করেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। নিজেদের প্রথম ম্যাচে জিতেছিল জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে। এরপরও দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়ার অবস্থা তাদের একটি মাত্র হারে। কারণ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে আজ হেরে গেলেই কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার রাস্তাটা কঠিন হয়ে উঠবে। সিডনিতে তাই ক্যারিবীয়দের বিরুদ্ধে প্রোটিয়া শিবিরের জয় অতীব জরুরী। আর আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে অঘটনের শিকার হলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজ টানা দুটি বড় জয়ে বেশ উজ্জীবিত। আজ এ দু’দলের লড়াই। বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৯টায় ‘বি’ গ্রুপের গুরুত্বপূর্ণ এ ম্যাচটি শুরু হবে।

শুরুটা আচমকা এক ধাক্কা খেয়ে শুরু ওয়েস্ট ইন্ডিজের। যদিও চলতি আসরে ক্যারিবীয়রা শিরোপা জয়ের ক্ষেত্রে ফেবারিটের তকমাটা নেই। এরপরও আইসিসির সহযোগী সদস্য দেশ আয়ারল্যান্ডের কাছে পরাজয় দিয়ে শুরু ছিল এবার বিশ্বকাপের বড় অঘটন। কিন্তু প্রত্যাবর্তনটা দারুণ হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের। পরপর দুই ম্যাচে পাকিস্তান ও জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে এক তরফাভাবে জয় তুলে নিয়েছে তারা। তাই ক্রিকেটাররা বেশ চাঙ্গা এবং মানসিকভাবে উজ্জীবিত অবস্থায় আছেন। এরচেয়ে বড় কথা দলের অন্যতম নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল ফিরেছেন ফর্মে। জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে ফর্মে ফেরার ম্যাচে তিনি বিশ্বকাপের বিশ্বরেকর্ড গড়ে ২১৫ রানের সর্বোচ্চ ইনিংস উপহার দিয়েছেন। প্রথম দুই ম্যাচে গেইলের ব্যাট থেকে তেমন রান না আসলেও উভয় ম্যাচে ক্যারিবীয়রা তিন শতাধিক রান করে বুঝিয়ে দিয়েছে গেইল নির্ভর দল নয় তারা। সে কারণে সর্বশেষ ম্যাচে বিধ্বংসী এ ব্যাটসম্যান স্বরূপে ফেরায় এখন দলের ব্যাটিং শক্তি অনেকখানি বেড়েছে। জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে অনেক দলীয় রেকর্ড, ব্যক্তিগত রেকর্ড গড়ে জয় তুলে নেয়ায় দল এখন প্রচ- আত্মবিশ্বাসে টগবগে। তাছাড়া রানের মধ্যে আছেন মারলন স্যামুয়েলস, লেন্ডল সিমন্স, ড্যারেন সামি ও আন্দ্রে রাসেল। অলরাউন্ড নৈপুণ্যে সামি-রাসেল গত তিন ম্যাচেই দারুণ সার্ভিস দিয়েছেন নিজেদের দলকে।

বিশ্বকাপের আগে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ঘরের মাঠে ক্যারিবীয়দের ওয়ানডে সিরিজে ৪-১ ব্যবধানে পরাজিত করেছে প্রোটিয়া শিবির। ওই সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজ তেমন প্রতিদ্বন্দ্বিতাই গড়তে পারেনি। তবে চলমান বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার নৈপুণ্যে সেই ছাপ দেখা যায়নি। জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে বড় জয় তুলে নিলেও শক্ত প্রতিপক্ষ ভারতের কাছে আগের ম্যাচে ১৩০ রানের বিশাল ব্যবধানে বিধ্বস্ত হয়ে বেশ নাজুক পরিস্থিতিতেই আছে প্রোটিয়ারা। এর সঙ্গে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতাও চোখে পড়ার মতো। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে নির্ভরযোগ্য মিডলঅর্ডার জেপি ডুমিনি ও পেসার ভারনন ফিল্যান্ডারের ইনজুরি সমস্যা। আজকের ম্যাচে ফিল্যান্ডারের খেলা নিয়ে আছে সংশয়। তবে ডুমিনি শেষ পর্যন্ত খেলতে পারেন। সেক্ষেত্রে ফিল্যান্ডারের পরিবর্তে কাইল এ্যাবোট এবং ফর্মহীন ওয়েন পারনেলের জায়গায় ফারহান বেহারডিয়েনকে একাদশে দেখা যেতে পারে। ক্যারিবীয়দের জন্য বড় দুশ্চিন্তা হয়ে দেখা দিয়েছে জিম্বাবুইয়ের বিরুদ্ধে ২১৫ রানের অবিস্মরণীয় ইনিংস খেলা গেইলের পিঠের ইনজুরি। যদিও তিনি বৃহস্পতিবার অনুশীলনে ফিরেছেন। গেইলের সঙ্গী ডোয়াইন স্মিথ আগের তিন ম্যাচেই ছিলেন পুরোপুরি ব্যর্থ। আর ড্যারেন ব্রাভো হ্যামস্ট্রিং সমস্যা কাটিয়ে উঠতে না পারার কারণে তার জায়গায় জোনাথন কার্টার খেলবেন। সে কারণে আরেকটি সুযোগ পাচ্ছেন স্মিথ। নির্ভরযোগ্য স্পিনার সুলেমান বেন ইনজুরির কারণে গত ম্যাচে খেলতে না পারলেও আজ ফিরছেন।

সিডনিতে এবার বিশ্বকাপে আজই প্রথম কোন ম্যাচ হতে যাচ্ছে। তেমন গতি ও বাউন্স না থাকলেও সিডনির উইকেটে আছে যথেষ্ট সুইং। আর উইকেটের বিশ্লেষণ জানান দিচ্ছে স্পিনাররাও যথেষ্ট সুবিধা পাবেন এখানে। সেক্ষেত্রে ক্যারিবীয়রা বেন এবং প্রোটিয়ারা ইমরান তাহিরকে নিয়েই একাদশ সাজাবে। ১৯৯২ বিশ্বকাপে সিডনির এ মাঠেই ইতিহাসের সবচেয়ে দুর্ভাগ্যজনক ম্যাচটির স্বাক্ষী ছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। বৃষ্টির কারণে সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে শেষ ৬ বলে ২২ রানের টার্গেট পুনর্নির্ধারিত হয়েছিল ১ বলে ২২ রান। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য একটি সুখকর পরিসংখ্যান হচ্ছে ২০০৭ সালের পর মোট ১৭ বার মোকাবেলায় মাত্র একবার জিততে পেরেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। কিন্তু বিশ্বকাপের পরিসংখ্যানটা আবার হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়েরই ইঙ্গিত দিচ্ছে।

বিশ্বকাপে ৫ বারের লড়াইয়ে ৩-২ ব্যবধানে এগিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে সবমিলিয়ে পরস্পরের ৫৭ ওয়ানডেতে অনেক এগিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। মাত্র ১৩ বার জিতেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ আর ৪২ জয় আছে দক্ষিণ আফ্রিকার। তবে ১৯৯২, ১৯৯৯ ও ২০০৭ বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল খেলা দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য আজ প্রমাণ করার সুযোগ নিজেদের ফেবারিট হিসেবে। দুই ম্যাচে এক জয়ে প্রোটিয়ারা সমস্যায় থাকলেও ৩ ম্যাচে দুই জয়ে বেশ ভাল অবস্থায় আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আজ জিতলে কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার পথে অনেকখানি এগিয়ে যাবে তারা।

প্রকাশিত : ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২৭/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: