কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আব তাক ছাপ্পান টু নিয়ে ফিরছেন নানা

প্রকাশিত : ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

মুম্বাইয়ের স্বপ্ন জগতের বাসিন্দা হতে কেনা চায়! তবে এই ফিল্মী পাড়ায় বিচরণ ক’জনারই ভাগ্যে জোটে বলুন? অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে অভিনয় আর স্টাইলের শৈল্পিকতা দিয়ে এই স্বপ্নের দুনিয়ায় টিকে আছে হাতে গোনা কয়েকজন। সেই ১৯৭৪ সালে হিন্দী ফিল্ম দুনিয়ায় ক্যারিয়ার শুরু করা এক তুখোড় অভিনেতা একে একে ফিল্ম ভক্তকুলকে উপহার দেন হিট ছবি ‘মহরি’, পারিন্দা, অগ্নিসাক্ষী, ক্রান্তিবীর, অপহরণসহ অসংখ্য দর্শকনন্দিত হিট ফিল্ম। কি, নিশ্চই এখন ভক্তরা এই কিংবদন্তি ফিল্ম অভিনেতাকে চিনতে পেরে নড়েচড়ে বসবেন ? হ্যা, ‘নানা পাটেকার...’। তাঁর নাম জানে না তাবত দুনিয়ায় এমন ফিল্ম ভক্তের সংখ্যা খুবই কম! ১৯৫১ সালে মহারাষ্ট্রে জন্ম নেয়া এই জাঁদরেল অভিনেতার অভিনয় প্রতিভা যেন কল্পনা ও বাস্তবের সংমিশ্রণে গড়া অনন্য শৈলী। তিনি সময় ও অভিনয়ের প্রয়োজনে কখনও দশকসম্মুখে খল চরিত্রে, কখনও কমেডিয়ান, আবার কখনও জাঁদরেল সৎ পুলিশ ইন্সপেকটরের ভূমিকায় পর্দায় আসেন ভিন্নরূপে। এ্যাপলাইড আর্টসের এক সময়ের দুরন্ত যে ছাত্র, সারা বলিউড জগৎ তথা বিশ্বের সিনেমাপ্রেমী মানুষের নিকট তার নিজস্ব স্টাইল, সংলাপ ও অসামান্য অভিনয়ের কারণে ‘আইকন’ হয়ে আছেন তা নিয়ে যে কারও কোন দ্বিমত নেই, সেটা নিঃসন্দেহে বলা যায়। কন্ট্রোভার্সিয়াল এ্যাকটর হিসেবে পরিচিত নানা পাটেকার ১৯৯০, ১৯৯৫ ও ১৯৯৭ সালে বেস্ট এ্যাকটর হিসেবে অর্জন করেন ন্যাশনাল ফিল্ম এ্যাওয়ার্ড। এছাড়াও তিনি অসংখ্যবার ফিল্মফেয়ার এ্যাওয়াডে ভূষিত হন। তবে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, আব তাক ছাপ্পান ফিল্মের ব্যাপক সাফল্যের পর ডিরেক্টর এজাজ গোলাবের সিক্যুয়াল ফিল্ম ‘আব তাক ছাপ্পান-২’ নিয়ে নানা পাটেকার ২৭ ফেব্রুয়ারি দশক মাতাতে আসছেন। পূর্ববতী আব তাক ছাপ্পান্নে সিঙ্গেল মাইন্ডেড ও নন করাপটেবল তুখোড় পুলিশ ইন্সপেকটরের ভূমিকায় অভিনয় করা নানা এবার আসছেন ‘সাধু আগাসির’ চরিত্রে। আর সঙ্গে তো রয়েছেনই প্রাক্তন বিউটি কুইন গুল পানাং ও আরেক তুখোড় অভিনেতা আশুতোষ রানা। ইনভেস্টিগেশন জার্নালিস্ট চরিত্রে অভিনয় করা হার্টথ্রব গুল পানাং এক বিবৃতিতে বলেন, ‘যখন আমি জানলাম যে এই ফিল্মে নানা পাটেকারের মতো অসাধারণ অভিনেতার বিপরীতে ক্রাইম রিপোর্টারের ভূমিকায় প্লে­ করব, তখন আমি খুবই থ্রিল ছিলাম। একজন অভিনেতার এমন সুযোগ খুবই কম হয়। আমি তো এক কথাতেই রাজি হয়ে যাই ।’ ২০০৫ সালে তৈরি করা সফল হিন্দি এই এ্যাকশন ফিল্মের সিক্যুয়াল কেমন হবে, তার জন্য দর্শককে অপেক্ষা করতে হবে আর কিছুদিন। অবশ্য যেখানে নানা পাটেকারের মতো বহুমাত্রিক অভিনেতার আবির্ভাব সেই ফিল্ম যে ভক্তরা লুফে নেবেই, তা নিঃসন্দেহে বলা যায়। ৯০-এর প্রাক্কালে টেরিটরি আমিতে কাজ করা নানা পাটেকার কিছু কিছু ফিল্ম যেমন ‘আনচ’ ‘ওয়াজুদ’ এবং ‘ইশায়ন্টে’ প্লে-ব্যাক সিঙ্গার হিসেবেও সুনাম কুড়িয়েছেন। তবে নানার অভিনয় দ্যুতি উপভোগ করার জন্য লাখ লাখ ভক্ত সেই মাহেন্দ্রক্ষণের অপেক্ষার প্রহর গুনছে। দেখা যাক, হিট ফিল্ম ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’, ধুম-৩ কিংবা পিকের মতো এই ফিল্ম কত শত কোটি রুপী ব্যবসা করতে পারে! সেটা তো ভবিষ্যতেই দেখার পালী।

পান্থ আফজাল

প্রকাশিত : ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২৬/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: