কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

বাউফলে সরকারী স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত সাধারণ মানুষ

প্রকাশিত : ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • কর্মকর্তা কর্মচারী ক্লিনিক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল, ২৪ ফেব্রুয়ারি ॥ বাউফলে স্বাস্থ্য বিভাগের অধিকাংশ সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারী ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। কৌশলে অকেজো করে রাখা হচ্ছে সরকারী হাসপাতালের আধুনিক যন্ত্রপাতিগুলো। এর ফলে সরকারের স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, বাউফল উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসের পরিবার কল্যাণ পরিদর্শক আবু জাফর, সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ সিরাজুল ইসলাম, ফার্মাসিস্ট মাহাবুব হোসেন নান্নু, এফডাব্লিউএ নাফিজা কাওসার কাকুলিসহ ১৭ জন কর্মকর্তা ও কর্মচারী ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত স্বাস্থ্য বিভাগের এসব সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীর সবার বাড়ি বাউফলে। এ কারণে তাঁরা কাউকে পরোয়া করছেন না। বাউফলে সরকারী হাসপাতাল বা কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোতে উন্নতমানের চিকিৎসা সুবিধা চালু থাকলেও সাধারণ মানুষ তা গ্রহণ করতে পারছেন না। বাউফল হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, সরকার এ হাসপাতালে সাধারণ মানুষকে উন্নতমানের চিকিৎসা সুবিধা দিতে ব্যয়বহুল বিভিন্ন যন্ত্রপাতি স্থাপন করে। এ হাসপাতালে ৩০০ এমএম উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন এক্স-রে মেশিন রয়েছে। এ ছাড়াও মা ও শিশুদের চিকিৎসার জন্য আলাদা বিভাগ রয়েছে। প্রসূতি মায়েদের সিজারের জন্য প্রায় কোটি টাকা ব্যয়ে অত্যাধুনিক শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অপারেশন থিয়েটার রয়েছে। অথচ কৌশলে এগুলো অকেজো করে রাখা হয়েছে। ফলে সরকারী এ হাসপাতালে সাস্থ্যসেবা না পেয়ে সাধারণ মানুষ ক্লিনিকগুলোতে চিকিৎসা নিতে বাধ্য হচ্ছেন।

সাতক্ষীরায় ফের ডাকাতি ॥ চার জনকে কুপিয়ে জখম

স্টাফ রিপোর্টার, সাতক্ষীরা ॥ শহরে আবারও এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি হয়েছে। এ সময় ডাকাতরা গৃহকর্তাসহ চারজনকে কুপিয়ে সর্বস্ব লুট করে নিয়ে যায়। সোমবার রাত আড়াইটার দিকে সাতক্ষীরা পৌরসভার পুরাতন ঘোষপাড়া এলাকার ভিসা এজেন্সির মালিক অশোক ঘোষের বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনাটি ঘটে। আহত অশোক ঘোষ, তার মা, স্ত্রী ও ছেলেকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে গত ডিসেম্বর থেকে শহরে ক্রমাগত ডাকাতির ঘটনা প্রতিরোধ করতে শহরের কাটিয়া এলাকাবাসী প্রতিরাতে দলবদ্ধ হয়ে পালা করে পাহারা দিচ্ছে। সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অশোক ঘোষের ছেলে জয় ঘোষ জানান, রাতে একদল ডাকাত ধারালো দা, ছুরিসহ দেশীয় অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তাদের বাড়িতে হানা দেয়। এ সময় তারা ডাকাতির কাজে বাধা দেয়ায় ডাকাতরা তার বাবা অশোক ঘোষ, মা, দাদি ও তাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত করে সবস্ব লুট করে নিয়ে যায়।

প্রকাশিত : ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২৫/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: