রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কিডনি টিউমার অপারেশনে বঙ্গবন্ধু মেডিক্যালে বিরল সাফল্য

প্রকাশিত : ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ কিডনি টিউমার অপারেশনে বিরল সাফল্য দেখিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসকরা। এ ধরনের অপারেশন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে এই প্রথম। আর বাংলাদেশেও খুব বেশি এই অপারেশনে সফল হওয়ার নজির নেই। সফল অস্ত্রোপচারের পর রোগী এখন সম্পূর্ণ সুস্থ এবং ছুটির অপেক্ষায় আছেন। এ ধরনের রোগীর চিকিৎসার জন্য আর বিদেশে যাওয়ার দরকার নেই। দেশেই, বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে এই ধরনের চিকিৎসা সম্ভব। বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউরোলজি বিভাগে এ অপারেশন সম্পন্ন হয়। ৫৫ বছর বয়সী বকুল বেগম হঠাৎ করে পেটে প্রচ- ব্যথা অনুভব করেন। চিকিৎসকের পরামর্শে তিনি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করান। পরীক্ষায় বড় কিডনি টিউমার, যা মহাশিরা হয়ে হৃৎপি-ের ডান অলিন্দে প্রবেশমুখ পর্যন্ত বিস্তৃত হওয়ার বিষয়টি ধরা পড়ে। বিভিন্ন জায়গা ঘুরে তিনি ভর্তি হন বিএসএমএমইউ’র ইউরোলজি বিভাগে প্রফেসর ডাঃ একেএম আনোয়ারুল ইসলামের অধীনে। তারপর কার্ডিয়াক সার্জারি, এ্যানেসথেসিয়া ও ইউরোলজি বিভাগ মিলে মেডিক্যাল বোর্ড করে তাঁর চিকিৎসার পরিকল্পনা করা হয় এবং গত ৮ ফেব্রুয়ারি কার্ডিয়াক সার্জারি বিভাগের অপারেশন থিয়েটারে অপারেশন সম্পন্ন হয়। কিডনি টিউমার ও মহাশিরার টিউমার অপসারণ করেন প্রফেসর ডাঃ একেএম আনোয়ারুল ইসলামের নেতৃত্বে ইউরোলজি টিম।

এতে ছিলেন প্রফেসর ডাঃ একেএম খুরশিদুল আলম, সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ মোহাম্মদ শফিকুর রহমান, সহকারী অধ্যাপক ডাঃ সালাহ্উদ্দিন ফারুক, ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমান, ডাঃ আশরাফুল ইসলাম। এই ধরনের টিউমার অপসারণের ক্ষেত্রে কৃত্রিম উপায়ে মেশিনের সাহায্যে বিকল্প পথে রক্ত প্রবাহের ব্যবস্থা করতে হয়। এই কাজটি করেন কার্ডিয়াক সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডাঃ রেজওয়ানুল হক বুলবুল, ডাঃ ওমর সিদ্দিকী, ডা. রাসেল। এ্যানেসথেসিয়ার দায়িত্বে ছিলেন ডাঃ মোস্তফা নুরুজ্জামান।

শুভেচ্ছা সফরে ভারতীয় নৌ জাহাজ ‘রণজিৎ’ এখন বাংলাদেশে

তিন দিনের শুভেচ্ছা সফরে বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে ভারতীয় নৌবাহিনীর ডেস্ট্রয়ার জাহাজ ‘রণজিৎ’ (ওঘঝ জঅঘঔওঞ)। মঙ্গলবার চট্টগ্রাম বন্দর জেটিতে এসে পৌঁছলে কমান্ডার চট্টগ্রাম নৌ অঞ্চলের চীফ স্টাফ অফিসার ক্যাপ্টেন এ কে এম এম শেরাফুল্লাহ জাহাজটিকে স্বাগত জানায়। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের সহকারী হাইকমিশনার ও সহকারী ডিফেন্স এ্যাটাশেসহ নৌবাহিনীর পদস্থ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে জাহাজটি বাংলাদেশে এসে পৌঁছলে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জাহাজ ‘দুর্জয়’ অভ্যর্থনা জানায়। -আইএসপিআর।

প্রকাশিত : ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২৫/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: