মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

পুঁজিবাজারে লেনদেন কমেছে ৮ শতাংশ

প্রকাশিত : ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের পুঁজিবাজারে আবারও সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা ফিরে এসেছে। সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রবিবার প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের বেশিরভাগ কোম্পানির দর বাড়ার কারণে সূচক বেড়েছে প্রায় ১৪ পয়েন্ট। তবে সব ধরনের সূচকের বৃদ্ধি ঘটলেও দিনটিতে সেখানে লেনদেন কমেছে প্রায় ৮ শতাংশ। লভ্যাংশ ঘোষণার সময় ঘনিয়ে আসায় পুঁজিবাজারে ডিসেম্বর ক্লোজিং কোম্পানিকে ঘিরে বিশেষ আগ্রহ দেখা গেছে। বিশেষ করে শক্তিশালী বা ভাল মৌলের শেয়ারের প্রতি আগ্রহ ছিল চোখে পড়ার মতো। যার কারণে শাহজিবাজার পাওয়ার, স্কয়ার ফার্মা, এসিআই, লাফার্জ সুরমা সিমেন্টের মতো কোম্পানিগুলোর লেনদেন বেড়েছে। একইভাবে দেশের অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক ও লেনদেন দুটোই বেড়েছে।

রবিবার ডিএসইতে মোট লেনদেনে অংশ নেয় ৩১০টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৪টি, কমেছে ১২৫টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫১টি শেয়ারের দর। সার্বিক ডিএসইএক্স সূচক ১৩ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৮০২ পয়েন্টে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১৩৬ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ১০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ৭৮৮ পয়েন্টে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, দিনটিতে ডিএসইতে খাতভিত্তিক লেনদেনের সেরা স্থান দখল করেছে ওষুধ এবং রসায়ন খাতের কোম্পানিগুলো। দিনটিতে খাতভিত্তিক লেনদেনের সেরা স্থান দখলকারী খাতটির মোট লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৪৪ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের সেরা ১৮ ভাগ। দ্বিতীয় স্থান দখলকারী জ্বালানি এবং শক্তি খাতের কোম্পানিগুলোর মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ৩৯ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের ১৬ ভাগ। তৃতীয় অবস্থানে থাকা প্রকৌশল খাতের কোম্পানিগুলোর মোট লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়ায় ২৫ কোটি টাকা, যা মোট লেনদেনের ১০ দশমিক ১৬ ভাগ।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হচ্ছে : শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, এসিআই, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, এমজেএলবিডি, আইডিএলসি ফিন্যান্স, এসিআই ফরমুলেশন, গ্রামীণফোন, আমরা টেকনোলজিস এবং সিঙ্গার বিডি।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, বঙ্গজ, রেকিট বেনকিজার, এ্যামবে ফার্মা, এসিআই ফর্মুলেশন, এসিআই, ইস্টার্ন লুব্রিক্যান্টস, ওয়াটা কেমিক্যাল, অগ্রণী ইন্স্যুরেন্স ও ম্যারিকো।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ইমাম বাটন, ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্স, অলটেক্স, জনতা ইন্স্যুরেন্স, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং এ্যান্ড ফাইন্যান্স, গ্রীনডেল্টা, মিরাকল ইন্ডাস্ট্রিজ, সি এ্যান্ড এ টেক্সটাইল, সায়হাম কটন ও আইসিবি ১ম এনআরবি।

রবিবার দেশের অপর বাজারেও সব ধরনের সূচক ও লেনদেন বেড়েছে। সেখানে বড় মূলধনী কোম্পানিসহ সব ধরনের কোম্পানিরই চাহিদা বেড়েছে। সিএসইতে ২২ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। সিএসই সার্বিক সূচক ৫৩ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৬৯৯ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৩৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৯৯টির, কমেছে ১০৩ এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : ডিবিএইচ, বেক্সিমকো, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, এমারেল্ড ওয়েল, গ্রামীণফোন ও ইফাদ অটোস।

প্রকাশিত : ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২৩/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: