মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

‘মায়ের ভাষা প্রতিষ্ঠায় বিশ্বে একমাত্র এ দেশের মানুষই জীবন দিয়েছে’

প্রকাশিত : ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশসহ বিশ্বের প্রায় অনেক ভাষা অতি দ্রুত হারিয়ে যাচ্ছে। আমাদের সংস্কৃতি রক্ষা করতে হলে অবশ্যই ভাষাকে সংরক্ষণ করতে হবে। ভাষা রক্ষা সংস্কৃতির বাহন। ভাষা রক্ষা মানেই একটি জাতির ইতিহাস রক্ষা করা। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অনেক পুরানো ভাষা অতি দ্রুত হারিয়ে যাচ্ছে। এরজন্য বিশ্বের প্রতিটি বেশি ভাষায় কথা বলা মানুষকে কম ভাষায় কথা বলার মাইনর ভাষাকে রক্ষায় এগিয়ে আসতে হবে। অন্যথায় আমাদেরকে পরবর্তী প্রজন্মের কাছে তাদের ভাষা রক্ষা না করার জন্য জবাবদিহি করতে হবে। রবিবার ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে প্রিজারভেশন এ্যান্ড প্রমোশন অব মাদার ল্যাংগুয়েজ এ্যান্ড মাল্টিলিংগোয়ালিজম : স্কোপ টু মেইক আইএমএলআই এজ এ রিসার্চ হাব শীর্ষক এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের উদ্বোধন উপলক্ষে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব ডক্টর কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী এ সব কথা বলেন। উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের একমাত্র দেশ ও জাতি যারা তাদের মায়ের ভাষা প্রতিষ্ঠার জন্য নিজের জীবন পর্যন্ত দিয়েছে। এর ফলে ২১ ফেব্রুয়ারিকে সারাবিশ্বে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করা হচ্ছে। সারাবিশ্বের বিভিন্ন ভাষাভাষীর মধ্যে বাংলা অন্যতম ভাষা। বিশ্বের প্রতিটি দেশকে শুধু তাদের বেশি সংখ্যক লোকের নয় খুব কমসংখ্যক লোকের ভাষা রক্ষায় মনযোগী হতে হবে। প্রতিটি দেশের সরকারকে এজন্য আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করতে হবে। একটি দেশের সংখ্যালঘুরও অধিকার রয়েছে তার ভাষায় কথা বলার। বাংলাদেশ সরকার বাংলার পাশপাশি অন্যান্য ভাষা রক্ষায় অতি গুরুত্বের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে। যা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে। আন্তর্জাতিক এ সম্মেলনে বিভিন্ন দেশ থেকে আসা ভাষাবিদ ও আমন্ত্রিতরা বলেন, বাংলাদেশের ক্ষেত্রে আশঙ্কার বিষয় হচ্ছে, বাংলাদেশের কোন কোন জেলায় সংখ্যালঘু ভাষার মানুষ দ্রুত হারিয়ে যাচ্ছে।

প্রকাশিত : ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২৩/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

অন্য খবর



ব্রেকিং নিউজ: