আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ব্রাভোর আক্ষেপ!

প্রকাশিত : ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বকাপে নিজের অভিষেক ম্যাচে কিছুই করতে পারেননি। দুর্বল প্রতিপক্ষ আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে কোন বল মোকাবেলা করার আগেই দুর্ভাগ্যজনকভাবে রানআউটের শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরেছিলেন। দুর্ভাগ্য দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করা ওয়েস্ট ইন্ডিজের এ টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানের খারাপ সময়টা পিছু ছাড়েনি। নেলসনে যে দুর্ভাগ্য পিছু নিয়েছিল সেটা তাকে তাড়া করেছে ক্রাইস্টচার্চে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ম্যাচেও। এবার ব্যাট হাতে রান পেলেও আঘাত পাওয়ার পর আবার হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে মাঠ ছাড়তে হয়েছে আউট না হলেও। ৪৯ রানে অপরাজিত ব্রাভোকে পরে হাসপাতালে ভর্তিও করাতে হয়েছে। এরপর হাসপাতালে গিয়েও শুনেছেন খারাপ খবর। প্রতিপক্ষ কাউকে না বললেও ব্যাটিংয়ের সময় বিড়বিড়িয়ে অশ্লীল কিছু কথা বলার জন্য আইসিসির রেফারি ডেভিড বুন তাকে সতর্ক করে দিয়েছেন। আইসিসির দাবি কাউকে উদ্দেশ্য করে কথাগুলো বলা না হলেও কোড অব কন্ডাক্টের নীতিমালা ভঙ্গ করেছেন ব্রাভো। তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হতে পারে। আরও খারাপ খবর পুরোপুরি ফিট হয়ে ওঠার আগে আগামী দুই ম্যাচে তার খেলা নিয়ে সৃষ্ট শঙ্কা। ক্রাইস্টচার্চে মাত্র ২৩ রানেই দুই ওপেনারকে হারিয়ে বসেছিল ক্যারিবীয়রা আগে ব্যাট করতে নেমে। তবে দায়িত্ব নিয়ে শুরু থেকেই দেখেশুনে খেলে ভালভাবেই সামাল দিচ্ছিলেন চাপটা। এর মধ্যেই ১ রান নিতে গিয়ে ইউনুস খানের থ্রো তার মাথার একপাশে হেলমেটে আঘাত করে। বেশ ব্যথা পেয়েছিলেন তিনি। তবে সেটা কাটিয়ে ব্যাটিং করে যান। কিন্তু বাজে পরিস্থিতির এখানেই সমাপ্তি ঘটেনি। অর্ধশতক থেকে মাত্র এক রান দূরে থাকতে বাঁ পায়ের পেশিতে টান পড়ে তার। উইকেটেই লুটিয়ে পড়ার পর প্রাথমিকভাবে দলের ফিজিও শুশ্রƒষায় সেরে তোলার প্রচেষ্টা চালান ব্রাভোকে। কিন্তু তাতে কাজ হয়নি। মাঠই ছাড়তে হয় তাকে শেষ পর্যন্ত। আর ব্যাটিং করার জন্য নামতে পারেননি তিনি, এমনকি ফিল্ডিংয়েও ছিলেন অনুপস্থিত। পরে অবস্থার পরিবর্তন না হওয়াতে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় পায়ের স্ক্যান করাতে। সেখানে গিয়েও তিনি জেনেছেন আইসিসি সতর্ক করে দিয়েছে তাকে। দ্রুত রান নেয়ার সময় ইউনুসের জোরালো থ্রো আঘাত করে ব্রাভোর হেলমেটে। এরপর ব্যথা পেয়ে অশালীন কিছু কথা বলেন ব্রাভো যা মাইক্রোফোনে শোনা গেছে। হ্যামস্ট্রিংয়ের টানে তীব্র ব্যথায় কঁকাতে থাকার সময়ও অশ্লীল শব্দগুচ্ছ ব্যবহার করেছেন তিনি। আর এ বিষয়টি আইসিসির শৃঙ্খলা ভঙ্গের সামিল হিসেবে বিবেচনা করেন ম্যাচ রেফারি বুন। পরে আইসিসিকে বিষয়টি জানিয়েও দেন। আইসিসির পক্ষ থেকে ব্রাভোকে সতর্ক করে দেয়া হয় এমন বাক্য ব্যবহারের জন্য। যদিও পাক কোন খেলোয়াড়ের প্রতি এসব মন্তব্য করেননি তা স্পষ্ট হয়েছে। তবু বুন জানিয়েছেন শাস্তি পেতে হবে ব্রাভোকে এবং জিজ্ঞাসাবাদও করা হবে। এ বিষয়ে আইসিসি জানায়, ‘ব্রাভো যে কথাগুলো বলেছেন সেটা নিশ্চিতভাবে বলা যায়নি কোন পাকিস্তানী ক্রিকেটারকে উদ্দেশ করে বলেছেন কি না। তবে তার কথাগুলো ছিল খুবই অশালীন, অবমাননাকর এবং অশোভন।’ এ দুই ম্যাচে একটিই ভাল সংবাদ পেয়েছেন ব্রাভো।

প্রকাশিত : ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২২/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: