কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভারতের ব্যাটিং বনাম প্রোটিয়া বোলিং

প্রকাশিত : ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
ভারতের ব্যাটিং বনাম প্রোটিয়া বোলিং

জিএম মোস্তফা ॥ বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত। তাদের শুরুটাও ঠিক চ্যাম্পিয়নের মতো। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে হারিয়ে। মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে (এমসিজি) আজ নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলতে নামবে মহেন্দ্র সিং ধোনির ভারত। প্রতিপক্ষ শক্তিশালী দক্ষিণ আফ্রিকা। ভারতের মতো বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে জয়ের স্বাদ পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকাও। ভারত চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে ৭৬ রানে হারিয়েছে। আর জিম্বাবুইয়েকে ৬২ রানে হারিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

তাই দ্বিতীয় ম্যাচটা দুই দলের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ। আর এই ম্যাচের আগে দুই দলকেই সমান দৃষ্টিতে দেখছেন ভারতের সহঅধিনায়ক বিরাট কোহলি। বর্তমান সময়ে দুর্দান্ত পারফর্মেন্স উপহার দেয়া ভারতের এই প্রতিভাবান ক্রিকেটার মনে করছেন দক্ষিণ আফ্রিকা যেমন বোলিংয়ে খুব শক্তিশালী তেমনি ভারত ব্যাটিংয়ে এগিয়ে। এ বিষয়ে ২৬ বছর বয়সী বিরাট কোহলি বলেন, ‘দুই দলই সমান। তাই এখন সবকিছুই নির্ভর করছে ওই দিন আসলে কোন দল কেমন খেলে। তাদের যেমন ভাল ফাস্ট বোলার রয়েছে। ঠিক তেমনি আমাদের ভাল ব্যাটসম্যান রয়েছে। তাই আশা করছি তাদের বোলার আর আমাদের ব্যাটসম্যানদের লড়াইটা বেশ রোমাঞ্চকরই হবে।’

প্রোটিয়াদের বোলিং লাইনের কথা মনে হলেই চোখে ভেসে উঠে ডেল স্টেইন-মরনে মরকেলদের কথা। এছাড়াও তাদের সঙ্গে আছে মরনে মরকেল, ভারনন ফিল্যান্ডার এবং কাইল এ্যাবট। তবে দেশটির সেরা পেসার ডেল স্টেইন এবং এবি ডি ভিলিয়ার্সের সঙ্গে একত্রে খেলেছেন বিরাট কোহলি। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে (আইপিএল) রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের জার্সিতে। আইপিএলে খেলার সময় তাদের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কও গড়ে উঠে কোহলির। যেটাকে অতিরিক্ত সুবিধা হিসেবেই দেখছেন কোহলি। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ডেল আমার ভাল বন্ধু। যখনই তার সঙ্গে দেখা করি তখন অনেক উষ্ণ আলিঙ্গন পাই। তবে এটাও ঠিক আমরা যখন মাঠে একে অন্যের বিপক্ষে লড়াইয়ে নামব তখন সে আমার ওপর কর্তৃত্ব দেখাবে। আমিও চাইব তার ওপর দাপট দেখাতে। সে বিশ্বক্রিকেটের সেরা পেসার এবং কেন এবি ডি ভিলিয়ার্স একজন বিশ্বমানের ব্যাটসম্যান। তার পেছনে যথেষ্ট কারণও রয়েছে। প্রতিপক্ষের প্রতিটি খেলোয়াড়ের জন্যই আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে। তবে এটাও ঠিক যে কারও কারও আমাদের পরিকল্পনার বিপক্ষেও ভাল খেলার যোগ্যতা রয়েছে।’

অস্ট্রেলিয়ার ঐতিহ্যবাহী স্টেডিয়াম মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড। এখানে আজ ৮০ হাজারেরও বেশি সমর্থক থাকবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আর শতকরা ৮০ ভাগই হতে পারে ভারতীয় সমর্থক। নিজের দেশের ভক্ত-অনুরাগীদের সামনে খেলার জন্য উন্মুখ হয়ে আছেন কোহলি। এ বিষয়ে তার অভিমত হলো, ‘আমি পরিপূর্ণ দর্শক সমৃদ্ধ স্টেডিয়ামে খেলতে পছন্দ করি। যখন একজন ক্রিকেটার খেলে এবং সমর্থকদের আনন্দিত করতে পারে তা খুবই আনন্দের বিষয়। যদিওবা প্রকৃতপক্ষে সবসময়ই কারও ভাল করা সম্ভব হয় না। তবে এটা যদি আপনি না করেন তাহলে অন্য কেউ করবে। প্রকৃতপক্ষে মেলবোর্নে খেলার জন্য আমি সবসময়ই রোমাঞ্চিত। এখানে একটা জয় আমাদের আত্মবিশ্বাসকে বহুগুণে বাড়িয়ে দেবে। তা অন্য দলগুলোকে হারাতে সহায়তা করবে। আমরা আসলে ব্যক্তিগত পারফর্মেন্সের দিকে তাকিয়ে নই বরং প্রোটিয়াদের বিপক্ষে একটা ঐক্যবদ্ধ দল হিসেবে খেলতে চাই। কেননা এখানে কারও প্রমাণের কোন কিছুই নেই।’

১৯৯২, ১৯৯৯ এবং ২০১১ বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত। তিনবারই পরাজয়ের স্বাদ পেয়েছে তারা। তবে এবার সেই হারের বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে চায় ধোনি-কোহলিরা। তাছাড়া বিরাট কোহলি-ধাওয়ান, রোহিত শর্মা, কিংবা মহেন্দ্র সিং ধোনির মতো ব্যাটসম্যানদের নিয়ে ভারতও এই মুহূর্তে দারুণ ফর্মে। বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি উপহার দিয়েছেন কোহলি। যা বিশ্বকাপের ইতিহাসেই পাকিস্তানের বিপক্ষে ভারতীয় কোন ব্যাটসম্যানের প্রথম সেঞ্চুরি। আজ প্রোটিয়াদের বিপক্ষেও নিশ্চই জ্বলে উঠতে চাইবেন তিনি।

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে আজ শক্তিশালী ভারতের মুখোমুখি হবে দক্ষিণ আফ্রিকা। বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার বড় অস্ত্র পেসার। ডেল স্টেইন-মরনে মরকেল এবং ভারনন ফিল্যান্ডরদের মতো শক্তিশালী পেস বোলিংয়ে ভারতকে বিধ্বস্ত করার পরিকল্পনা করছে প্রোটিয়ারা। যার নেতৃত্বে আছেন দেশটির অভিজ্ঞ পেসার ডেল স্টেইন। ৩১ বছর বয়সী এই দক্ষিণ আফ্রিকান সাইনোসাইটিস সমস্যায় ভোগছিলেন তিনি। তবে সেই সমস্যা থেকে মুক্তি পেয়ে ডেল স্টেইন এখন ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের জন্য পুরোপুরি ফিট। তাকে নিয়ে এখন আর কোন সমস্যা নেই বলে সরাসরি জানিয়ে দিয়েছেন প্রোটিয়াদের কোচ রাসেল ডোমিনগো। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সে এখন খুবই ভাল। তাকে নিয়ে আমাদের উদ্বিগ্ন হওয়ার আর কিছুই নেই।’

বিশ্ব ক্রিকেটের শক্তিশালী দল দক্ষিণ আফ্রিকা। এ বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। কিন্তু দুর্ভাগ্য এখন পর্যন্ত স্বপ্নের বিশ্বকাপের ট্রফিটা ছুঁয়া হয়নি তাদের। তবে এবার সেই স্বপ্নে বিভোর প্রোটিয়ারা। সেক্ষেত্রে বড় ভূমিকা রাখতে হবে ডেল স্টেইনকেই। কেননা দেশের অভিজ্ঞ বোলার তিনি। ৯৭ ম্যাচ খেলে ১৫২ উইকেট দখল করেছেন এই পেসার। কিন্তু বিশ্বকাপের আগে হঠাৎ করেই সাইনোসাইটিস সমস্যায় পড়ায় তাকে নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকা। বিশ্বকাপের আগে দুই প্রস্তুতি ম্যাচের একটিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাত্র সাত ওভার বল করেছিলেন তিনি। আর দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে সহআয়োজক নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তো বিশ্রামেই রাখা হয় তাকে। তবে বিশ্বকাপের মূল মঞ্চে নিজেদের প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে ঠিকই খেলতে নামেন স্টেইন। যদিওবা নিজেকে মেলে ধরতে ব্যর্থ হন তিনি। সেই ম্যাচে ৯ ওভার বলে করে প্রতিপক্ষকে ৬৪ রান উপহার দেন এই প্রোটিয়াস পেসার। বিনিময়ে মাত্র এক উইকেট দখল করেন তিনি। তবে আজ ভারতের বিপক্ষে ম্যাচটি তাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। যে কারণে দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ রাসেল ডোমিনগো ডেল স্টেইনকে নিয়ে খুবই আশাবাদী। তার ধারণা প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে জ্বলে উঠতে না পারলেও ভারতের বিপক্ষে ঠিকই নিজের জাত চেনাবেন স্টেইন। আর স্টেইনকে নিয়ে সতর্ক প্রতিপক্ষও। যে কারণে সতীর্থদের ম্যাচের আগেই সতর্ক করে দিয়েছেন ভারতের সহঅধিনায়ক বিরাট কোহলি। যার সঙ্গে আইপিএলে রয়াল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালোরর হয়ে তিন বছর খেলেছেন তিনি। কিন্তু আইপিএলের সৌজন্যে একই ড্রেসিংরুমে থাকার অভিজ্ঞতা এবং দারুণ বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে উঠলেও মাঠের লড়াইয়ে কিন্তু ছেড়ে কথা বলবেন না ডেল স্টেইন। খোদ বিরাট কোহলিই তা জানিয়ে দিয়েছেন এক সাক্ষাতকারে।

প্রকাশিত : ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২২/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: