আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

উল্লাস-টিএসসি থেকে সুদূর ক্যানবেরা

প্রকাশিত : ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

ফজলুল বারী, মানুকা ওভাল, ক্যানবেরা থেকে ॥ এক সঙ্গে এত বাংলাদেশীর উজ্জ্বল উপস্থিতি এর আগে কী কখনও দেখেছে ক্যাঙ্গারুর শহর ক্যানবেরা? সঙ্গে এত লাল সবুজ পতাকার প্রাণের দুলুনি? সব মানুষের পরনে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের জার্সি! বাঘের গর্জনের মতো সবার মুখে বুলন্দ আওয়াজ, বাংলাদেশ! বাংলাদেশ!! উৎসব মুখর এত বর্ণিল মানুষজন! এখানে যে প্রশ্নগুলো করা হয়েছে এর সবার একটাই উত্তর, না!’ এমন আর কখনও দেখেনি অস্ট্রেলিয়ার রাজধানী শহর শুধু না। দেখেনি সারা অস্ট্রেলিয়া! অস্ট্রেলিয়ানদের মনে এ এক উজ্জ্বল স্মৃতি সৃষ্টি করে দিল টিম বাংলাদেশ এবং ক্রিকেট। যার কিছু ছবি বুধবার মানুকা ওভালের দায়িত্বপ্রাপ্ত টিভি ক্রুর দল। বিদেশে বসে দেশকে দেখার ভালবাসার এমন সুযোগ সহজে মেলে না। আবেগে অনেককে চোখ মুছতেও দেখা গেছে বুধবারের মানুকা ওভালে।

সিডনি মর্নিং হেরাল্ডের সাংবাদিক ইমন ম্যাথুস অন্য একটি কাজে ক্যানবেরা এসেছিলেন। মানুকা ওভালের বিশাল ক্রিকেট উৎসব দেখতে এদিকটায় ঘুরে যান। জানতে চান এত বাংলাদেশী কোত্থেকে এলো ক্যানবেরায়? সিডনিসহ নানান শহর থেকে গাড়ির বহর নিয়ে আসার কাহিনী শুনে অবাক ইমন! মানুকা ওভালে বুধবার খেলা দেখেছেন ১০ হাজার ৭২৬ জন। এর নব্বই শতাংশই ছিলেন বাংলাদেশী। দেশকে এত ভালবাসে আর দেশের মানুষ? বুধবার সপ্তাহের কাজের দিনে অফিস থেকে ছুটি নিয়ে কত কাহিনী করে আসতে হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশীদের সিংহভাগ বয়সে তরুণ। বেশিরভাগের বয়স ত্রিশ-পয়ত্রিশের কোঠায়! এরা এখানে পড়তে এসে অভিবাসন নিয়েছেন অথবা এখনও পড়ছেন। এদেশের বেশির ভাগ কাজে কাজ না করলে টাকা নেই। এর মানে শুধু কাজ না করাতেই দেড়-দুই শ’ ডলারের গচ্চা! খেলাকে কেন্দ্র করে যে সবার আরও কত রকমের খরচ! এসব নিয়ে কেউ ভাবেননি! এসব নিয়ে ভাবলে দেশকে ভালবাসা যায় না। খুব ছোট বাচ্চাদের নিয়ে পরিবারগুলোও এসেছিল। বাচ্চাদেরও পরানো হয়েছে বাংলাদেশের জার্সি। এসব বাচ্চাদের কোলে নিয়ে রানে রানে বা বলে বলে মায়েদেরও যে কী আনন্দ অথবা উদ্বেগ বলে বোঝাবার নয়! শুধুই অনুভবের!

আরেক কারণে বুধবার খবর হয়েছে মানুকা ওভাল! সিডনিসহ আশপাশের নানা শহর থেকে যত বাংলাদেশী পরিবার খেলা দেখতে ক্যানবেরা এসেছেন, তাদের অনেকে গাড়ি পার্কিংয়ের নিয়মের পরোয়া করেননি! দুই ঘণ্টার পার্কিং এলাকায় গাড়ি রেখে স্টেডিয়ামে ঢুকে খেলায় যে বুদ হয়েছেন, বাইরে কী হচ্ছে তা আর খোঁজ নিতে যাননি! আর এ অবস্থা পেয়ে নিয়মভঙ্গের অপরাধে গাড়িতে গাড়িতে ফাইনের টিকেট ঝুলিয়ে দিয়ে গেছে কাউন্সিলের রেঞ্জার! গাড়ি প্রতি ৯৬ ডলারের ফাইন! বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং শেষে ইনিংস বিরতিতে গাড়ির কাছে গিয়ে নোটিস দেখে মাথায় বাজ পড়ার ঘটনা সত্ত্বেও সবাই কী দিব্যি আবার মজে গেছেন খেলায়!

বাংলাদেশের ব্যাটিং ইনিংসের সাকিব-মুশফিক জুটি সৃষ্টির আগে অনেকের মনে ভয় ধরে গিয়েছিল! আবার বোলিং ইনিংসের শুরুতে মাশরাফি-রুবেলের উইকেট প্রাপ্তির আনন্দ-উল্লাস ধবনি কী ক্যানবেরা থেকে বাংলাদেশ পর্যন্ত পৌঁছেছে? হয়তোবা। এখন তো সবাই সবকিছু লাইভ দেখেছেন টিভিতে অথবা ফেসবুক-টুইটারের ভিডিও আপলোড-ডাইনলোডে! উইকেট পতন মাঝে শ্লথগতির হলে আবার কিছুটা হতাশার মেঘও তৈরি হয়! আবার নবির উইকেট পড়ার পর বিতাড়িত হয় উদ্বেগ! সারা মানুকা ওভাল আবার ফেটে পড়ে বাংলাদেশ বাংলাদেশ আনন্দধ্বনিতে। বাংলাদেশের খেলা নিয়ে এক প্রিয় প্রজন্ম এম মিজানুর রহমান নিশানের মন্তব্য ছিল মানুকা ওভালে ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিংয়ে যে টিম স্প্রিরিট বাংলাদেশ দেখিয়েছে তা ধরে রাখতে পারলে এই বিশ্বকাপে অনেক দূর যাবে বাংলাদেশ দল।

মানুকা ওভাল থেকে ফেরার পথে শুধু উৎসব দেখতে হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশীরা এমন উৎসব আর দেখেনি। এমন উৎসব কী আরও দেখার সুযোগ হবে? এরচেয়ে মিলিয়ন ডলারের প্রশ্ন কী আর হতে পারে?

এদিকে বাংলাদেশের বিশাল জয়ে উৎসবের নগরীতে পরিণত হয় ঢাকা। টিএসসি চত্বরে মোটর সাইকেল শোভাযাত্রা, র‌্যালি ও মিছিল করেছেন ছাত্র-ছাত্রী, ক্রিকেটপ্রেমী মানুষ।

প্রকাশিত : ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১৯/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: