মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১০ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

আরও ভালর প্রত্যয় নিউজিল্যান্ডের

প্রকাশিত : ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
আরও ভালর প্রত্যয় নিউজিল্যান্ডের
  • তৃতীয় ম্যাচে কিউদের প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড

জিএম. মোস্তফা ॥ শক্তিশালী শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে বিশ্বকাপের মিশন শুরু করে নিউজিল্যান্ড। দ্বিতীয় ম্যাচে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষেও জয় তুলে নেয় ব্ল্যাক ক্যাপসরা। যদিওবা স্কটিশদের বিপক্ষে জেতার জন্য ঘাম ঝড়াতে হয়েছে কিউদের। তবে পরের ম্যাচে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্বকাপে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হলে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং বিভাগকে আরও উন্নতি করতে হবে। নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম ঠিক তেমনটিই মনে করছেন। এ বিষয়ে ম্যাককুলাম বলেন, ‘বল হাতে কিউই ক্রিকেটাররা বেশ ভাল পারফর্মেন্স উপহার দিচ্ছে। তবে ব্যাট হাতে আমরা কেউ কোন ঝলক দেখাতে পারিনি। তাই আমাদের আরও উন্নতি করতে হবে।’

মঙ্গলবার একমাত্র ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল স্কটল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড। কিউদের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করে মাত্র ১৪২ রান করে। জবাবে অর্ধেক ওভার হাতে রেখেই জয়ের দেখা পায় কিউইরা। কিন্তু তারপরও ৭ উইকেট হারাতে হয়েছে নিউজিল্যান্ডকে। অথচ টুর্নামেন্টের সবচেয়ে ছোট দল হিসেবে বিবেচিত স্কটল্যান্ড। যারা র‌্যাঙ্কিংয়ের ১৪তম দল হিসেবে বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পেয়েছে। এদিন ডানেডিন ইউনিভার্সিটি ওভালে অনুষ্ঠিত ম্যাচের শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়েছিল স্কটল্যান্ড। কিউই বোলিংয়ের রোষানলে পড়ে মাত্র ১২ রানে চার উইকেট হারিয়ে বসে টুর্নামেন্টের সর্বকনিষ্ঠ দলটি। দুটি করে উইকেট লাভ করেন নেন ট্রেন্ট বোল্ট ও টিম সাউদি। তবে শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়ার পরও স্কটিশদের ১৪২ রানের সংগ্রহকে সাধুবাদ জানান ম্যাককুলাম। আর এতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন ম্যাট মাচান ও রিচি বেরিংটন। পঞ্চম উইকেট জুটিতে ম্যাট মাচান (৫৬) ও রিচি বেরিংটন (৫০) ৯৭ রান যোগ করেন। প্রতিপক্ষ দলকে সাধুবাদ জানানোর পাশাপাশি বোল্ট ও সাউদির বোলিংয়েরও প্রশংসা করেছেন কিউই অধিনায়ক। এ বিষয়ে ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম বলেন, ‘যে ভাবে তারা ম্যাচটিকে আঁকড়ে ধরেছে এ জন্য তাদের সাধুবাদ জানাতেই হয়। তবে আমরা এটিও দেখেছি বোল্ট ও সাউদি কত কার্যকর বোলিং করেছে।’

বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতিটাও ভাল হয়েছিল নিউজিল্যান্ডের। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজ জিতে মূল মঞ্চের লড়াইয়ে নামে তারা। প্রথম দুটিতেও জিতে জয়ের ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছে ব্ল্যাক ক্যাপসরা। আর তাতে সন্তুষ্ট ২০১৫ বিশ্বকাপের সহযোগী আয়োজকরা। এ বিষয়ে গ্র্যান্ট ইলিয়ট বলেন, ‘দারুণ রান রেট নিয়েই আমরা স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে জয় পেয়েছি। এটাই ছিল আমাদের মূল উদ্দেশ্য। আপনি গত এক মাস আমাদের ফলাফলের দিকে তাকান। সকলেই ধারাবাহিক পারফর্মেন্স উপহার দিয়েছে।’ সন্তুষ্ট কিউই কোচ মাইক হ্যাসনও, ‘আমাদের প্রথম কাজ ছিল ম্যাচটা জেতা। সেটাই আমরা করেছি। এখানকার পিচটা ছিল ব্যাটসম্যানদের জন্য চ্যালেঞ্জিং। আমি মনে করি আমাদের সর্বশেষ ত্রিশ ওয়ানডে ম্যাচের মতো স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচেও ব্যাটিং ইউনিটির বহির্প্রকাশ ঘটেছে। এছাড়া বিশ্বকাপের প্রথম সপ্তাহটা আমাদের জন্য কঠিনই বলতে হবে।’

স্বাগতিকদের বিপক্ষে হারলেও নিজেদের পারফর্মেন্স সন্তুষ্ট স্কটল্যান্ড। তবে প্রথম সারির ব্যাটসম্যানদের দ্রুত পতন না ঘটলে স্কোরবোর্ড আরও সমৃদ্ধ হতো বলে মনে করেন স্কটিশ অধিনায়ক প্রিস্টন মমসেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের জন্য সূচনাটা ছিল ভয়াবহ। তারা কন্ডিশনকে ভালভাবে কাজে লাগিয়ে চমৎকার বোলিং করেছেন। ধারণার চেয়ে কিছুটা বেশি কাজ করেছে বলগুলো। তবে দলের হয়ে চমৎকার ব্যাট করেছেন ম্যাট ও রিচি। তারা যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন। তারপরও দুর্ভাগ্যবশত আমরা শুরুর বিপর্যয় পুরোপুরি কাটাতে পারিনি। বোলিংয়ে আমরা স্বাগতিক দলের শেষ তিনটি উইকেট শিকার করতে না পারলেও তাদের পারফর্মেন্সে আমরা গর্বিত।’

আগামী শুক্রবার ওয়েলিংটনে ইংল্যান্ডের মোকাবেলা করবে নিউজিল্যান্ড। আর এই ম্যাচটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিচ্ছেন ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ইংল্যান্ড সত্যিকার অর্থেই আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। কারণ তারা (অস্ট্রেলিয়ার কাছে ১১১ রানে হেরে) বিক্ষুব্ধ অবস্থায় রয়েছে। এদের হারানোটা বেশ কঠিন হবে। ওই ম্যাচে দুর্দান্তভাবে খেলতে হবে আমাদের।’ সেই ম্যাচে ইংলিশদের হারাতে পারলে টানা তিন ম্যাচের সব জয়ের দেখা পাবে নিউজিল্যান্ড।

প্রকাশিত : ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১৯/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: