রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

কাজ নেই ভৈরবে ॥ শূন্য হাতে বাড়ি ফিরছে দিনমজুররা

প্রকাশিত : ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভৈরব, ১৭ ফেব্রুয়ারি ॥ ভৈরবসহ কিশোরগঞ্জের হাওরাঞ্চল কুলিয়ারচর, বাজিতপুর, অষ্টগ্রাম ও মিঠামইন উপজেলার সাধারণ দিন মজুরের হাতে এখন কোন কাজ নেই। হরতাল-অবরোধে তাদের পরিবারে নেমে এসেছে অভাব। খেয়ে না খেয়ে চলছে তাদের দিন। বিরোধীদলের আন্দোলনে গরিব মানুষ কষ্ট পাচ্ছে। এ হরতাল ও অবরোধ বন্ধ করতে তাদের আকুতি সরকার ও ২০ দলীয় নেত্রীর কাছে।

উত্তরাঞ্চলসহ রংপুর, দিনাজপুর এলাকার অনেক মানুষ ধান কাটার কাজ না পেয়ে দিশেহারা হয়ে কাজের সন্ধানে ভৈরব এসে ভিড় জমাচ্ছে। কাজের সন্ধানে এসেছে রফিক মিয়া, হালিম মিয়া, লোকমান। ১৫Ñ১৬ জনের এ দলের সঙ্গে মঙ্গলবার দুপুরে কথা হয় ভৈরব বাসস্ট্যান্ড এলাকায়। তারা এসেছে রংপুর, দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম জেলার বিভিন্ন অঞ্চল থেকে। তাদের এলাকায় কাজ নেই। কাজ করতে হাওরাঞ্চলে যায়। কিন্তু সেখানে কাজ নেই। হরতালের কারণে কাজ জুটেনি। পেট্রোলবোমার আতঙ্কে কেউ ঘর থেকে বের হয় না। তাদের ছেলে-মেয়ে স্ত্রীদের নামমাত্র খাবারের টাকা দিয়ে এসেছিল। এ অঞ্চলে কাজ করে অর্থ নিয়ে তাদের মুখে হাসি ফুটানোর কথা ছিল। কিন্তু বিরোধী রাজনৈতিক দলের টানা অবরোধ ও হরতাল তাদের সেই স্বপ্ন ভেঙ্গে দিয়েছে। ৩ দিন ধরে ভৈরবে অবস্থান করছে।

কাজ প্রত্যাশী শ্রমজীবীদের ভিড় এখন ভৈরব শহরের শ্রম বিক্রির হাটে। শহরে কাজ না থাকলেও শ্রমজীবী মানুষ কাজের সন্ধানে ভৈরবের শ্রম বিক্রির হাটগুলোতে বসে থাকে। ভৈরব জগনাথপুর, বেনিবাজার, ফেরিঘাট, বাসস্ট্যান্ড, ভৈরব বাজারসহ আগানগর, শিমুলকান্দি এলাকার শ্রম বিক্রির হাটগুলোতে কাজের সন্ধানে আসা মানুষের ভিড় দেখা যায়।

কুড়িগ্রামের রশিদ মিয়ার আর্তি ‘মোক কাজ জুটি দাও বাহে’ হরতাল বন্ধ কর বাহে’। তার ঘরে ৮ ছেলে মেয়ে। অভাবের সংসার। একই এলাকার হজরত মিয়া জানান, ৩ দিন ঘুরে কোথাও কোন কাজ পাননি। অর্থাভাবে এখন ভৈরব রেলস্টেশনের বারান্দায় রাত কাটাচ্ছে। আম্বর আলী এসেছে রংপুর থেকে। তিনি জানালেন, কাজ নেই, তার পরও বাড়ি যেতে পারছি না। বোমা আতঙ্কে। কাজের সন্ধানে ভৈরব এসেছে, এখানেও কাজ নেই। কাজের আশায় পৌর শহর ছাড়াও বিভিন্ন হাটবাজারে দলবদ্ধ হয়ে যাচ্ছে শ্রম বিক্রির আশায়। কেউ কেউ কাজ পাচ্ছে আবার অনেকে হচ্ছে নিরাশ।

আশুলিয়ায় সোয়েটার কারখানা বন্ধ ঘোষণা

নিজস্ব সংবাদদাতা, সাভার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ॥ সারাদেশব্যাপী বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলের ডাকা চলমান অবরোধ ও হরতালে বিদেশ থেকে কাজের অর্ডার না আসায় আশুলিয়ায় একটি সোয়েটার কারখানা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে মালিকপক্ষ।

মঙ্গলবার সকালে আশুলিয়ার জিরাবোর বটতলা এলাকার ‘সাউদার্ন’ সোয়েটার কারখানায় তিন শতাধিক শ্রমিককে এক মাস ১৬ দিনের বেতন পরিশোধ করে কারখানা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে প্রধান ফটকে নোটিস টাঙিয়ে দেয় কর্তৃপক্ষ।

কারখানা কর্তৃপক্ষ জানায়, চলমান অবরোধ-হরতালে বিদেশ থেকে কাজের অর্ডার না আসায় কারখানাটির তিন শতাধিক শ্রমিককে বেতন পরিশোধ করে মঙ্গলবার থেকে কারখানা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়। হরতাল-অবরোধ বন্ধ হলে ও বিদেশ থেকে কাজের অর্ডার এলে পুনরায় কারখানা চালু করা হবে।

প্রকাশিত : ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১৮/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: