কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রাতে নাশকতা ঘাটাইলে বাসে পেট্রোলবোমা ও রাজশাহীতে বোমা হামলায় ৭ দগ্ধসহ আহ

প্রকাশিত : ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫, ১২:৪৫ এ. এম.

স্টাফ রিপোর্টার ॥ চলমান অবরোধের মধ্যেই ডাকা হরতালেও সারাদেশের জীবনযাত্রায় প্রভাব পড়েনি। লাগাতার অবরোধ-হরতালে অতিষ্ঠ মানুষ স্বাভাবিক কর্মযজ্ঞ চালিয়ে যাচ্ছে। বোঝাই যাচ্ছে না, দেশে অবরোধ-হরতালের মতো কোন কর্মসূচী চলছে কিনা! রাজধানীতে ছিল তীব্র যানজট। খোদ প্রধানমন্ত্রীকেও যানজটের কবলে পড়ে তিন দফায় আটকে থাকতে হয়েছে। ঢাকার সঙ্গে সারাদেশের ট্রেন, লঞ্চ ও দূরপাল্লার যানবাহনের চলাচল ছিল একেবারেই স্বাভাবিক। শুধু রাতের বেলায় আতঙ্কের কারণে জামায়াত-শিবিরের প্রভাব থাকা জেলাগুলোতে যানবাহন চলাচল খানিকটা বিঘিœত হচ্ছে। সোমবার গুলশান খালেদা জিয়ার কার্যালয় ঘেরাওকালে নাশকতাকারীদের বোমা হামলায় অবরোধ-হরতালবিরোধী ১১ জনকে আহত করাসহ সারাদেশে বিচ্ছিন্নভাবে চোরাগোপ্তা হামলা চালিয়ে অবরোধ-হরতাল কর্মসূচী পালন করেছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট।

রাত সাড়ে আটটার দিকে রাজধানীর ধোলাইপাড়ে হরতাল সমর্থকরা বোরাক পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন দেয়। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। দমকল বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিভিয়ে ফেলে। প্রায় একই সময়ে বগুড়ার শাহজাহানপুরে পণ্যবাহী ট্রাকে, টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে যাত্রীবাহী বাসে পেট্রোলবোমা হামলা হয়েছে। গাড়িতে আগুন লেগে ৭ জন দগ্ধসহ ২০ জন আহত হয়েছে। বাসটি মধুপুর থেকে ঢাকা আসছিল। রাত সোয়া আটটার দিকে কুমিল্লায় চান্দিনায় যাত্রীবাহী বাসে পেট্রোলবোমা মেরেছে অবরোধ-হরতাল সমর্থকরা। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। পাপিয়া পরিবহনের বাসটি দাউদকান্দি থেকে কুমিল্লা যাচ্ছিল। বগুড়ার শাহজাহানপুরে ট্রাকে পেট্রোলবোমায় আহত চালক কাদের ও হেলপার লিটন কাজীকে রাতেই বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রাজশাহীর বিনোদপুরে আকিব পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসে বোমা হামলা হয়েছে। এতে বাসের সুপারভাইজার ওমর ফারুক ও হেলপার সুমন আহত হয়েছে। সারাদেশে চলমান বিশেষ অভিযানে নাশকতাকারী তাদের মদদ, অর্থ, আশ্রয়-প্রশ্রয় ও নির্দেশ দেয়ার সঙ্গে জড়িত বিএনপি-জামায়াত-শিবির ও ভাড়াটে সন্ত্রাসীসহ দেড় শতাধিক গ্রেফতার হয়েছে। উদ্ধার হয়েছে ককটেল ও পেট্রোলবোমা।

হরতাল-অবরোধে ঢাকার চিত্র ॥ স্বাভাবিক কর্মদিবসের মতো ছিল রাজধানীর চিত্র। অফিস, আদালত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা ছিল। এসব জায়গায় উপস্থিতিও ছিল স্বাভাবিক দিনের মতো। রাজধানীজুড়ে ছিল তীব্র যানজট। যানজটের কারণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাড়িবহরকে তিন দফায় থামতে হয়েছে। সকাল পৌনে দশটার দিকে গণভবন থেকে সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত সাপ্তাহিক বৈঠকের উদ্দেশে রওনা হন প্রধানমন্ত্রী। সকাল দশটায় বৈঠকের নির্ধারিত সময় ছিল। প্রধানমন্ত্রীর ডেপুটি প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন জানান, যাত্রার আধঘণ্টা আগে প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহর যাওয়ার রাস্তাটি ফাঁকা করার বিধান রয়েছে। কিন্তু তীব্র যানজটের কারণে প্রাণান্তকর চেষ্টা করেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষে সে কাজটি করা সম্ভব হয়ে উঠেনি। ফলে প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহরকে ফার্মগেট, বাংলামোটর ও কাকরাইল মসজিদের কাছে তিন দফায় যানজটের কবলে পড়তে হয়।

এছাড়া রাজধানীর মহাখালী, গাবতলী ও সায়েদাবাদ থেকে নিয়মিত দূরপাল্লার বাস ছেড়ে গেছে। ট্রাক ও পণ্যবাহী অন্যান্য যানবাহনও যাতায়াত করেছে। তবে যাত্রীবাহী বাসে তুলনামূলকভাবে যাত্রীর সংখ্যা কিছুটা কম ছিল। কমলাপুর থেকে ট্রেন আর সদরঘাট থেকে লঞ্চও ছেড়ে গেছে যথাসময়ে।

এছাড়া বিকেলে রাজধানীর বাড্ডা লিংক রোডে তুরাগ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন দেয় অবরোধকারীরা। যদিও কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। অন্যদিকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সামনের রাস্তায় একটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় অবরোধকারীরা। এদিকে রাজধানীতে চলমান বিশেষ অভিযানে সোমবার বিকেলে পুরান ঢাকার জনসন রোড থেকে অভিনেতা হেলাল খানসহ ৩০ জনকে গ্রেফতার হয়েছে।

গাজীপুর ॥ ভোরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের তেলিপাড়া এলাকায় দাঁড়িয়ে থাকা গার্মেন্টস শ্রমিকবাহী একটি বাসে পেট্রোল ঢেলে আগুন দেয় অবরোধকারীরা। তবে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। দুপুরে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় কালিয়াকৈর পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাসে পেট্রোলবোমা মারে অবরোধকারীরা। বাস থেকে নামতে গিয়ে অন্তত ৫ যাত্রী আহত হন।

বগুড়া ॥ সকালে জেলার ঠনঠনিয়া বাস টার্মিনালের কাছেই শেরপুর রোডে ঢাকা থেকে বগুড়াগামী বাবলু পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসে পেট্রোলবোমা হামলা করে অবরোধকারীরা। এছাড়া রবিবার রাত আড়াইটার দিকে শিবগঞ্জের মোকামতলা এলাকায় বাহারপুর স্কুলের সামনে কুড়িগ্রাম থেকে ঢাকাগামী গরু বোঝাই ট্রাকে পেট্রোলবোমা মারে। পুলিশ দ্রুত আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। তবে আগুনে চালক সেলিম (৪৫) ও গরু ব্যবসায়ী আব্দুল কাদের (৫৩) দগ্ধ হন। এর আধঘণ্টা পরই শেরপুর উপজেলা সদরে ভূমি অফিসে আগুন দেয় অবরোধকারীরা। স্থানীয়রা আগুন নিভিয়ে ফেলে। নাশকতার মামলায় জেলা জামায়াত নেতা জাহেদুর রহমানসহ ১৩ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

চট্টগ্রাম ॥ মহানগরী ও জেলার মহাসড়কে যানবাহনের চলাচল ছিল স্বাভাবিক দিনের মতোই। সোমবার দুপুর একটার দিকে কালুরঘাটগামী একটি যাত্রীবাহী বাসে ককটেল হামলার ঘটনায় নাসির উদ্দিন চৌধুরী (৫৬) নামে এক যাত্রী আহত হন। এছাড়া রবিবার রাতে নগরীর আতুরার ডিপো এলাকায় একটি মিনিবাস ও একটি প্রাইভেটকার লক্ষ্য করে পেট্রোলবোমা মারে সন্ত্রাসীরা। এতে কামরুল আলম (৫২) নামে এক বাসযাত্রী দগ্ধ হন। পুলিশ লোকমান নামের একজনকে আটক করে। এছাড়া মহানগরীর বিভিন্ন জায়গায় বিশেষ অভিযানে ছাত্রশিবিরের চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ শাখার সভাপতি নুরুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ হাবিবসহ শিবিরের ৪ নেতাকর্মীসহ ১৯ জন এবং জেলার মীরেরসরাই থেকে ১৪ জন মোট ৩৩ জন গ্রেফতার হয়েছে।

সিলেট ॥ সোমবার দুপুর একটার দিকে মহানগরীর মিরের ময়দান এলাকায় একটি সিএনজিতে ককটেল হামলা চালালে চালক সৈয়দ আহম্মেদ (৩৭), নাফিজা ১৮ মাস ও হাফিজুর ৬ বছর নামে দুই শিশু আহত হয়। তাদের সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এছাড়া দেশব্যাপী পরিচালিত বিশেষ অভিযানে বাগেরহাট জেলার কচুয়া উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়ন জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল একাধিক মামলার আসামি মওলানা মাহাতাব উদ্দিন সিকদারসহ ৫ জন, বরিশালের গৌরনদীর জামায়াত সেক্রেটারি জাকির মাওলানা, ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলা থেকে বিএনপি ও ছাত্রদলের ৫ নেতাকর্মী, নোয়াখালী থেকে শহর ছাত্রদলের সভাপতি মিজানুর রহমান, নোয়াখালী সরকারী কলেজ শাখা ছাত্রদল সভাপতি আজগর উদ্দিন দুখু, জেলা তরুণ দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সায়েদ জুয়েল ও শহর যুবদল নেতা সাইফুল ইসলাম সবুজসহ বিএনপি-জামায়াতের ১৫ নেতাকর্মী, গাইবান্ধা থেকে বিএনপি-জামায়াত-শিবিরের ১৮ জন, চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা থেকে ১ জন, নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ থেকে পৌর বিএনপির ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক মঞ্জিল মিয়া, রাজশাহী থেকে ১১টি পেট্রোলবোমাসহ ৪৩ জন, নারায়ণগঞ্জ বন্দর পৌর বিএনপির সভাপতি নূর মোহাম্মদ পনেছ, মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার করমদী গ্রামের সাপোড়পাড়া এলাকার একটি তামাক ঘরে বিস্ফোরণস্থল থেকে চারটি পেট্রোলবোমা, তিনটি ককটেল ও বিস্ফোরিত দুটি ককটেলের আলামত উদ্ধারসহ সারাদেশ থেকে দেড়শতাধিক গ্রেফতার হয়েছে। উদ্ধার হয়েছে পেট্রোলবোমা, ককটেল ও বোমা তৈরির সরঞ্জাম। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে নাশকতাকারী ছাড়াও তাদের মদদ, আশ্রয়-প্রশ্রয়-অর্থ ও নির্দেশদাতা বিএনপি-জামায়াত-শিবির ও পেশাদার ভাড়াটে সন্ত্রাসী রয়েছে।

প্রকাশিত : ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫, ১২:৪৫ এ. এম.

১৭/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: