আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৭ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বঙ্গবন্ধুর প্রেস সচিব বাদশাকে মায়ের কবরের পাশে দাফন

প্রকাশিত : ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, কুষ্টিয়া, ১৬ ফেব্রুয়ারি ॥ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রথম প্রেসসচিব, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও প্রখ্যাত সাংবাদিক আমিনুল হক বাদশার লাশ কুষ্টিয়ায় পারিবারিক গোরস্তানে মায়ের কবরের পাশে দাফন করা হয়েছে। সোমবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে জানাজা শেষে বিকেল সাড়ে পাঁচটায় বাদশার মরদেহ ঢাকা থেকে কুষ্টিয়ায় নিয়ে আসা হয়। এরপর শহরের কোর্টপাড়া এলাকায় মরহুমের পৈত্রিক বাড়ির সামনে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য লাশ কিছুক্ষণ রাখা হয়। এ সময় রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, প্রশাসনের কর্মকর্তাসহ বিপুল সংখ্যক মানুষ পুষ্পস্তবক অর্পণ করে মরহুমের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে কুষ্টিয়া জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে মরহুমের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে জাতীয় সংসদের হুইপ সোলাইমান জোয়ার্দার এমপি, মরহুমের ভাই সাবেক সচিব খন্দকার রশিদুল হক নবা, বসুন্ধরা গ্রুপের উপদেষ্টা খন্দকার কামরুল হক, কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেন, পুলিশ সুপার প্রলয় চিসিম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ সদর উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী, পৌর মেয়র আনোয়ার আলীসহ বিভিন্ন স্তরের বহু মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সাংবাদিকসহ সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য দুপুর ১২টা পর্যন্ত তার মরদেহ প্রেসক্লাবেই রাখা হয়। জানাজা শুরুর আগে বক্তব্য রাখেন মরহুমের ভাই রাশেদুল হক নবা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন নৌমন্ত্রী শাজাহান খান, প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, বিএফইউজের একাংশের সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, মহাসচিব আব্দুল জলিল ভুঁইয়া, ডিইউজের একাংশের সভাপতি আলতাফ মাহমুদ, বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজামসহ সাংবাদিক নেতারা।

আমিনুল হক বাদশা গত ১০ ফেব্রুয়ারি লন্ডনে মারা যান। তাঁর প্রথম জানাজা ও নাগরিক শোকসভা গত ১৩ ফেব্রুয়ারি লন্ডনের ব্রিকলেন জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। রবিবার বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে তার মরদেহ দেশে আনা হয়।

প্রকাশিত : ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১৭/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



ব্রেকিং নিউজ: