কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

বোকো হারামের বিরুদ্ধে আঞ্চলিক লড়াই শুরু

প্রকাশিত : ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • নাইজিরিয়ার সঙ্গে যোগ দিয়েছে ক্যামেরুন নাইজার ও শাদ

নাইজিরিয়া, ক্যামেরুন, নাইজার ও শাদ বোকো হারামের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে মধ্য আফ্রিকায় শুরু করেছে এক আঞ্চলিক যুদ্ধ এবং এ যুদ্ধে সহায়তার ভূমিকা রাখছে ফ্রান্স, আমেরিকা ও ব্রিটেন। খবর টেলিগ্রাফ অনলাইনের।

শাদের রাজধানী এনজামিনায় অবতরণের আগে ঘুরপাক খাওয়া বাদামি স্রোত বয়ে যাওয়া চারি নদীর আকাশে সশব্দে ঘুরতে দেখা যায় বিপুলসংখ্যক রকেটসহ একটি এমআই টুয়েন্টি ফোর হেলিকপ্টার গানশিপকে। এর কয়েক মুহূর্ত পর ফরাসী বিমানবাহিনীর অহঙ্কার দুটি অত্যাধুনিক রাফালে জেট দেখা যায় আকাশে সেগুলোকে দেখা যায় একই বিমানবন্দরের দিকে অগ্রসর হতে। শাদের আকাশে সামরিক বিমানের এ অব্যাহত উড্ডায়নে বোঝা যাচ্ছে মধ্য আফ্রিকায় শুরু হয়ে গেছে এক নতুন আঞ্চলিক যুদ্ধ এবং যুদ্ধে অস্ত্র সহায়তাসহ জড়িত হচ্ছে পাশ্চাত্যের নেতৃস্থানীয় দেশগুলো। এরই প্রেক্ষাপটে মধ্য আফ্রিকার চারটি দেশের সেনাবাহিনী বোকো হারামের বিরুদ্ধে জড়িত হয়ে পড়ছে এ নতুন সংঘাতে। যদিও এ দৃশ্যপটের পেছনে ফ্রান্স, আমেরিকা ও ব্রিটেন পালন করছে সহায়তার ভূমিকা। এ যুদ্ধ শুরুর প্রথমদিন সোমবার শাদের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হবে ব্রিটেনসহ পাশ্চাত্যের ১৫টি দেশের বিশেষ বাহিনীগুলোর এক সামরিক মহড়া। বোকো হারামের কয়েকশ’ যোদ্ধা রবিবার উত্তর পূর্বাঞ্চলের অস্থিতিশীল নাইজিরীয় শহর গোম্বেতে হামলা শুরু করেছে। তারা নির্বিচারে গুলিবর্ষণ করে ভারি অস্ত্র থেকে এবং আগামী সাধারণ নির্বাচন বর্জনের জন্য বাসিন্দাদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে লিফলেট ছুড়েছে। এক সময় এ জিহাদীদের হত্যাযঞ্জের স্থল সীমিত ছিল নাইজিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলের অনুর্বর সমতল ভূমি। জঙ্গীরা এ অঞ্চলের শহরগুলোতে লুটতরাজ চালাত এবং হত্যা করত বেসামরিক লোকদের। কিন্তু গত বছরের শেষের দিকে বোকো হারামের জঙ্গীরা ক্যামেরুন ও নাইজার সীমান্ত সংলগ্ন নাইজিরিয়ার সীমান্ত এলাকায়ও হামলা চালিয়েছে। তারা গত শুক্রবার প্রথমবারের মতো শাদে একটি গ্রামে হামলা চালায় এবং হত্যা করে কমপক্ষে ৫ জনকে। এ হামলা থেকে আভাস পাওয়া যায়, বোকো হারাম এক জাতীয় হুমকি থেকে আঞ্চলিক হুমকিতে পরিণত হয়েছে। বন্দুকধারী এ জঙ্গীরা এর আগে ভীতি ছিল কেবল নাইজিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে। কিন্তু তারা এখন সীমান্ত সংলগ্ন তিনটি দেশের সীমান্ত বরাবর লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। শাদ গত মাসে এ লড়াইয়ে যোগ দিয়েছে। প্রেসিডেন্ট ইদ্রিস দিবাই ক্যামেরুন ও নাইজিরিয়ায় বোকো হারামের বিরুদ্ধে কয়েক হাজার সৈন্য পাঠিয়েছে।

প্রকাশিত : ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১৭/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

বিদেশের খবর



ব্রেকিং নিউজ: