কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

গণতন্ত্র রক্ষায় যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনের কথা জানালেন বার্নিকাট

প্রকাশিত : ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক

সংসদ রিপোর্টার ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে প্রথম সাক্ষাতে বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার ধারাবাহিকতা রাখতে যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনের কথা জানিয়েছেন মার্শা স্টিফেন্স ব্লুম বার্নিকাট। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের নতুন রাষ্ট্রদূতকে বলেছেন, তার সরকারও গণতন্ত্র রক্ষায় সক্রিয় রয়েছে। বাংলাদেশে রাজনৈতিক অস্থিরতার মধ্যে রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব নিয়ে আসা বার্নিকাট রবিবার সন্ধ্যায় সংসদ ভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন। সংসদ নেতার কার্যালয়ে তাদের বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব এ কে এম শামীম চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমেরিকার রাষ্ট্রদূত প্রধানমন্ত্রীকে বলেছেন, তারা বাংলাদেশের গণতন্ত্রকে মূল্যায়ন করেন। তারা আমাদের দেশে গণতন্ত্র রক্ষায় অঙ্গীকারাবদ্ধ এবং গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা দেখতে চান। প্রধানমন্ত্রী এ সময় বলেন, তার সরকার গণতন্ত্র রক্ষায় সকল পদক্ষেপ নেবে।

জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের সদস্যদের ভূমিকার প্রশংসাও করেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত। যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত বাংলাদেশীদের প্রশংসা করে তিনি তার দেশের অর্থনীতিতে তাদের অবদানের কথা স্বীকার করেন। সেই সঙ্গে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সত্যিকার অর্থে অংশীদারিত্ব রয়েছে উল্লেখ করে বার্নিকাট বলেন, ভবিষ্যতে এই সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হবে। নারীর ক্ষমতায়ন, শিক্ষাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসা করেন তিনি।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা অনেক সংগ্রাম ও আন্দোলন করে গণতন্ত্র অর্জন করেছি। এই গণতন্ত্র রক্ষা করতে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করব। তিনি বলেন, আমাদের অনেক দায়িত্ব রয়েছে। দেশটাকে উন্নয়নের দিকে নিয়ে যাচ্ছি। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বার্নিকাটকে সংসদ অধিবেশন দেখার আহ্বান জানান।

সংসদ সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রায় ৪০ মিনিট এ বৈঠক হয়। পরে মার্কিন রাষ্ট্রদূত প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে কিছু সময় সংসদ অধিবেশন প্রত্যক্ষ করেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী ও এক সিনিয়র সচিব উপস্থিত ছিলেন। পরে তিনি সংসদের ভিআইপি লাউঞ্জে গিয়ে অধিবেশন দেখেন। এ সময় রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আলোচনায় অংশ নিচ্ছিলেন সরকারী ও বিরোধী দলের এমপিরা। ওই ভাষণে তারা বিএনপি চেয়ারপার্সন ও তার জোটের ডাকা কর্মসূচীর কঠোর সমালোচনা করেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন আইএফপিআরআই-এর ডিজি শেনগিন। এ সময় তিনি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রের উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন। বিশেষ করে খাদ্য নিরাপত্তা ও সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীসহ বিভিন্ন উন্নয়নে সরকারের প্রশংসা করেন।

বৈঠকে তিনি ১৯৯৮ সালের বন্যার উদাহরণ তুলে ধরে বলেন, আমরা আশঙ্কা করেছিলাম ওই সময় অনেক মানুষের মৃত্যু হবে। কিন্তু সেটা হয়নি। খাদ্য নিরাপত্তার কারণেই এটা হয়নি বলে তিনি মন্তব্য করেন।

প্রকাশিত : ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১৬/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: