কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

অনলাইনে ভালবাসা

প্রকাশিত : ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • রেজা নওফল হায়দার

সিলভিয়া আর পরাগ প্রথম যেদিন দেখা হলো, তারও মাসখানেক আগে পরাগের এক পরিচিত ফেসবুক বন্ধুর শেয়ার করা ছবি থেকে সিলভিয়ার ছবিসহ এ্যাকাউন্টটা এসেছিল। কোন কিছু না ভেবেই সেদিন পরাগ একটা রিকোয়েস্ট সেন্ড করেছিল। সেই রাতেই সিলভিয়া পরাগের পাঠানো রিকোয়েস্ট দেখে ওর প্রফাইলে ঢুঁ মেরেছিল। পছন্দ হয়েছিল। পছন্দ হয়েছিল ওরই বেশি, পরাগ নিজের ওয়ালে লিখেছিল নিজের বানানো কিছু কবিতা। খুব সাধারণ লাইনগুলো, কিন্তু শব্দগুলো ছিল কেমন যেন আপন। সিলভিয়ার এখনও মনে আছে একটা লাইনের কথা।পরাগের ওয়ালে লেখা ছিলÑ ফেসবুকের হাজারও আইডি থেকে আমি নিজেকে রেখেছি খুলে, বন্ধুর আমন্ত্রণ পাই আর না পাই আমার দুয়ার রবে খোলা। যদি বন্ধু হও হাতটা বাড়াও।

সেই থেকে এমন দিন নেই যে, সিলভিয়া পরাগ ফেসবুকে চ্যাট করেনি। ফেসবুকে বিনামূল্যে কিছু ভাব প্রকাশ করার মতো স্টিকার পাওয়া যায়। সেগুলো সাধারণ ইমেজ দিয়ে বানানো হলেও, এ্যানিমেশনের ঝলকে হয়ে ওঠে প্রাণবন্ত । সেগুলোর ব্যবহার ছিল ওদের চ্যাটের মধ্যে। কতরকমের ইমেজ যে আছে, তা বলে শেষ করা যাবে না। আপনার খুব কষ্ট, বোঝাবার জন্য ছোট একটা এ্যানিমেশন। যার মধ্যে জনপ্রিয় টুজকি, মুঝে ইন লাভ, দি ইক্সটেবল ৩, টেক্স টক আরও অনেক মজার ফ্রি এ্যানিমেশন। আর এসব দিয়ে কথা না লিখেও মনের ভাষা প্রকাশ করা যায় অনায়াসে।

ভালবাসা দিবসকে সামনে রেখে অনলাইনে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান প্রচার করছে নানা রকমের মুখরোচক বিজ্ঞাপন। তার বাহারি রঙের ছোঁয়ায় অনলাইন দুনিয়া রংধনুর রঙে সেজেছে অনেক আগেই। আজকের ডিল নামে বাংলাদেশের অনলাইন শপ এরই মধ্যে বিভিন্ন অফার দিয়ে সাজিয়েছে তাদের ওয়েবসাইট। প্রত্যেক সেগম্যান্টে রয়েছে ভ্যালেইটাইন অফার।

ফেসবুক অথবা আপনার ই-মেইল খুললেই আপনি দেখতে পাবেন বিভিন্ন ম্যাসেজ বা অফার। সব কিছু মিলিয়ে ভালবাসা দিবসকে সাজাবার জন্য বিভিন্ন প্রচেষ্টা।

ভালবাসা দিবস, আমরা এখন যতখানি ভাবছি বা ভাবতে পারছি, তার সবটুকু সাফল্যের দাবিদার তথ্যপ্রযুক্তি। হাতের মুঠোফোনে দুনিয়া আমাদের কাছে বোকা বাক্সে বন্দী। আপনি একটু খেয়াল করলেই দেখবেন, আপনার মুঠোফনে বিভিন্ন অপারেটর আর ওয়েবসাইট থেকে বার্তা আসছে। আপনাকে জানিয়ে দিচ্ছে আজ বিশ্ব ভালবাসা দিবস। এত সাজসাজ রব ছিল না কয়েক বছর আগেও। প্রযুক্তির ক্রমবিকাশমান সময়ে বর্তমানে আমাদের অবস্থান। ডিজিটাল যুগে বসবাস। আবেগের সঙ্গে প্রযুক্তি মিলিয়ে যে অদৃশ্য রস আজ আমরা পান করছিই সেটা যত নিষিদ্ধই থাকুক না কেন, মনের জানালায় উঁকি মারবেই। আর তাকে সাদরে গ্রহণ করার মানসিকতা থাকতে হবে সবার। অবাধ তথ্যপ্রবাহে যদি কেউ নিজেকে আড়াল করে গোপনে ফেক আইডি দিয়ে সেন্ড করে রিকোয়েস্ট, তাহলে প্রথমে ধরে নিতে হবে, সে নিজেকেই প্রতারণা করছে। কারণটা খুব স্বাবাবিক। আপনি হারালেন বিশ্বাস, আর অন্য প্রান্তের মানুষটির ভর্ৎসনা।

মিথিলার কথা

নাম প্রকাশ না করার শর্তে তিনজন ফেসবুক ব্যবহারকারীর সঙ্গে আলোচনা হয় জনকণ্ঠ অফিসে। তাদের মধ্যে মিথিলা (সত্যি নাম নয়) বলল, আমি ফেসবুক ব্যবহার করতে শিখেছিলাম আমার এক কাজিনের কাছ থেকে। ও আমাকে প্রথমে একটা ছেলের নাম দিয়ে

আইডি করে দেয়। আমি সেটা দিয়েই কিছুদিন চালিয়েছিলাম। ছবি ঘরটাতে দিয়েছিলাম একটা ছেলের ছবি। বেশ কিছুদিন এভাবে চালানোর পর নিজের কাছে খারাপ লাগল যে, আমি চিট করছি সবাইকে। নিজে থেকেই সব সরিয়ে সবার কাছে সরি বলে আমার আসল আইডি দিয়ে এ্যাকাউন্ট খুললাম। সবাই আমার সাহস আর দৃঢ়তা দেখে প্রশংসা করলেন।

আবিরের কথা

আবিরের (সত্যি নাম নয়) আলোচনার ফাঁকে জানতে চাইলাম, তোমার গল্পটা কি। ও এমনিতেই চুপচাপ। বলেই বসল, ভাই আপনি তো সব জানেন। আবির প্রথমে বলল, আমি ফেসবুকে রিয়েল আইডিতে আছি। কিন্তু আমার একটা ফেক আইডিও আছে। আমি সেই আইডিটা আমার ক্লাসের একটা মেয়ের নামে করি। আর ছবিটা সংগ্রহ করি একটা অন্য মেয়ের। তারপর বিভিন্নজনকে রিকোয়েস্ট পাঠাই। দেখি অনেক সাড়া পড়ে। আমি চ্যাটও করতাম। তারপর কিভাবে যেন সব ফাঁস হয়ে যায় যে, এটা একটা ফেক আইডি। তারপর অনেকে আমকে গালাগাল করেছে, বাজে কথা বলেছে।

আরিফের কথা

আরিফ (সত্যি নাম নয়) শেষ বর্ষের ছাত্র। কম্পিউটার বিজ্ঞানে পড়েন। ওকে নিজের বক্তব্য তুলে ধরার জন্য বলতেই আরিফ বলল, আমি ফেসবুকে এখনও ফেক আইডি ব্যবহার করছি। তবে সেটা কোন ব্যক্তির নয়, আমি একটা সাইট বানিয়েছি। সেই সাইটের নাম দিয়ে ফেসবুকে এ্যাকাউন্ট করি যাতে করে আমার ক্যারিয়ারে এটা দরকার হবে। আমি শুধু কমেন্ট করার অপশনটা রেখেছি। তবে এক অর্থে এটা ফেক আইডি নয়। আমার নিজের তৈরি ওয়েবসাইট। যেটা দ্বারা বিজ্ঞাপনের কাজ হবে, আবার কানেক্ট থাকাও যাবে।

ভালবাসা দিবসে সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব আর বর্ণিল জগতে আমরা সবাই পেতে পারি অন্যজনের আস্থা আর বিশ্বাস। দুনিয়াটা হতে পারে একে অপরের জন্য আরও সুন্দর ।

প্রকাশিত : ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১৪/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: