কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

বিশ্বকাপে প্রতিটি ম্যাচই ফাইনাল ॥ শ্রীনাথ

প্রকাশিত : ১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
বিশ্বকাপে প্রতিটি ম্যাচই ফাইনাল ॥ শ্রীনাথ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মাত্র দুই প্রহরের অপেক্ষা। শনিবার শুরু হচ্ছে ১১তম বিশ্বকাপ ক্রিকেটের মেগা আসর। উদ্বোধনী দিনে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি কুলীন ইংলিশরা, অপর ম্যাচে সহ-আয়োজক নিউজিল্যান্ডের প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা। রবিবার ‘হাইভোল্টেজ’ লড়াইয়ে নামবে চিরশত্রু ভারত-পাকিস্তান। যেটিকে ‘ফাইনালের আগে ফাইনাল’ বলে মন্তব্য করছেন সাবেকরা। এমনকি দু’দলের বর্তমান খেলোয়াড়দের অনেকের ধারণাও তাই। তবে সাবেক ভারতীয় পেসার জাভাগাল শ্রীনাথ তা মানেন না। তার মতে, বিশ্বকাপে প্রতিটি দলের প্রতিটি ম্যাচই একেকটি ফাইনাল। কারণ জয়ের সামর্থ্য রয়েছে প্রতিটি দলেরই। প্রস্তুতি ম্যাচে বুধবার শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে দিয়েছে জিম্বাবুইয়ে, হট-ফেবারিট দক্ষিণ আফ্রিকা ধরা খেয়েছে নিউজিল্যান্ডের কাছে!

‘মনে রাখতে হবে এটি কোন দ্বিপক্ষীয় বা ত্রিদেশীয় সিরিজ নয়। এটি বিশ্বকাপ। ক্রিকেটের সর্বশ্রেষ্ঠ লড়াই। নিজেদের যোগ্যতাবলেই দলগুলো এখানে প্রতিনিধিত্ব করছে। কেবল ভারত-পাকিস্তান ম্যাচই নয়, বিশ্বকাপের প্রতিটি ম্যাচই একেকটি ফাইনাল। আমি ফেবারিট বা আন্ডারডগ-তত্ত্বে বিশ্বাসী নই। নির্দিষ্ট দিনে যারা ভাল খেলবে তারই জিতবে।’ বলেন ভারতের হয়ে তিন-তিনটি বিশ্বকাপে খেলা শ্রীনাথ। ভারত কী পারবে শিরোপা ধরে রাখতে? এমন প্রশ্নে তার একই জবাব, ‘নির্দিষ্ট দিনে ভাল খেলতে হবে। তবে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন দলের ব্যাটিং এগিয়ে রাখলেও বোলিং নিয়ে দুশ্চিন্তার কথা শুনিয়েছেন, ‘বিশ্বের অন্যতমসেরা ব্যাটিংলাইন আমাদের। বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, ধোনি নিজে, সবাই ম্যাচউইনার পারফর্মার। তবে মূল সমস্যা হবে বোলিং নিয়ে জহির খান না থাকায় পেস আক্রমণের দায়িত্ব নিতে হবে ভুবনেশ্বর কুমারকে। তবে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে বোলিং নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকছেই।’ সুতরাং ভারতকে ভাল করতে হলে সবার আগে বোলারদের ঝলসে উঠতে হবে বলে মনে করেন শ্রীনাথ। ‘আমি নিশ্চিত বোলাররা ভাল করলে দারুণ একটা সুযোগ থাকবে। নির্দিষ্টভাবে ভারতের জন্য বোলিংটা ভাইটাল হয়ে দাঁড়াবে। বিশেষ করে পেসারদের বেশি ভাল করতে হবে। যদিও ওয়ানডে ব্যাটসম্যানদের খেলা, তবে অস্ট্রেলিয়ার কন্ডিশনে অনেক সময় দেখা যাবে বোলাররাই ম্যাচ জিতিয়ে দিচ্ছে। ভুবনেশ্বর, মোহাম্মদ শামি ও স্টুয়ার্ট বিনিদের বিষয়টা মাথায় থাকবে। ওরা একে অপরের পাশে দাঁড়াবে, একাট্টা হয়ে ভারতকে সাফল্য এনে দেবে। প্রত্যেকে গত দুই মাসেরও বেশি সময় অস্ট্রেলিয়া সফরে রয়েছে। এতদিনে কন্ডিশনটা অনুমান করে ওঠার কথা।’ সফল হতে হলে পেসারদের লাইন-লেন্থ ঠিক রেখে স্টাম্প বরাবর বোলিং করা উচিত বলে পরামর্শ দিয়ে তিনি আরও যোগ করেন, ‘পেসারদের উচিত হবে মনোসংযোগ ঠিক করে স্টাম্প বরাবর বল করা। ভুবনেশ্বর, শামি ও বিনিকে এই পরামর্শই দেব। খুব বেশি কারুকাজ আনতে গিয়ে লাইন-লেন্থ হারানোর চেয়ে স্টাম্পের ওপর বল করাটা হবে বুদ্ধিমানের কাজ। শুধু বল করে যাও, অতিরিক্ত কিছুর প্রয়োজন নেই। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ব্যাটসম্যানকে বিশেষ সুযোগ দেয়ার উপায় নেই। আঁটোসাঁটো বোলিংয়ে ধারাবাহিকতা দেখাতে হবে। আসলে দ্রুতগতির বোলারদের ওপরই অনেক কিছু নির্ভর করছে।’

কোহলি-রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন ব্যাটিং লাইন নিয়ে এতটুকু প্রশ্ন নেই ৪৫ বছর বয়সী সাবেক তারকা পেসার শ্রীনাথের। অভিজ্ঞ জহির খানকে রাখা হয়নি, তার অনুপস্থিতিতে বর্তমান দলে সবচেয়ে অভিজ্ঞ ছিলেন ইশান্ত শর্মা। ইনজুরির জন্য সেই তিনিও ছিটকে গেছেন। সুতরাং পেস আক্রমণের নেতৃত্ব নিয়ে কিছুটা হলেও সংশয়ে তিনি। ‘আমার মনে হয় ভুবনেশ্বর কুমারেরই সামনে থাকা উচিত। সবকিছু অধিনায়ক ধোনি আর ম্যানেজমেন্টকেই ঠিক করতে হবে। চতুর ধোনি শেষ পর্যন্ত সামলে নিতে পারবে।’ আইসিসির ওয়েবসাইটে দেয়া সাক্ষাতকারে শ্রীনাথ কথা বলেছেন বহুল আলোচিত যুবরাজ সিংয়ের বাদ পড়ার বিষয়ে। ‘যুবরাজের প্রাথমিক দলে ডাক না পাওয়াটা সত্যি হতাশার। ওর প্রতি সহানুভূতি দেখানোর লোকের অভাব নেই! তবে ২০১৩-এর ডিসেম্বরের পর থেকে যেহেতু ওয়ানডে খেলেনি, নির্বাচকরা তাই শেষ পর্যন্ত ওকে বিবেচনা করেনি।’ সাম্প্রতিক বাজে ফর্ম, ইনজুরিতে একাধিক খেলোয়াড়ের ছিটকে যাওয়া ...।

সব মিলিয়ে ভারত কি পারবে শিরোপা ধরে রাখতেÑ আগের মতোই তার উত্তর, ‘এটা বলা মুশকিল। শেষ পর্যন্ত পুরোটাই নির্ভর করবে নির্দিষ্ট দিনে ভাল খেলার ওপর। আফগানিস্তানের বিপক্ষে শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে ধোনিদের বেশ গোছানো মনে হয়েছে। মূল লড়াইয়ে এখন কোহলি-ধাওয়ান রান পেলেই হয়। তবে দ্রুতগতির বোলারদের ওপরই অনেক কিছু নির্ভর করছে।’

প্রকাশিত : ১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১২/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: