মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
৯ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

উখিয়া থেকে বন্ধুর ছেলে অপহরণ, ঢাকায় উদ্ধার ॥ আটক ৪

প্রকাশিত : ১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বন্ধু যদি বন্ধুর ছেলেকে মুক্তিপণের জন্য অপহরণ করতে পারে এমন বন্ধুর দরকার কী? এটা বন্ধু নয়, বিশ্বাসঘাতক। এমন বিশ্লেষণ খোদ র‌্যাব কর্মকর্তাদের।

রাজধানীতে বন্ধুবেশী এমনই এক বিশ্বাসঘাতককে আটক করে র‌্যাব। তার কবল থেকে উদ্বার করা হয় বন্ধুর অপহৃত শিশুটিকেও। আজিজ রানা নামে তিন বছরের শিশুকে অপহরণ করা হয় কক্সবাজারের উখিয়া থেকে। তারপর মুক্তিপণ হিসেবে দাবি করা হয় পাঁচ লাখ টাকা। পাঁচ দিনের মধ্যে টাকা না দিলে শিশুটিকে বিক্রি করে ভারতে পালিয়ে যাওয়ারও হুমকি দিয়ে কক্সবাজার থেকে অপহরণ করে ঢাকায় নিয়ে আসা হয়। তার পরই বিষয়টি গড়ায় র‌্যাব পর্যন্ত। শেষ পর্যন্ত র‌্যাবই অপহরণকারীকে আটকসহ শিশুটিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

কামরাঙ্গীরচর এলাকা থেকে মঙ্গলবার রাতে র‌্যাব-১০ শিশু আজিজ রানাকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় অপহরণকারী আব্দুল কালামসহ চারজনকে আটক করে র‌্যাব। আটক করা হয়েছে রিপা আক্তার (৩০), রওশন জাহান (৩৪), মনির হোসেন (৩৮) ও কালাম (৪০)। জানা গেছে, জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে আব্দুল কালাম ব্যবসার কাজে তার বন্ধু আব্দুল আলমের কক্সবাজারের উখিয়ার বাসায় যান। ওই বাসা থেকে ফেরার সময় ২৮ জানুয়ারি দুপুরের দিকে বন্ধুর ছেলে রানাকে অপহরণ করে। এরপর ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। কালাম হুমকি দেয় পাঁচ দিনের মধ্যে মুক্তিপণের টাকা না দিলে শিশুটিকে বিক্রি করে সে ভারতে পালিয়ে যাবে। র‌্যাব কর্মকর্তা মেজর সোহেল বলেন, এ ঘটনায় ৩১ জানুয়ারি আব্দুল আলম বাদী হয়ে কক্সবাজারের উখিয়া থানায় একটি জিডি (জিডি নং-১৩০৩) করেন। এর পর ফেব্রুয়ারির ৮ তারিখে ছেলেকে উদ্ধারের জন্য র‌্যাব-১০-এর কাছেও লিখিত আবেদন করেন। এতে র‌্যাব-১০ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে কামরাঙ্গীরচর থেকে অপহরণকারী কালামকে গ্রেফতার করে। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পূর্ব রসুলপুরের ৯ নম্বর গলির ৩৯ নম্ব^র বাসা থেকে অপহৃত শিশু আজিজ রানাকে রাত এগারোটার দিকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় অন্য অপহরণকারী রিপা আক্তারকেও (৩০) গ্রেফতার করা হয়। এ ছাড়াও এ ঘটনার সহযোগী রওশন জাহান (৩৪) ও তার স্বামী মনির হোসেনকেও (৩৮) গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। র‌্যাব-১০ লালবাগ ক্যাম্পে বুধবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে মেজর মোঃ সোহেল হাসান এ সব তথ্য জানান। এ সময় কথিত আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুবান্ধববেশী অপহরণকারীদের থেকে সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানানো হয়। এ ঘটনায় কামরাঙ্গীরচর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন শিশু রানার বাবা।

প্রকাশিত : ১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১২/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: