রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

অন্য ভুবনের তারকাদের বিশ্বকাপ ভাবনা

প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

* আমিনুল হক (ফুটবলার) ॥ অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে গিয়ে খেলার অভিজ্ঞতা আমাদের ক্রিকেটারদের খুব একটা নেই। তাই এবার ওখানে গিয়ে ভাল রেজাল্ট করাটা খুবই কষ্টসাধ্য হবে। তারপরও আমি মনে করি দলের লক্ষ্য থাকা উচিত কমপক্ষে নকআউট পর্ব পর্যন্ত যাওয়া। এজন্য দলের সিনিয়র ক্রিকেটারদের অনেক দায়িত্ব নিয়ে খেলতে হবে। সাকিব আল হাসানের ওপর শুধু আমার একার নয়, পুরো ক্রিকেটবিশ্বেরই চোখ থাকবে। কেননা তিনি বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার। বোলিংয়ে মাশরাফি মর্তুজা ভাল করবেন বলেই আমার বিশ্বাস (যদি আবারও ইনজুরিতে না পড়েন)। এছাড়া প্রতিশ্রুতিশীল ন্যাটা স্পিনার তাইজুল এবং ব্যাটসম্যান এনামুল হক বিজয়ও ভাল পারফর্মেন্স করবেন বলে মনে করি। সেমিতে অস্ট্রেলিয়া খেলবে তাদের হোম কন্ডিশনকে কাজে লাগিয়ে। এছাড়া বর্তমান শিরোপাধারী ভারতও খেলবে শেষ চারে। ইংল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকাকেও উড়িয়ে দেয়া যাবে না। এবার যেহেতু খেলাগুলো হবে খুব সকালে, তাই দেখাটা কষ্টকরই হবে। তবে যত কষ্টই হোকÑ বাংলাদেশের খেলা পুরোটাই দেখার চেষ্টা করব। সঙ্গে অবশ্যই থাকবে আমার পরিবারের সদস্যরা।

* রফিকুল ইসলাম কামাল (জাতীয় হকি দলের সাবেক তারকা খেলোয়াড়) ॥ যতদূর জানি, সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল অনেক উন্নতি করেছে। এই উন্নতির ধারাবাহিকতা বজায় রাখার চ্যালেঞ্জ নিতে হবে আসন্ন বিশ্বকাপে। দলে রয়েছে অনেক মেধাবী ক্রিকেটার। ভাল খেলে তারা নিজেদের প্রতিনিয়ত প্রমাণ করছে। আত্মবিশ্বাসেরও কমতি নেই। যদিও অনেকেরই বয়স কম বলে তাদের অভিজ্ঞতা কম। আমি যেহেতু বাংলাদেশ ক্রিকেটের ভক্ত, তাই আশা করব তারা যেন ভাল রেজাল্ট করে। দলের সেরা ক্রিকেটার সাকিবের প্রতি সবার মতো আমারও উৎসুক দৃষ্টি থাকবে তিনি এবার কেমন খেলেন। একজন লড়াকু ও ভাল নেতা হিসেবে মাশরাফিও থাকবেন ফোকাসের মধ্যে। তামিমের আগ্রাসী ব্যাটিং দেখতেও মুখিয়ে আছি। ক্রিকেট যদিও ‘আনপ্রেডিক্টেবল গেম’ তারপরও বলব, এবারের আসরের শেষ চারে খেলতে দেখা যেতে পারে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকাকে। তবে অবহেলা করা যাবে না ভারত, পাকিস্তান এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের সম্ভাবনাকেও। বাংলাদেশের যে সামর্থ্য আছে, তাতে তাদের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলা উচিত। ঘরোয়া পরিবেশে খেলা তো দেখবই, ছুটির দিনে বন্ধুদের নিয়েও ক্লাবে বা কোন রেঁস্তোরায় বসে মজা করে এবারের খেলা দেখার পরিকল্পনা আছে। তাছাড়া বন্ধু ক্রিকেটার জাভেদ ওমর বেলিম গুল্লুর বাসায় গিয়ে খেলা দেখার ইচ্ছেও আছে।

* জোবেরা রহমান লিনু (গিনেজ রেকর্ডধারী সাবেক টিটি খেলোয়াড়) ॥ বিশ্বকাপ খেলতে বাংলাদেশ দল এখন অস্ট্রেলিয়ায়। যাওয়ার আগে তারা সঙ্গে করে নিয়ে গেছে দেশের মানুষের দোয়া ও একরাশ ভালবাসা। দলের শক্তি যাই হোক, আমি চাইব আমার স্বদেশের ছেলেরা যেন ফাইনালে খেলে। তবে বাস্তবতার নিরিখে কোয়ার্টার ফাইনাল পর্যন্ত খেলাটা হচ্ছে আমাদের সীমানাÑ এটাও বুঝি। দল যেমনই করুক, সাকিব ভাল খেলবেই। মাশরাফি, তামিম, মুশফিকরাও মন্দ খেলবে না। অস্ট্রেলিয়া, ভারত, শ্রীলঙ্কা এবং দক্ষিণ আফ্রিকার সেমিফাইনাল খেলার সম্ভাবনা বেশি। বাসায় একাকী খেলা দেখব বরাবরের মতোই।

* সিদ্দিকুর রহমান (গলফার) ॥ নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে পারলে বাংলাদেশ কমপক্ষে নকআউট পর্বে যেতে পারবে বলে মনে করি। একঝাঁক নবীন ক্রিকেটার এবং সাকিব আল হাসান... সবার সম্মিলিত উদ্ভাসিত নৈপুণ্য দেখার প্রত্যাশা করি। অস্ট্রেলিয়া, শ্রীলঙ্কা, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার সেমিতে খেলার সম্ভাবনা বেশি। যখন খেলা শুরু হবে তখন বিভিন্ন গলফ টুর্নামেন্ট নিয়ে দেশের বাইরে ভীষণ ব্যস্ত থাকব। তাছাড়া ক্রিকেট খেলা প্রায় ৮ ঘণ্টা ধরে খেলা হয় বলে এত ধৈর্য্য নিয়ে আমার পক্ষে খেলা দেখা সম্ভবও নয়। তারপরও অন্তত চেষ্টা করব সুযোগ পেলে ইন্টারনেটে খেলার লাইভ স্কোর জেনে নিতে।

* সুমিতা রানী (হার্ডলার, এ্যাথলেটিক্স) ॥ মানুষ তো বাঁচে অসীম আশা নিয়েই। শক্তি-সামর্থ্য যাই থাকুক না কেন, আমার আশাÑ বাংলাদেশ যেন এবার চ্যাম্পিয়ন হয়। এজন্য সাকিব, মুশফিক, মাশরাফিদের নিজেদের সামর্থ্যরে চেয়েও বেশি ভাল খেলতে হবে। তাহলেই সম্ভব স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দেয়া। বাংলাদেশের শিরোপা জয়ের পথে সেমিতে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে দুই স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড এবং বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত। যদিও কর্মব্যস্ততার কারণে (বাংলাদেশ জেলে কর্মরত) সব খেলা পুরোটা দেখা যাবে না। তবে ছুটির দিনে সময় পেলে গত আসরের মতো এবারের বিশ্বকাপের খেলাগুলোও বাসায় পরিবারের সবার সঙ্গে উপভোগের ইচ্ছে আছে।

* শাপলা আক্তার (শাটলার) ॥ পেসার রুবেল হোসেনকে নিয়ে সম্প্রতি তুলকালাম কা- ঘটে গেছে, এতে অনেকেই বলেছেন আসন্ন বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের টিম স্পিরিট নষ্ট হয়ে যাবে। কিন্তু আমি তা মনে করি না। বাংলদেশ খুব ভাল অনুশীলন করছে। মাশরাফি চোট কাটিয়ে ফিরে দারুণ খেলছে, মুশফিক ক্যাপ্টেন না হওয়ায় তিনি ভারমুক্ত হয়ে খেলবেন। তামিম ইনজুরিতে থাকলেও খেলা শুরুর আগেই ফিট হয়ে যাবেন। তবে সাকিবের প্রতি অগাধ আস্থা আছে আমার। বাংলাদেশ যেন সেমিতে খেলে এমনটাই প্রত্যাশা থাকবে আমার। শ্রীলঙ্কা, ভারত এবং অস্ট্রেলিয়াও শেষ চারে নাম লেখাতে পারে। ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ‘ইন্দো-বাংলা গেমস’-এর জন্য ক্যাম্প শুরু হয়েছে। চেষ্টা করব সময় ও সুযোগ পেলে সেখানেই সতীর্থদের সঙ্গে বসে মজা করে খেলা উপভোগের।

* সামিহা শারমীন শিম্মি (দাবাড়ু) ॥ আমি বাস্তবতায় বিশ্বাসী। চাইব বাংলাদেশ যেন অন্তত কোয়ার্টার ফাইনাল পর্যন্ত খেলতে পারে। নাসির, মুমিনুল, সাকিব, তামিমদের নৈপুণ্যের ওপরই নির্ভর করবে সেটা। স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া, বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত, অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ১৯৯২-এর শিরোপাধারী পাকিস্তান এবং আন্ডারডগ হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবার সেমিফাইনালে খেলতে পারে। সময় এবং অফিসের কাজের কারণে সব খেলা সেভাবে দেখা হবে না এবার। তবে ছুটির দিনে যদি বাংলাদেশের খেলা থাকে, তাহলে বাসায় বাবা ও ছোট বোনের সঙ্গে মজা করে খেলা দেখব।

* আরমিন আশা (শুটার) ॥ বাংলাদেশ ক্রিকেটের একজন ডাই হার্ড ফ্যান হিসেবে আমার চাওয়া এবারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের শিরোপা। এজন্য স্বীয় নৈপুণ্যে সমুজ্জ্বল হতে হবে সাকিব, মুশফিক, মাশরাফিদের। বাংলাদেশ যদি সেমিতে উঠতে না পারে, সেক্ষেত্রে সেমিতে খেলবে ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা এবং অস্ট্রেলিয়া। এখন শুটিং ক্যাম্পে আছি। অনুশীলনের সময় ক্রিকেটের ম্যাচগুলো থাকায় টানা খেলা দেখা সম্ভব নয়। তবে এর ফাঁকেই ক্যাম্পের সবাই মিলে আনন্দ করে খেলা দেখব।

* শিরিন সুলতানা (উশু ও কুস্তি খেলোয়াড়) ॥ ক্রিকেট দলীয় খেলা হলেও এ খেলায় সবাই ভাল খেলতে পারে না। দু-একজন ভাল খেললেই যথেষ্ট। সাকিব আল হাসান হচ্ছেন তেমনই এক ক্রিকেটার, যার ভাল খেলার ওপরই নির্ভর করছে এবারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশ কোন পর্ব পর্যন্ত খেলবে। সাকিবের পাশাপাশি মাশরাফি, মুশফিকও ভাল খেলবেন। ভারত, পাকিস্তান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং বাংলাদেশÑ এই দলগুলো সেমিতে খেলবে বলে আন্দাজ করছি। পন্টিং অবসরে চলে যাওয়ায় অস্ট্রেলিয়ার এবার সেমিতে খেলার সম্ভাবনা নেই। এখন যেহেতু ক্যাম্পে আছি, কাজেই চেষ্টা করব, খেলোয়াড়রা সবাই মিলে খেলা দেখতে।

* ঈশিতা আফরোজ (টেনিস খেলোয়াড়) ॥ আমার প্রিয় বাংলাদেশ এবার ভাল করবে। এজন্য ভাল অনুশীলনের বিকল্প নেই। সাকিব, বিজয়, মুশফিক, মুমিনুল ওরা ভাল খেলবেন বলে মনে করি। বাংলাদেশ সেমিতে খেললে অসম্ভব খুশি হব। না খেলতে পারলে সেমিফাইনালের দলগুলো হতে পারে অস্ট্রেলিয়া, ভারত, শ্রীলঙ্কা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বিকেএসপির হলরুমে একসঙ্গে বসে টিভিতে বিশ্বকাপের খেলা দেখব, ভাবতেই মনটা খুশিতে আনচান করে উঠছে!

* মাহফুজুর রহমান তুষার (কার রেসার) ॥ আমি ক্রিকেট খেলা তেমন বুঝি না। তারপরও বলব বাংলাদেশ ফাইনাল খেললে খুব খুশি হব। যদিও ফাইনাল খেলা বেশ কঠিন ব্যাপার। তবে আশা করতে দোষ কী? মাশরাফি আবার অধিনায়ক হয়েছেন। এটা বেশ ভাল হয়েছে। তিনি বেশ অভিজ্ঞ। সাকিব, তামিম ও মুশফিকÑ এরা ঠিকমতো সাপোর্ট দিলে বাংলাদেশ ভাল করবেই। অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও ভারত সেমিফাইনালে খেলতে পারে। বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিয়ে এবং মজাদার খাবার সহযোগে এবারের খেলাগুলো দেখব।

* ইমদাদুল হক মিলন (আরচ্যার) ॥ আমি তো মনে করি বাংলাদেশ এবার ২০১১ বিশ্বকাপের চেয়েও বেশি ভাল খেলবে। আমরা যদি সেমিফাইনালে খেলি, তাহলে অবাক হবার কিছু নেই। দলে নতুন ক্রিকেটার থাকলেও অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছানোর রসদ আছে টাইগারদের। সাকিব ও মুশফিকÑ এ দুজন তাঁদের নামের প্রতি সুবিচার করবেন বলে আশা করি। সেমিতে এবার কোন দলগুলো খেলবে? এটা বলা খুব মুশকিল। বাংলাদেশের নাম তো আগেই বলেছি। এছাড়া ভারত, শ্রীলঙ্কা এবং অস্ট্রেলিয়াও খেলতে পারে। এবারের খেলাগুলো চেষ্টা করব ক্যাম্পে সবার সঙ্গে দেখার। সবাই মিলে খেলা দেখার মজাই আলাদা।

প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১১/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: