কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সহজ গ্রুপে ছয়বারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা

প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • অনুর্ধ-২ ফুটবল বিশ্বকাপ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগামী ৩০ মে থেকে ২০ জুন নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হবে ফিফা অনুর্ধ-২০ বিশ্বকাপ। এবার ২৪ দল নিয়ে মাঠে গড়াবে এ আসরটি। অকল্যান্ডের স্কাই সিটি ক্যাসিনোয় এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে টুর্নামেন্টের ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্বপ্নের একটি গ্রুপ পেয়েছে ৬ বারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। তাদের গ্রুপে বড় কোন প্রতিপক্ষ নেই। ‘বি‘ গ্রুপে আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ পানামা, অস্ট্রিয়া এবং আফ্রিকান অঞ্চলের বাছাই থেকে তৃতীয় হওয়া দল। দলটি নিশ্চিত হবে আগামী মাসেই।

ছয় গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে ২৪ দলকে। স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড কিছুটা শক্ত গ্রুপে ঠাঁই পেয়েছে। ‘এ’ গ্রুপে তাদের সঙ্গে আছে যুক্তরাষ্ট্র, ইউক্রেন ও মিয়ানমার। তবে জার্মানি তুলনামূলকভাবে কিছুটা সহজ গ্রুপই পেয়েছে। তাদের সঙ্গে ‘এফ’ গ্রুপে আছে ফিজি, উজবেকিস্তান ও হন্ডুরাস। ‘ই’ গ্রুপে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের সঙ্গে হাঙ্গেরি, উত্তর কোরিয়া। আরেকটি দল এখনও নিশ্চিত হয়নি। যুব ফুটবল বিশ্বকাপ থেকেই বেরিয়ে এসেছিল বিশ্ব ফুটবলের দুই সুপারস্টার দিয়াগো ম্যারাডোনা ও লিওনেল মেসি। এবারের আসর থেকেও ভবিষ্যতের সুপারস্টার বেরিয়ে আসবে বলে প্রত্যাশা জানিয়েছেন ফিফা সহ-সভাপতি জেফরি ওয়েব। তিনি বলেন, ‘কোন সন্দেহ নেই আমরা আরও বিশ্বকাপ তারকা নিউজিল্যান্ডের আসর থেকে আবিষ্কার করতে সক্ষম হব।’ চারটি করে দল নিয়ে গ্রুপিং করা হয়েছে ছয়টি। প্রথম রাউন্ডের ম্যাচগুলো খেলা হবে অকল্যান্ড, ওয়েলিংটন, হ্যামিল্টন, ডানেডিন, নিউ প্লাইমাউথ ও ক্রাইস্টচার্চে। প্রতি গ্রুপ থেকে শীর্ষ দুটি করে দল নিয়ে ১৬ দলের দ্বিতীয় রাউন্ড অনুষ্ঠিত হবে। বাকি চারটি দল আসবে প্রথম রাউন্ডের তৃতীয় হওয়ার ক্ষেত্রে এগিয়ে থাকাদের মধ্য থেকে। ২০২২ ফিফা বিশ্বকাপের মূল আসর আয়োজন করবে কাতার। তাদের জন্য দল গড়ার ক্ষেত্রে দারুণ এক উপলক্ষ হবে এবারের যুব বিশ্বকাপ। ‘সি’ গ্রুপে তাদের সঙ্গে আছে পর্তুগাল, কলম্বিয়া ও আফ্রিকা থেকে চতুর্থ হওয়া দলটি।

তুরস্কে সর্বশেষবার অনুষ্ঠিত আসরে উরুগুয়ে রানার্সআপ হয়েছিল। এবার তাদের জন্য প্রথম রাউন্ডেই কঠিন পরীক্ষায় অবতীর্ণ হতে হবে। ‘ডি’ ফর ডেথ গ্রুপে তাদের সঙ্গে রয়েছে মেক্সিকো, সার্বিয়া এবং আফ্রিকান অঞ্চলের বাছাই থেকে দ্বিতীয় হওয়া দল। এবার নিউজিল্যান্ডের যুব বিশ্বকাপটা হবে ২০তম আসর। দুই বছর অন্তর অন্তর এ টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। ম্যারাডোনা-মেসি ছাড়াও এ টুর্নামেন্ট থেকেই বেরিয়ে এসেছিলেন রোনাল্ডদিহো, ডেভিড সিলভা, মাইকেল ওয়েন, শিনজি ওনো এবং জ্যাভিয়েল স্যাভিওলারা। ১৯৭৯ সালে জাপানে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে প্রথমবার যখন আর্জেন্টিনা শিরোপা জিতেছিল সেবার তরুণ ম্যারাডোনা ৬ গোল করেছিলেন। ২০ বছর পর আবার যখন আর্জেন্টিনা আরেকটি শিরোপা জিতল তখন তার স্বদেশী মেসি গোল্ডেন বুট জিতলেন। রিয়াল মাদ্রিদের বর্তমান শীর্ষ তারকা জেমস রড্রিগুয়েজও ২০১১ সালে খেলেছেন তার দেশ কলম্বিয়ার হয়ে, জুভেন্টাসের ফরাসী তারকা পল পোগবাও ছিলেন ২০১৩ সালে এবং জিতিয়ে ছিলেন শিরোপা। এ আসরের সর্বাধিক সাফল্য আর্জেন্টিনার। তারা ৬ বার, ব্রাজিল ৫ বার, পর্তুগাল ২ বার এবং জার্মানি, ফ্রান্স ও স্পেন একবার করে যুব বিশ্বকাপ জিতেছে। ১৯৭৭ সালে প্রথম আসরে চ্যাম্পিয়ন হয় সোভিয়েত রাশিয়া। এছাড়াও আর দুটি শিরোপা গেছে যুগোসøাভিয়া (১৯৮৭) ও ঘানার (২০০৯) ঘরে। আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স।

প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

১১/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: