মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

উন্নয়ন সহায়তা বাড়াচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র, ৭২২ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব

প্রকাশিত : ৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • বাংলাদেশে বিনিয়োগে মার্কিন ব্যবসায়ীদের আগ্রহ প্রকাশ

তৌহিদুর রহমান ॥ বাংলাদেশে উন্নয়ন সহায়তা বাড়াচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশেই সবচেয়ে বেশি হারে উন্নয়ন বরাদ্দ বাড়িয়েছে দেশটি। আগামী ২০১৬ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাজেটে বৈশ্বিক উন্নয়ন সহায়তা খাতে বাংলাদেশকে ৭২২ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে। এদিকে মার্কিন ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছে। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর জানিয়েছে, ২০১৬ সালের বাজেটে বাংলাদেশে উন্নয়ন সহায়তার আওতায় ৯ কোটি ২৯ লাখ ২৩ হাজার মার্কিন ডলার বরাদ্দ অনুমোদনের জন্য কংগ্রেসের কাছে অনুরোধ করেছে যুক্তরাষ্ট্র সরকার। বাংলাদেশী টাকায় এই অর্থের পরিমাণ প্রায় ৭২২ কোটি টাকা। বাংলাদেশে বরাদ্দের বৃদ্ধির হার দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৫ সালে এই অর্থের পরিমাণ ছিল ৮ কোটি ১৫ লাখ ৭৮ হাজার মার্কিন ডলার (৬৩৩ কোটি ৮৬ লাখ টাকা)। এছাড়া ২০১৬ সালের সন্ত্রাসবিরোধী কার্যক্রমের প্রধান সহযোগী দেশগুলোর তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশে বিদ্যমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতেও বাংলাদেশের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বার্ষিক উন্নয়ন সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলে ইতোমধ্যেই জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার (ইউএসএইড) মিশন ডিরেক্টর ইয়ানিনা ইয়ারুজেলস্কি। বাংলাদেশে ইউএসএআইডি মিশনের প্রধান বলেছেন, দরিদ্র ও সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা মানুষের জীবনে পরিবর্তন আনা তাদের কর্মসূচীর মূল লক্ষ্য। এখানকার রাজনৈতিক পরিস্থিতি যাই থাকুক না কেন, এই লক্ষ্য অব্যাহত থাকবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আগামী বাজেটেও সেটা প্রতিফলিত হয়েছে। এর আগে ইউরোপীয় ইউনিয়নও আগামী ৭ বছরে বাংলাদেশে ৪০ শতাংশ সহায়তা বাড়ানোর ঘোষণা দেয়।

এদিকে বাংলাদেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে গভীর আগ্রহের কথা জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশ দূতাবাস আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তারা এই আগ্রহের কথা জানিয়েছেন। নিউইয়র্কের বাংলাদেশ কনস্যুলেট অফিস থেকে এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

অনুষ্ঠানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন বক্তব্য রাখেন। বাংলাদেশের ভৌগোলিক অবস্থানকে কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ ও আঞ্চলিক কেন্দ্র হিসেবে বর্ণনা করে তিনি বিনিয়োগ আকর্ষণের জন্য বর্তমান সরকারের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ তথ্যসহ তুলে ধরেন। আঞ্চলিক কানেকটিভিটির ক্ষেত্রে বর্তমান সরকারের গুরুত্ব প্রদানের বিষয়টি উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আঞ্চলিক কানেকটিভিটি ধারণাকে জোরদার করার মাধ্যমে আঞ্চলিক সমৃদ্ধি আনার লক্ষ্যে কয়েকটি দেশ দায়িত্ব গ্রহণের পরই সফর করেন। বাংলাদেশে আর্থ-সামাজিক বিভিন্ন সূচকে উল্লেখযোগ্য অর্জনের কথা তুলে ধরে তিনি অধিক হারে বিশেষত জ্বালানি, জাহাজ-নির্মাণ, কৃষিজাত পণ্য প্রক্রিয়াকরণ, ওষুধশিল্প, সিরামিক, আইসিটি, টেলিযোগাযোগসহ সম্ভাবনাময় ও লাভজনক খাতে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।

যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে তৈরি পোশাক রফতানির ক্ষেত্রে শুল্ক ও কোটামুক্ত প্রবেশাধিকারের বিষয়ে ভূমিকা রাখার জন্য মার্কিন বিনিয়োগকারীদের অনুরোধ জানান তিনি। পরে বিনিয়োগকারীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন রাষ্ট্রদূত জিয়াউদ্দিন।

প্রকাশিত : ৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৯/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: