কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৪ ডিসেম্বর ২০১৬, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

বরিশালে পেট্রোল বোমায় ফের তিনজন নিহত

প্রকাশিত : ৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • নাশকতাকারীদের শনাক্ত করতে পুলিশ ব্যর্থ

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল থেকে ॥ অবরোধকারীদের ছোঁড়া পেট্রোল বোমায় ঢাকা-বরিশাল মহা-সড়কের গৌরনদী এলাকায় মাত্র পাঁচ দিনের ব্যবধানে শনিবার ভোরে ফের জীবন্ত দগ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন তিনজন। এরপূর্বে গত ২ ফেব্র“য়ারি রাতে মহাসড়কের গৌরনদীর টরকীর নবীনগর এলাকায় লবন বোঝাই ট্রাকে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপের ঘটনায় ঘটনাস্থলেই চালক ও হেলপার নিহত হয়েছিল।

সূত্রমতে, মহাসড়কের বরিশাল অংশের ৮৭ পয়েন্টকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হিসেবে চিহ্নিত করে যানবাহনের নিরাপত্তা দেয়ার লক্ষে পুলিশ, আনসার সদস্য ও ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের সমন্ময়ে রাত জেগে পাহারা বসানো হলেও নাশকতারোধ করা সম্ভব হয়নি। সেক্ষেত্রে নাশকতাকারীদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার করতে পুলিশের ব্যর্থতাকেই দায়ী করেছেন বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা। এনিয়ে গত ৩ ফেব্র“য়ারি বরিশাল-২ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট তালুকদার মোঃ ইউনুস জাতীয় সংসদে তার বক্তব্যে স্থানীয় (গৌরনদীর) প্রশাসনের চরম উদাসীনতা ও মনগড়া সংবাদ প্রকাশ করায় একটি জাতীয় পত্রিকার স্থানীয় প্রতিনিধির কঠোর সমালোচনা করেন। চরমপন্থি সর্বহারা দলের সদস্য ও ২০০১ সালের নির্বাচন পরবর্তী সন্ত্রাসীদের নাশকতায় যোগদেয়া এবং সন্ত্রাসীদের গোপন বৈঠকের বিষয়ে জাতীয় দৈনিকগুলোতে একাধিক সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পরেও ঘুম ভাঙ্গেনি থানা পুলিশের। সূত্রে আরো জানা গেছে, নাশকতামূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে থানা পুলিশ মাঝেমধ্যে দু’একজনকে আটক করলেও স্থানীয় সংবাদকর্মীদের তথ্য দিতে তারা (পুলিশ) অপরাগতা প্রকাশ করেন। মোটা অংকের টাকা উৎকোচের বিনিময়ে আটককৃতদের থানা থেকে ছেড়ে দেয়ার জন্যই সংবাদকর্মীদের তথ্য দেয়া হচ্ছেনা বলেও সূত্রটি নিশ্চিত করেছেন। অভিযোগ রয়েছে, বিএনপির নিস্ক্রিয় নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে পুলিশের কতিপয় অফিসাররা অর্থ বাণিজ্যে মেতে উঠেছেন। যে কারণে প্রকৃত নাশকতাকারীরা রয়ে যাচ্ছে ধরাছোয়ার বাহিরে।

অপরদিকে জীবন্ত মানুষ পুড়িয়ে হত্যাসহ সকল প্রকার নাশকতাকারীদের অনতিবিলম্বে চিহ্নিত করে গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স’র উদ্যোগে শনিবার দুপুরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের আশোকাঠী বাসষ্ট্যান্ডে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন চলাকালীন সময় অনুষ্ঠিত সভায় একাত্মতা প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দা মনিরুন নাহার মেরী, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ মোসলেম উদ্দিন, জেলার শ্রেষ্ঠ ইউপি চেয়ারম্যান সৈকত গুহ পিকলু, চাঁদশী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কৃষ্ণ কান্ত দে, মাহিলাড়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ফিরোজ ফোরকান আহমেদ, আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ জয়নাল আবেদীন খান প্রমূখ।

নামপ্রকাশ না করার শর্তে একটি গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে, নাশকতা পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের গৌরনদীর কতিপয় নীতিনির্ধারকরা আত্মগোপনে থেকে তাদের মনোনীত তৃণমূলের কতিপয় বিএনপি নেতার মধ্যস্থতায় ইতোমধ্যে সর্বহারা সদস্য ও ২০০১ সালের নির্বাচন পরবর্তী চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের নিয়ে অতিগোপনে একাধিক বৈঠক করার পর গৌরনদীতে অবরোধের সহিংসতা ক্রমেই ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করছে। গোয়েন্দা সূত্রে আরো জানা গেছে, বরিশালসহ গোটা দক্ষিণাঞ্চলের মধ্যে এখন সবচেয়ে বেশি নাশকতামূলক কর্মকান্ড ঘটছে গৌরনদীতে। এখানে থানা ও হাইওয়ে থানা পুলিশের অনেকটাই রহস্যজনক গাঁ ছাড়া ভাবের কারনে নাশকতাকারীরা ক্রমেই বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। অপরদিকে নাশকতারোধে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের সমন্বয়ে সামাজিক প্রতিরোধ কমিটিতে এলাকার চিহ্নিত মাদক সম্রাট ও হত্যা মামলায় সদ্যকারাগার থেকে জামিনে বের হওয়া শীর্ষ সন্ত্রাসী আল-মাদানী সিকদারসহ বির্তকিত ব্যক্তিদের অন্তর্ভুক্ত এবং নাশকতামূলক কর্মকা- ঘটার সাথে সাথেই কতিপয় মিডিয়া কর্মীদের কাছে মোবাইল ফোনে বিএনপির এক কেন্দ্রীয় নেতার অবহিত করার বিষয়টিও রহস্যজনক। এলাকাবাসি নাশকতা প্রতিরোধে গৌরনদী থানার সাবেক ও বর্তমান উজিরপুর থানার ওসি মোঃ নুরুল ইসলাম-পিপিএম’কে পূর্ণরায় গৌরনদী থানার দায়িত্ব দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে জোড় দাবি করেন।

এখানে সর্বশেষ গতকাল শনিবার ভোর পাঁচটার দিকে গাজীপুরের বাঘেরবাজার থেকে বরিশালগামী পোল্টি ফিড বোঝাই ট্রাকে অবরোধকারীদের ছোঁড়া পেট্রোল বোমায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন ট্রাক চালক ফরিদপুর সদর থানার বদরপুর এলাকার ইজাজুল ইসলাম (৩৫), হেলপার একই থানার মোল্লাবাড়ি রোডের বাসিন্দা মুন্না মিয়া (৩২), ট্রাক চালকের শ^শুর মোতালেব হোসেন (৬৫)। জানা গেছে, মহাসড়কে পুলিশ ও আনসার সদস্যদের পাহারার মধ্যেই ভোর পাঁচটার দিকে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের গৌরনদী উপজেলার দক্ষিণ মাহিলাড়া এলাকার বিএনপির এক প্রভাবশালী নেতারা বাড়ির সন্নিকটে বসে অবরোধকারীরা মালবাহী ট্রাককে লক্ষ্য করে পেট্রোলবোমা ছুঁড়ে মারে। খবর পেয়ে সকালেই স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি হুমায়ুন কবীর, জেলা প্রশাসক মোঃ শহীদুল আলম, পুলিশ সুপার একেএম এহসান উল্লাহ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মাসুদ হাসান পাটোয়ারী, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সৈকত গুহ পিকলু ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় পুলিশের দায়েরকৃত মামলার এজাহারভূক্ত আসামি মাহিলাড়া ইউনিয়ন বিএনপি নেতা মোঃ মিলন ও তোতা মিয়াকে শনিবার বিকেলে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

র‌্যাবের অভিযানে একজন আটক ॥ জেলার বাবুগঞ্জ উপজেলার আগরপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারন সম্পাদক দেলোয়ার হোসের হাওলাদারকে শনিবার দুপুরে আগরপুর বাজার থেকে আটক করেছে বরিশাল র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা। পুলিশ জানায়, আটককৃতর বিরুদ্ধে নাশকতামূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকার একাধিক অভিযোগ রয়েছে।

প্রকাশিত : ৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৮/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: