মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আজ চৌদ্দগ্রামে ঘটনাস্থলে যাচ্ছেন পাঁচ মন্ত্রী

প্রকাশিত : ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫
  • আটজন পুড়িয়ে হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা, কুমিল্লা, ৬ ফেব্রুয়ারি ॥ চৌদ্দগ্রামে যাত্রীবাহী নৈশকোচে পেট্রোলবোমা হামলা চালিয়ে আট ঘুমন্ত যাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনাস্থলে আজ শনিবার আসছেন পাঁচ মন্ত্রী। তাঁরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন, পৈশাচিক এ ঘটনার প্রতিবাদ এবং হরতাল-অবরোধের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ফুড প্যালেসের সামনে ১৪ দল আয়োজিত জনসভায় বক্তব্য রাখবেন।

গত সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চৌদ্দগ্রামের জগমোহনপুর এলাকায় ‘আইকন পরিবহনে’র যাত্রীবাহী নৈশকোচে পেট্রোলবোমা হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এতে ঘটনাস্থলে সাতজন ও বুধবার ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে একজনসহ আটজনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় দেশব্যাপী প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। নৃশংস এ ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে এবং হরতাল-অবরোধ ও বর্বরোচিত নাশকতার বিরুদ্ধে জনসচেতনতা সৃষ্টি করতে ঘটনাস্থল জগমোহনপুর এলাকার ফুড প্যালেসের সামনে শনিবার দুপুর দুইটায় জনসভার আয়োজন করেছে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন স্থানীয় ১৪ দল।

চৌদ্দগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সামছুদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সেলিম জানান, ওই জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী মোঃ নাসিম এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে বেসামরিক বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, রেলপথমন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক মুজিব উপস্থিত থাকবেন। পাঁচ মন্ত্রী ও জেলা নেতৃবৃন্দের আগমন উপলক্ষে চৌদ্দগ্রামের জনগণ নাশকতার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে উঠছেন বলে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ জানান। রেলপথমন্ত্রী ও স্থানীয় এমপি মোঃ মুজিবুল হক মুজিব জানান, এ জনসভা থেকে নিরীহ আট বাসযাত্রী হত্যাকারীদের প্রতি ঘৃণা ও ধিক্কার জানানো হবে এবং বিএনপি-জামায়াত জোটের হরতাল-অবরোধ ও নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার ডাক দেয়া হবে।

তদন্ত প্রতিবেদন দিতে ডিসির নির্দেশ ॥ চৌদ্দগ্রামে পেট্রোলবোমা হামলার ঘটনায় জেলা প্রশাসকের গঠিত তদন্ত কমিটিকে এক সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দিয়েছেন জেলা প্রশাসক মোঃ হাসানুজ্জামান কল্লোল। গত মঙ্গলবার কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মুহম্মদ গোলামুর রহমানকে প্রধান করে তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। বুধবার দুপুরে কমিটির প্রধানের নেতৃত্বে অপর দুই সদস্য কুমিল্লার সহকারী পুলিশ সুপার (সদর-এ-সার্কেল) মোঃ জাহাঙ্গীর আলম ও চৌদ্দগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবময় দেওয়ান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তদন্ত কমিটির প্রধান মুহম্মদ গোলামুর রহমান জানান, শনিবার সকালে চৌদ্দগ্রামে ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের নিয়ে শুনানি হবে। বিভিন্ন সূত্র থেকে তথ্য নেয়া হচ্ছে। এক সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য জেলা প্রশাসক নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রকাশিত : ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৭/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: