রৌদ্রজ্জ্বল, তাপমাত্রা ২৩.৯ °C
 
৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

রাজনৈতিক অস্থিরতা সত্ত্বেও বিদেশী বিনিয়োগ বেড়েছে

প্রকাশিত : ৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ রাজনৈতিক অস্থিরতার মাঝেও গতমাসে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) নিট বিদেশী বিনিয়োগ আগের মাসের চেয়ে ৫ দশমিক ৬৬ শতাংশ বেড়ে ২২৮ কোটি টাকায় পৌঁছেছে। বিদেশীদের নিট বিনিয়োগ বাড়লেও ডিসেম্বরের তুলনায় লেনদেনে তাদের অংশগ্রহণ কমেছে।

ডিএসইর তথ্যানুসারে জানুয়ারিতে বিদেশী বিনিয়োগকারীরা শেয়ার কিনেছেন ৩৬৫ কোটি টাকার। অন্যদিকে বিক্রি করেছেন ১৩৭ কোটি টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড। এতে নিট বিদেশী বিনিয়োগ দাঁড়ায় ২২৮ কোটি টাকার কিছু বেশি, যা আগের মাসে ছিল ২১৫ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। জানুয়ারিতে মোট ৫০১ কোটি ৮৭ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা করেন বিদেশী বিনিয়োগকারীরা, যা ডিসেম্বরের তুলনায় কম।

২০১৪ সালে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের মোট লেনদেন ছিল ৬ হাজার ২০৫ কোটি টাকা। সে সময় ৪ হাজার ৪০৬ কোটি টাকার শেয়ার কেনার বিপরীতে তাদের মোট বিক্রি ছিল ১ হাজার ৭৯৮ কোটি টাকা। নিট বিনিয়োগ হয় ২ হাজার ৬০৮ কোটি টাকা।

ডিসেম্বরে বিদেশী বিনিয়োগকারীরা শেয়ার কেনেন ৪১০ কোটি ৩৬ লাখ টাকার। এর বিপরীতে বিক্রি করেন ১৯৪ কোটি ৩৮ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড। এ সময় বিদেশীদের মোট লেনদেন ছিল ৬০৪ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। নবেম্বরে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের কেনাবেচা ছিল ৫১৩ কোটি ৮৩ লাখ টাকার, যার মধ্যের শেয়ার ক্রয় ৩৪৮ কোটি ৩৮ লাখ টাকা ও বিক্রি ছিল ১৬৫ কোটি ৪৫ লাখ টাকা।

অক্টোবরে বিদেশী বিনিয়োগকারীরা মোট ৩০২ কোটি ৮৮ লাখ ১৫ হাজার টাকার শেয়ার কেনেন। এর বিপরীতে বিক্রি ছিল ১০৭ কোটি ১ লাখ ৬৮ হাজার টাকা। অক্টোবরে তাদের মোট লেনদেন ছিল ৪০৯ কোটি ৯৮ লাখ ৮২ হাজার টাকা।

সেপ্টেম্বরে নিট বিদেশী বিনিয়োগ আগস্টের চেয়ে প্রায় ৩৩ গুণ বাড়ে। সেপ্টেম্বরে বিদেশী বিনিয়োগকারীরা শেয়ার কেনেন ৫৮৯ কোটি ৬০ লাখ টাকার, যার বিপরীতে বিক্রি করেন ১৬৩ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। আগস্টে নিট বিদেশী বিনিয়োগের পরিমাণ ছিল মাত্র ১২ কোটি ৪৬ লাখ টাকা।

আগের মাসের তুলনায় গত আগস্টে নিট বিদেশী বিনিয়োগ কমে ৮৪ শতাংশ। সে সময় ডিএসইতে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের মোট লেনদেনের পরিমাণ ছিল ৩১৬ কোটি ৪১ লাখ টাকা। এর মধ্যে শেয়ার ক্রয় ১৬৪ কোটি ৯৩ লাখ টাকা ও শেয়ার বিক্রির পরিমাণ ছিল ১৫২ কোটি ৪৭ লাখ টাকা।

জুলাইয়েও তার আগের মাসের তুলনায় বিদেশী বিনিয়োগ কমে যায়। জুনে ডিএসইতে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের মোট লেনদেন ছিল ৬০২ কোটি টাকা, যা জুলাইয়ে নামে ২৫৩ কোটি টাকায়। আগের মাসে শেয়ার বিক্রির চেয়ে ক্রয়ের পরিমাণ বেশি থাকলেও জুলাইয়ে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের মধ্যে মুনাফা তুলে নেয়ার একটি প্রবণতা ছিল।

জুনে মোট লেনদেনের মধ্যে শেয়ার ক্রয় ছিল ৪৮২ কোটি ৫১ লাখ ৫ হাজার টাকা; যা জুলাইয়ে নামে ৮৬ কোটি ৮০ লাখ টাকায়। এ হিসাবে এক মাসে বিদেশীদের শেয়ার ক্রয় কমে ৮২ শতাংশ। অন্যদিকে জুনে বিদেশীদের বিক্রি ছিল ১১৯ কোটি ৮৭ লাখ ৫৪ হাজার টাকার, যা জুলাইয়ে ১৬৬ কোটি ৪৫ লাখ টাকায় উন্নীত হয়।

এদিকে গত মে মাসেও বিদেশী বিনিয়োগকারীদের লেনদেনে অংশগ্রহণ কমতে দেখা যায়। তখন বিদেশী বিনিয়োগকারীদের পোর্টফোলিও থেকে মোট ৫৭৭ কোটি ৪৯ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়, যার মধ্যে ক্রয় ৩৫৩ কোটি ৬ লাখ টাকা ও বিক্রি ২২৪ কোটি ৪২ লাখ টাকা।

এর আগে এপ্রিলে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের লেনদেন আগের মাসের চেয়ে ৪২৭ শতাংশ বাড়ে। এপ্রিলে বিদেশী বিনিয়োগ হয়েছিল ১ হাজার ১৮০ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। এ সময় নিট বিদেশী বিনিয়োগ হয় ৫৭২ কোটি ৮ লাখ টাকা, যা ২০১৪ সালের সর্বোচ্চ।

প্রকাশিত : ৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৬/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


ব্রেকিং নিউজ: