মূলত পরিষ্কার, তাপমাত্রা ২১.১ °C
 
১১ ডিসেম্বর ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

উচ্ছ্বাসের জোয়ারে ভাসছেন সেরেনা-জোকোভিচ

প্রকাশিত : ৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মৌসুমের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের মহিলা এককে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন সেরেনা উইলিয়ামস। আর রবিবার পুুরুষ এককে শিরোপা জয়ের স্বাদ পেয়েছেন সার্বিয়ার নোভাক জোকোভিচ। তেত্রিশ বছর বয়সে ক্যারিয়ারের ১৯তম গ্র্যান্ডস্লাম জিতে সেরেনা উইলিয়ামস ইতোমধ্যেই নিজেকে নিয়ে গেছেন কিংবদন্তির তালিকায়। আর ৮টি গ্র্যান্ডস্লামজয়ী ২৭ বছর বয়সী নোভাক জোকোভিচও হাটছেন সে পথে। নতুন বছরের প্রথম মেজর টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর দু’জনই দারুণ রোমাঞ্চিত। অস্ট্রেলিয়ায় সময়টাও দারুণ কেটেছে তাদের।

ক্যারিয়ারে ৮টি গ্র্যান্ডসøাম জিতেছেন নোভাক জোকোভিচ। তার পাঁচটিই অস্ট্রেলিয়ান ওপেন। অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে পাঁচবার ফাইনালে উঠে পাঁচবারই শিরোপা জয়ের মাইলফলক স্পর্শ করেন তিনি। অসামান্য কীর্তি গড়ে নোভাক জোকোভিচ গর্বিত। তা ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনেই জানিয়ে দিয়েছেন জোকোভিচ। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে পঞ্চমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়ে এখানে দাঁড়াতে পেরে আমি খুবই সৌভাগ্যবান, সম্মানিত এবং কৃতজ্ঞ।’ গত ৮ বছরের মধ্যে পাঁচবারই অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা নিজের শোকেসে তুলেছেন ২৭ বছর বয়সী এই সার্বিয়ান। তার সামনে এখন কেবল অস্ট্রেলিয়ার রয় এমারসন। ১৯৬০ এর দশকে যিনি সর্বোচ্চ ষষ্ঠবারের মতো অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জয়ের বিরল কীর্তি গড়েছিলেন। ফাইনালে এ্যান্ডি মারেকে হারানোর পর রয় এমারসন উপস্থিত হয়েই জোকোভিচের হাতে শিরোপা তুলে দেন। কিংবদন্তির হাত থেকে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ট্রফি নিতে পেরে নোভাক জোকোভিচও গর্বিত বলে মন্তব্য করেছেন। গত মৌসুমেই দীর্ঘদিনের বান্ধবীর সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন জোকোভিচ। গত বছরের অক্টোবরে বাবাও হন তিনি। তবে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জয়ের আনন্দ তাঁর কাছে আরও গভীর বলে জানিয়েছেন জোকোভিচ। এ বিষয়ে তাঁর অভিমত হলো, ‘আমি মনে করি এই জয় শিরোপা জয়ের মহত্ত্ব অনেক গভীর। আমার জীবনকে যেন আরও বেশি অর্থবহ করে তুলেছে। কারণ এটাই প্রথম বাবা এবং স্বামী হিসেবে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জয়ের স্বাদ পেলাম। এ জন্য আমি নিজেকে খুবই গর্বিত মনে করছি।’ নোভাক জোকোভিচ যেমন এই টুর্নামেন্টকে অতিরিক্ত গুরুত্ব দিচ্ছেন তেমনি কেউ কেউ চাইবেন আবার দ্রুতই বছরের প্রথম টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেনকে ভুলে যেতে। তাদের মধ্যে টেনিসের জীবন্ত কিংবদন্তি রজার ফেদেরারের নাম উল্লেখযোগ্য। তেমনি ফাইনালিস্ট এ্যান্ডি মারেও। তা ছাড়াও রয়েছেন রাফায়েল নাদাল ও গত মৌসুমের শিরোপাজয়ী স্টানিসøাস ওয়ারিঙ্কা।

এদিকে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জয়ের মাধ্যমে মহিলা এককে রেকর্ড ১৯তম গ্র্যান্ডসøাম জয়ের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন সেরেনা উইলিয়ামস। কিংবদন্তি মার্টিনা নাভ্রাতিলোভা এবং ক্রিস এভার্টকে ছাড়িয়ে উন্মুক্ত যুগে সর্বকালের সর্বোচ্চ গ্র্যান্ডসøামজয়ীর তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে উঠে গেছেন তিনি। তাঁর সামনে এখন কেবল স্টেফিগ্রাফ। যিনি ২২ গ্র্যান্ডসøাম জিতে এই তালিকায় সবার ওপরে অবস্থান করছেন। তেত্রিশ বছর বয়সী সেরেনা উইলিয়ামসের লক্ষ্য এখন তাকেই স্পর্শ করা। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘২২টি গ্র্যান্ডসøাম জিততে পারলে আমারই ভাল লাগবে...১৯টি গ্র্যান্ডসøাম জিততেই অনেক কষ্ট হয়েছে। এখানে আসতে আমার তেত্রিশ বছর সময় লেগেছে। তাই ২২টি গ্র্যান্ডসøাম জিতলে ভালই লাগবে। কিন্তু আগে তো আমাকে ২০টি গ্র্যান্ডসøাম জিততে হবে। এরপর ২১। তবে এখন অনেক তরুণ প্রতিভাবান খেলোয়াড়ের সংখ্যা অনেক। তাই এই কাজটা হবে অনেক কঠিন।’

প্রকাশিত : ৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৫/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: