আংশিক মেঘলা, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৬ ডিসেম্বর ২০১৬, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

ভারতকে তিন ওয়ানডে খেলার প্রস্তাব দেবে বিসিবি

প্রকাশিত : ৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) ভবিষ্যত সফর পরিকল্পনা (এফটিপি) অনুসারে এ বছরের শেষদিকে বাংলাদেশ সফরে আসার কথা রয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট দলের। এফটিপি অনুসারে সে সময় দুই টেস্ট ও তিন ওয়ানডে খেলার কথা থাকলেও ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) চাইছে একটি টেস্ট খেলতে। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) চাইছে একটি টেস্ট না খেলে তিন ওয়ানডে খেলতে। সে জন্য বিসিসিআইকে প্রস্তাব করবে বিসিবি। এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তবে টেস্টের পরিবর্তে স্বল্প মেয়াদের ক্রিকেট খেলার ইচ্ছাটা কেন বিসিবির সেটা ব্যাখ্যা দেননি তিনি।

আসন্ন বিশ্বকাপ শেষেই বাংলাদেশ সফরে আসার কথা রয়েছে পাকিস্তান দলের। আর এরপর আসবে দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়া। সব দলের বিরুদ্ধেই পূর্ণাঙ্গ সিরিজ রয়েছে এফটিপি অনুসারে। তবে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ না খেলে ভারতের ইচ্ছা বাংলাদেশ সফরে একটি মাত্র টেস্ট খেলার। এ বিষয়ে পাপন এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলবে। শুধু ভারত একটা টেস্ট ম্যাচ খেলতে চায়। এখন একটা টেস্ট ম্যাচ হবে নাকি ৩টি ওয়ানডে হবে সেটা আমরা চিন্তা করছি। ভারতের সঙ্গে আমার ১ টেস্ট খেলে এখন আমাদের কী লাভ হবে? তারচেয়ে ৩টা ওয়ানডে খেললে লাভ আমাদের জন্য। সেই জন্য এই প্রস্তাবটা আমরা দেব। এটা নিয়ে আমরা আলাপ করছি। তবে ওদের ওখানে গিয়ে আমরা টেস্ট খেলব। আমরা ২০১৬ সালে টেস্ট খেলব ইডেন গার্ডেনে এটা মোটামুটি নিশ্চিত করেছি।’

গত বছর ফেব্রুয়ারিতেই পাপন জানিয়েছিলেন ২০১৪, ২০১৫ এবং ২০২০ সালে এফটিপি অনুসারে বাংলাদেশ সফর করবে ভারতীয় দল। সে অনুসারে গত বছর জুনে বাংলাদেশ সফরে এসে তিন ওয়ানডের সিরিজ খেলে গেছে তারা। তবে ২০০০ সালে টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার পর শুধু ভারত সফরেই পূর্ণাঙ্গ কোন দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলার জন্য যেতে পারেনি বাংলাদেশ দল। তবে ভারতীয় দল বেশ কয়েকবার বাংলাদেশ সফর করেছে। যদিও ২০০০ সালে একটি মাত্র টেস্ট খেললেও পরবর্তী কোন সফরেই কোন টেস্ট খেলেনি ভারত। সেই অবস্থাটার পরিবর্তন ঘটার সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে আইসিসির নতুন এফটিপি দেয়ার পর। সেই পরিপ্রেক্ষিতে এ বছর জুনে দুই টেস্ট ও তিন ওয়ানডে খেলার কথা বাংলাদেশ সফরে ভারতীয় দলের। র‌্যাঙ্কিংয়ে ওপরের দিকে থাকা দলগুলোর বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ খেলাটা নিশ্চিতভাবেই বাংলাদেশের জন্য উপকার হবে। কিন্তু ভারতীয় দল বরাবরই তা খেলেনি বাণিজ্যিকভাবে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ খেলাটা তেমন উপকার হবে না এমন অজুহাত তুলে। গত বছর বাংলাদেশ দল মাত্র ৭টি টেস্ট খেলেছে। আর এত কম টেস্ট খেলার কারণেই বাংলাদেশের টেস্ট ক্রিকেটে উন্নতি হচ্ছে না। এ বিষয়ে পাপন বলেছিলেন, ‘আমাদের মূল লক্ষ্য হচ্ছে বেশি বেশি টেস্ট খেলা এবং ভাল টেস্ট খেলুড়ে দেশ সফর করা। আমরা ইতোমধ্যেই সেটা নিশ্চিত করেছি। কারণ সব দেশেরই বেশ আঁটসাঁট সময়সূচী রয়েছে।’ তবে ২০১৫ সালেও টেস্ট খেলার পরিমাণ বাড়ছে না। এফটিপি অনুসারে এ বছরও ৭ টেস্ট খেলার কথা রয়েছে বাংলাদেশের। ২০২২ পর্যন্ত এফটিপি অনুসারে ৬০টিরও বেশি টেস্ট খেলার কথা সবমিলিয়ে। তবে এর মধ্যে একটি বড় শর্ত রয়েছে। ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সেরা আটে থাকতে হবে অবস্থান। সেক্ষেত্রে ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলার সুযোগ পাওয়া যাবে। এ কারণেই সম্ভবত এখন বিসিবি বেশি বেশি ওয়ানডে খেলার দিকে আপাতত মনোযোগী হচ্ছে।

প্রকাশিত : ৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৪/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: