কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৩ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

আর্সেনালের গোলোৎসব এ্যাস্টন ভিলার জালে

প্রকাশিত : ৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গোলোৎসব করেছে আর্সেনাল। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলে রবিবার রাতে অনুষ্ঠিত ম্যাচে স্বাগতিক গানার্সরা ৫-০ গোলে উড়িয়ে দেয় এ্যাস্টন ভিলাকে। লন্ডনের এমিরেটস স্টেডিয়ামে ম্যাচে আর্সেনালের হয়ে পাঁচজন পাঁচ গোল করেন। গোলদাতারা হলেন- অলিভিয়ের জিরাউড, মেসুত ওজিল, থিও ওয়ালকট, সান্টি ক্যাজোরলা ও ইক্টর বেলেরিন।

আরেক ম্যাচে সোয়ানসি সিটির কাছে ১-০ গোলে হেরে পয়েন্ট তালিকার তিন নম্বরে ওঠার সুযোগ হারিয়েছে সাউদাম্পটন। ২৩ ম্যাচ শেষে ৪২ পয়েন্ট নিয়ে গোলগড়ে এগিয়ে থেকে চার নম্বরে সাউদাম্পটন। সমান পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানে আর্সেনাল। ৫৩ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে চেলসি। দুইয়ে থাকা ম্যানসিটির পয়েন্ট ৪৮।

ঘরের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকেই আধিপত্য বিস্তার করে খেলতে থাকে স্বাগতিক আর্সেনাল। অষ্টম মিনিটে জিরাউডের গোলে এগিয়ে যায় আর্সেন ওয়েঙ্গরের দল। মেসুত ওজিলের অসাধারণ এক ফ্লিক থেকে বল পান জিরাউড। ফরাসী এই ফরোয়ার্ড সহজেই বল পাঠান এ্যাস্টন ভিলার জালে। প্রথমার্ধে ব্যবধান আরও বাড়ানোর সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি স্বাগতিকরা। এর মধ্যে ২৭ মিনিটে ক্যাজোরলার শটে এ্যাস্টন ভিলার গোলরক্ষক পরাস্ত হলেও পোস্টগোলবঞ্চিত করে তাকে। ৩০ মিনিটে ওজিল এ্যাস্টন ভিলার জালে বল পাঠালেও অফসাইডের কারণে তা বাতিল হয়। ৩৬ মিনিটে এ্যারন রামসের দুর্দান্ত শট ফিরিয়ে দেন অতিথি গোলরক্ষক গুজান। ম্যাচে ফেরার সুযোগ পেয়েছিল ভিলাও। ৪৪ মিনিটে দারুণ একটি আক্রমণ করে তারা। কিন্তু স্বাগতিক গোলরক্ষক ডেভিড অসপিনা অসাধারণভাবে রুখে দেন অতিথিদের আক্রমণ।

বিরতির পর গোলবন্যায় মেতে ওঠে আর্সেনাল। ৫৬ মিনিটে পাল্টা আক্রমণ থেকে ওজিলের গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে গানার্সরা। ৬৩ মিনিটে ব্যবধান ৩-০ করা গোলটি করেন থিও ওয়ালকট। এটিও আসে পাল্টা আক্রমণ থেকে। ৭৫ মিনিটে পেনাল্টি থেকে আর্সেনালকে ৪-০ গোলে এগিয়ে নেন ক্যাজোরলা। ম্যাচের শেষ মিনিটে পাঁচ নম্বর গোল করেন বেলেরিন। ম্যাচে প্রাপ্ত সুযোগগুলো কাজে লাগিয়ে বড় ব্যবধানে জয পায় আর্সেনাল। প্রতিপক্ষ এ্যাস্টন ভিলাও ছেড়ে কথা বলেনি। বলের দখলে প্রায় সমানে সমান থাকলেও গোল মিসের মহড়ার কারণে বড় ব্যবধানে হারতে হয়েছে তাদের। অবাক করা বিষয় হচ্ছে, বলের দখলে এগিয়ে ছিল এ্যাস্টন ভিলাই! তাদের বলের দখল ছিল ৫২ শতাংশ। পক্ষান্তরে আর্সেনালের ছিল ৪৮ শতাংশ। গোলমুখে আর্সেনালের আক্রমণ ছিল ১৩টি। এর মধ্যে সঠিক ছিল ৮টি, যা থেকে পাঁচ গোল আদায় করে গানার্সরা। অপরদিকে মোট ৯টি গোলের প্রচেষ্টা করে এ্যাস্টন ভিলা। এর মধ্যে গোলমুখে যায় দুটি। কিন্তু একটি গোলেরও দেখা পায়নি তারা। দু’দলই কর্ণার পায় ৭টি করে।

ম্যাচ শেষে আর্সেনাল কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গার বলেন, ম্যাচের ফলাফল বলছে আমরা সহজ জয় পেয়েছি। তবে প্রতিপক্ষ খারাপ করেনি। দু-একটা সুযোগ কাজে লাগাতে পারলে ম্যাচটি হয়ত আরও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হতো। এ্যাস্টন ভিলা আক্রমণাত্মক খেলায় আমরা পাল্টা আক্রমণে মনোযোগী ছিলাম। সাফল্যও এসেছে যা থেকে।

প্রকাশিত : ৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৩/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



ব্রেকিং নিউজ: