কুয়াশাচ্ছন্ন, তাপমাত্রা ২২.২ °C
 
৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
শীর্ষ সংবাদ

সেবা পেতে রাজউকের মানদণ্ড নির্ধারণ

প্রকাশিত : ৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জমির নকশা, বিশেষ প্রকল্পের ছাড়পত্র প্রদান ও প্লটের নকশা অনুমোদনসহ রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) বিভিন্ন সেবা পেতে নগরবাসীর অপেক্ষার সময় কমিয়ে আনতে একটি মানদণ্ড বেঁধে দিয়েছে সরকার। এখন থেকে রাজউক অনুমোদিত সকল বেসরকারী আবাসিক প্রকল্পের প্লটের নকশা অনুমোদন পাওয়া যাবে ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে, যেখানে আগে অনুমোদন পেতে ৩০ দিন লাগত। এছাড়া জমির নকশা ও বিশেষ প্রকল্পের ছাড়পত্র দেয়ার মেয়াদ ৪৫ দিন থেকে কমিয়ে ৪০ কর্মদিবস করা হয়েছে। সোমবার সচিবালয়ে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় এবং রাজউকের মধ্যে স্বাক্ষরিত এক সমঝোতা স্মারকে এ সময় নির্ধারণ করা হয়।

এই ‘মানদ-’ অনুযায়ী, ব্যক্তিমালিকানাধীন জমি বা প্লটের ক্ষেত্রে ভূমি ব্যবহার ছাড়পত্র দিতে হবে ২৫ কর্মদিবসের মধ্যে; আগে যা ৩০ দিনে হতো। বরাদ্দ গ্রহীতার মৃত্যু হলে সংশোধিত বরাদ্দপত্র অনুমোদনের সময় ২৫ দিন থেকে কমিয়ে ১৫ কার্যদিবস নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া আম-মোক্তার অনুমোদনের সময় ২৫ কর্মদিবস থেকে কমিয়ে ২০ দিন, প্লট বা ফ্ল্যাটের জামানত ফেরতের সময় ৮ দিন থেকে কমিয়ে ৫ কার্যদিবস করা হয়েছে। ঝিলমিল আবাসিক প্রকল্পের ৪০০ মিটার দৈর্ঘের সেতু নির্মাণ কাজের সময় ১৮ মাস থেকে কমিয়ে ১৫ মাস ঠিক করা হয়েছে এ মানদ-ে।

রাজউক কর্মচারীদের অবসর প্রস্তুতি ছুটি, ছুটি নগদায়ন, ভবিষ্যত তহবিল নগদায়নের কাজ ১০ দিন এবং পেনশন মঞ্জুরির মেয়াদ ২৫ দিন ঠিক করা হয়েছে। আগে এই মেয়াদ ছিল ৯০ দিন। সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী, রাজউকের কাজের মানদ-ের বিষয়ে মন্ত্রণালয় নিয়মিত নজরদারি ও মূল্যায়ন করবে। এ বিষয়ে সরকারের কাছে প্রতিবেদনও দেয়া হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান জি এম জয়নাল আবেদিন বলেন, আমরা চাই রাজউককে একটি পূর্ণাঙ্গ সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করা। সেজন্যই মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে এ চুক্তি সম্পন্ন করা হয়েছে। এ চুক্তি অনুযায়ী নিয়মিত গ্রাহকদের কি পরিমান সেবা প্রদান করা হয়েছে তা মন্ত্রণালয়কে জানানো হবে। ফলে রাজউকেরও দায়দায়িত্ব ও জবাবদিহিতা আগের চেয়ে তুলনামূলক বাড়বে। আগেও নিয়মিত এসব সেবা প্রদান করা হলেও নতুন চুক্তি অনুযায়ী গ্রাহকের সুবিধার্থে নির্ধারিত সময়ে রাজউক তার ঘোষিত সুবিধা প্রদান করবে।

প্রকাশিত : ৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

০৩/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



ব্রেকিং নিউজ: